ডিএসইতে ১৪ মাসের মধ্যে সূচকের সর্বোচ্চ পতন

low indexনিজস্ব প্রতিবেদক :

সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রোববার বড় ধরনের দর পতনে লেনদেন শেষ হয়েছে শেয়ারবাজারে। এদিন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূল্য সূচক ডিএসই এক্স কমেছে ১০৯ পয়েন্ট। যা ছিল গত ১৪ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ পতন। এদিকে লেনদেনও কমেছে উল্লেখযোগ্য হারে।

প্রসঙ্গত, এর আগে ২০১৩ সালের ২৩ জুলাই ডিএসই ব্রড ইনডেক্স কমেছিল ১২৫ পয়েন্ট।

ডিএসইতে আজ ৬৮৭ কোটি ২৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আগের দিন এ বাজারে লেনদেন হয়েছিল ৮১৪ কোটি ৪১ লাখ টাকার শেয়ার। অর্থাৎ লেনদেন কমেছে ১২৭ কোটি টাকার বা ১৬ শতাংশ।

বিশ্লেষকদের মতে, জুলাই মাসের পর থেকে একটানা ঊর্ধ্বমুখীতে ছিল বাজার। আর মাঝে মাঝে দর সংশোধন হলেও সেটা ছিল সামান্য। এখন বিনিয়োগকারীদের মুনাফা তোলার চাপেই বড় দর পতন হয়েছে বলে মনে করেন তারা।

এদিকে ডিএসই প্রধান মূল্য সূচক ডিএসই এক্স ১০৯ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৫ হাজার ১৭৬ পয়েন্টে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ২৪ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ২১৭ পয়েন্টে। আর ডিএস৩০ সূচক ৪৩ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৯৫৪ পয়েন্টে।

এদিন ডিএসইতে মোট লেনদেনে অংশ নিয়েছে ৩০২টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৫৪টি কোম্পানির। আর দর কমেছে ২৩৩টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৫টির।

এছাড়া আজ ডিএসইতে টাকার অঙ্কে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে যমুনা অয়েলের শেয়ার। এরপরে রয়েছে- স্কয়ার ফার্মা, তিতাস গ্যাস, এমজেএলবিডি, গ্রামীণফোন, ডেল্টোলাইফ ইন্স্যুরেন্স, ডেসকো, বেক্সিমকো, সিঙ্গারবিডি এবং লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট।

অপরদিকে রোববার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ৪৫ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এদিন সিএসই সার্বিক সূচক ৩৪৮ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৫ হাজার ৯৬১ পয়েন্টে। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২২৯টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ২৮টির, কমেছে ১৯১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১০টির।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/সি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *