ডিসেম্বরের মধ্যেই ইটিএফ বিধিমালা

bsecনিজস্ব প্রতিবেদক :

চলতি বছরের মধ্যেই এক্সচেঞ্জ ট্রেডেড ফান্ড (ইটিএফ) বিধিমালা চূড়ান্ত করে আগামী বছর নাগাদ বাজারে বিশেষ ধরনের এ সামষ্টিক বিনিয়োগ তহবিল চালুর পরিকল্পনা রয়েছে দেশের শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রকদের। বৃহস্পতিবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠককালে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান এ তথ্য দেন।

তিনি বলেন, শেয়ারবাজারের স্বার্থে বিএসইসি সব ধরনের উদ্যোগ গ্রহণ করবে। এর মধ্যে সিডিবিএলের চার্জ যৌক্তিকীকরণের উদ্যোগ নিয়েছে, যাতে সিডিবিএলের চার্জ বাজারে কোনো সমস্যার সৃষ্টি না করে।

তিনি আরও বলেন, ২০১৫ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে শেয়ারবাজারে নতুন প্রোডাক্ট এক্সচেঞ্জ ট্রেডেড ফান্ডের (ইটিএফ) বিধিমালা তৈরি করে আগামী বছরের মধ্যে ইটিএফ চালু হবে। এ ছাড়া ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেটে শেয়ারবাজারের জন্য প্রয়োজন যে সমস্ত বিষয়া আসেনি এ সব বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে আশ্বাস দেন বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক খায়রুল।’

এ সময় ডিএসইর চেয়ারম্যান বিচারপতি ছিদ্দিকুর রহমান মিয়া বলেন, ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেটে শেয়ারবাজারের যে সব প্রস্তাবনা রাখা হয়েছে তা বাজারের জন্য তথা বিনিয়োগকারীদের জন্য সত্যিই স্বস্তিদায়ক হবে।

ডিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক অধ্যাপক ড. স্বপন কুমার বালা বাজেটে শেয়ারবাজারবান্ধব যে সমস্ত প্রস্তাবনা রাখা হয়েছে তার বিস্তারিত তুলে ধরেন এবং ডিএসইর কর অবকাশ সুবিধাসহ যে সমস্ত বিষয় বাজেটে আসেনি সে বিষয়গুলো কমিশনকে অবহিত করেন।

এ ছাড়াও বৈঠকে বাজার পরিস্থিতি উন্নয়নের লক্ষ্যে আইপিও প্রক্রিয়া, অটোমেটেড ট্রেডিং সিস্টেম, মার্জিন ইস্যু, শেয়ারবাজারে নতুন প্রোডাক্ট ইটিএফ চালু, ট্রেজারি বন্ড, ডিএসইর নিকুঞ্জ ভবন, সিডিবিএলের বিভিন্ন চার্জ নিয়ে আলোচনা করা হয়।

বৈঠকে ডিএসইর চেয়ারম্যান বিচারপতি ছিদ্দিকুর রহমান মিয়ার নেতৃত্বে প্রতিনিধি দলে ছিলেন- পরিচালক রুহুল অমিন, ওয়ালিউল ইসলাম, অধ্যাপক ড. এম কায়কোবাদ, মো. শাকিল রিজভী, খাজা গোলাম রসুল, মোহাম্মদ শাহজাহান ও শরীফ আনোয়ার হোসেন।

এ ছাড়া বৈঠকে বিএসইসির কমিশনার অধ্যাপক মো. হেলাল উদ্দিন নিজামী, আমজাদ হোসেন, মো. এ সালাম সিকদার ও নির্বাহী পরিচালকরা উপস্থিত ছিলেন।

বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো স্টক এক্সচেঞ্জের নির্দিষ্ট সূচক, সূচকভুক্ত কোম্পানি কিংবা নির্দিষ্ট খাতের শেয়ারে বিনিয়োগের লক্ষ্যে এক্সচেঞ্জ ট্রেডেড ফান্ড চালুর চেষ্টা করছে দেশের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ও স্টক এক্সচেঞ্জগুলো।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *