ক্ষতিগ্রস্থদের আবেদনের সময় বাড়লো ৩ মাস

bsecনিজস্ব প্রতিনিধি :

ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের আর্থিক ক্ষতি মেটাতে সরকার গঠিত বিশেষ পুনঃঅর্থায়ন ঋণসহায়তা তহবিলের তৃতীয় কিস্তি ৩০০ কোটি টাকার আবেদনের সময়সীমা ৩ মাস বাড়িয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

গতকাল তদারকি কমিটির বৈঠকে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আবেদনের সময়সীমা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আগামী ৩০ জুন আবেদনের সময় শেষ হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও তহবিল ব্যবস্থাপনা কমিটির আহ্বায়ক সাইফুর রহমান বলেন, এরই মধ্যে তৃতীয় কিস্তির অর্থ ছাড়ের অনুমোদন দিয়েছে সরকার। বাংলাদেশ ব্যাংক শিগগিরই এ অর্থ জমা দেবে। তিনি বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারীদের সুবিধার্থে এ তহবিলের অর্থ পেতে আবেদনের সময় আরো তিন মাস বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

জানা গেছে, পুনর্বিনিয়োগ তহবিল থেকে ঋণ সুবিধা পেতে মোট ৪৬টি প্রতিষ্ঠানের ২৩ হাজার ৬৩০ জন ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীর ৬০৫ কোটি ৯৩ লাখ টাকা বরাদ্দের আবেদন রয়েছে। আর গত ২৪ জুন পর্যন্ত ২২ হাজার ৩৭৪ জন ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারীর জন্য ৫৭০ কোটি ৩০ লাখ টাকার ঋণ অনুমোদন করা হয়েছে। এর মধ্যে ২৯টি মার্চেন্ট ব্যাংক ও ব্রোকারেজ হাউজের ১৯ হাজার ৭১৫ জন ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারীর বিপরীতে ৪৮৭ কোটি ৪৯ লাখ টাকার ঋণ বিতরণ করা হয়েছে।

এছাড়া আরো ১২টি প্রতিষ্ঠানের ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারীর বিপরীতে ১১২ কোটি টাকার ঋণ বিতরণের কাজ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে, যা শিগগিরই বিতরণ করা হবে। তদারকি কমিটি আশা করছে, সহায়তা তহবিল থেকে পুনঃঅর্থায়নের সুবিধা নিতে আরো আবেদন জমা পড়তে পারে। এ অবস্থায় সামগ্রিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারীদের আবেদনের সময় আরো বাড়ানো হলো।

এর আগে দুই কিস্তিতে মোট ৬০০ কোটি টাকা দেয়া হয় পুনঃঅর্থায়ন সহায়তা তহবিলে। এখন তৃতীয় কিস্তির ৩০০ কোটি টাকা দেয়া হলে ৯০০ কোটি টাকার তহবিল গঠনে সরকারের দেয়া প্রতিশ্রুতি পূরণ হবে। ২০১০ সালে শেয়ারবাজার ধসে ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের স্বল্প সুদে ঋণ দিতে ২০১১ সালে ওই সহায়তা তহবিল গঠনের ঘোষণা দেয় সরকার।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম/এইচ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *