শেয়ারবাজার থেকে ২,৪৩০ কোটি ডলার নিতে চায় আলিবাবা

Alibaba-logoস্টকমার্কেটড ডেস্ক, ১ অক্টোবর :
আইপিও’র মাধ্যমে শেয়ারবাজার থেকে ২ হাজার ৪৩০ কোটি মার্কিন ডলার সংগ্রহের চিন্তাভাবনা করছে চীনা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান আলিবাবা গ্রুপ। এমনটি হলে আলিবাবাই হতে যাচ্ছে পুঁজিবাজার থেকে সবচেয়ে বেশি মূলধন সংগ্রহকারী অনলাইন সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান।

সম্প্রতি এক খবরে বিবিসি জানিয়েছে, পুঁজিবাজার থেকে অর্থ সংগ্রহের বিষয়ে বিস্তারিত পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে আলিবাবা।

প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের মাধ্যমে নিউইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জে তথা বিশ্ব পুঁজিবাজারে অন্তর্ভূক্ত হতে যাচ্ছে এই কোম্পানি।

প্রতিষ্ঠানটির ধারণা, প্রাথমিক গণপ্রস্তাবে শেয়ারের দাম হতে পারে ৬০ থেকে ৬৬ মার্কিন ডলার। তবে আন্তর্জাতিক রোড শো শেষে আগামী সপ্তাহে চূড়ান্ত শেয়ারমূল্য নির্ধারণ করা হবে। আইপিওতে প্রতিষ্ঠানটির মোট ৩২ কোটি এক লাখ শেয়ারের মধ্যে ১২ কোটি ৩১ লাখ শেয়ার ছাড়া হবে।

তবে অনুমিত মূল্যেই আলিবাবাবা হতে যাচ্ছে বিশ্ব পুঁজিবাজারের সবচেয়ে বেশি অর্থ সংগ্রহকারী প্রযুক্তি কোম্পানি।

এ সম্পর্কে আলিবাবার নির্বাহী চেয়ারম্যান জ্যাক মা বলেন, শুরু থেকেই আমাদের উদ্যোক্তাদের আশা ছিল কোম্পানিটির ভিত গড়ে তুলবে চীনা জনগণ, তবে এটি হবে সারা বিশ্বের মানুষের।

এর আগে ২০১২ সালে ফেসবুক এক হাজার ৬০০ কোটি ডলার মূল্যের শেয়ার ছেড়েছিল। বর্তমানে ফেসবুকের বাজারমূল্য ১০ হাজার কোটি মার্কিনডলারের বেশি।

আইপিও ছাড়ার পর আলিবাবার বাজারমূল্য ১৬ হাজার ২০০ কোটিতে পৌঁছাতে পারে।

প্রসঙ্গত, আলিবাবা চীনের সবচেয়ে বড় প্রযুক্তি কোম্পানি। দেশটির ৮০ শতাংশ অনলাইন বেচা-কেনাই এর মাধ্যমে হয়ে থাকে।

লতিফ সিদ্দিকীকে আদালতের সমন

latifনিজস্ব প্রতিবেদক, ১ অক্টোবর :
ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত ও অবমাননার অভিযোগে করা পৃথক দুটি মামলায় ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকীকে হাজির হতে সমন জারি করেছেন পৃথক দুটি আদালত।

লতিফ সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে দুই মামলা বুধবার আইনজীবী এ এম এম আবেদ রাজার করা মামলায় মহানগর হাকিম মিজানুর রহমান ২৮ অক্টোবর ও ব্যবসায়ী মো. বাদলের করা মামলায় মহানগর হাকিম রেজাউল করিম ৩০ অক্টোবর আদালতে হাজির হতে লতিফ সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে সমন জারি করেছেন।

গত রোববার নিউইয়র্কে টাঙ্গাইল সমিতির সঙ্গে মতবিনিময় অনুষ্ঠানে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী লতিফ সিদ্দিকী পবিত্র হজ, তাবলিগ জামাত, প্রধানমন্ত্রীর ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয় ও সাংবাদিকদের সম্পর্কে নানা মন্তব্য করেন। তাঁর বক্তব্যের ভিডিও ক্লিপ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। দেশের বেসরকারি টিভি চ্যানেল ও সংবাদপত্রে তা প্রচারিত ও প্রকাশিত হয়। লতিফ সিদ্দিকীর মন্তব্যে বিভিন্ন মহলে তীব্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

বৈদেশিক লেনদেন বেড়েছে ৪৩৫ কোটি টাকা

index hনিজস্ব প্রতিবেদক, অক্টোবর ০১:

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সেপ্টেম্বর মাসে বৈদেশিক লেনদেন আগের মাসের থেকে ৪৩৫ কোটি টাকা বা ১৩৭ শতাংশ বেড়েছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র মতে, সেপ্টেম্বর মাসে বৈদেশিক লেনদেন হয়েছে ৭৫২ কোটি ৯৫ লাখ ৬৩ হাজার ১৬৭ টাকার, আর আগের মাসে ডিএসইতে বৈদেশিক লেনদেন হয়েছে ৩১৭ কোটি ৪০ লাখ ৫৫ হাজার ২৭৫ টাকার। অর্থাৎ মাসের ব্যবধানে প্রতিষ্ঠানটির বৈদেশিক লেনদেন বেড়েছে ৪৩৫ কোটি ৫৫ লাখ ৭ হাজার ৮৯২ টাকা বা ১৩৭.২২ শতাংশ।

সেপ্টেম্বর মাসে বিদেশি বিনিয়োগকারীদের ৭৫২ কোটি ৯৫ লাখ ৬৩ হাজার ১৬৭ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেনের মধ্যে শেয়ার ক্রয় করেছেন ৫৮৯ কোটি ৬০ লাখ ৪০ হাজার ৪০২ টাকার এবং শেয়ার বেচেছেন ১৬৩ কোটি ৩৫ লাখ ২২ হাজার ৭৬৫ টাকার।

আগস্ট মাসে বিদেশি বিনিয়োগকারীরা ১৬৪ কোটি ৯৩ লাখ ৮ হাজার ৬৮৯ টাকার শেয়ার কিনেছেন আর বেচেছেন ১৫২ কোটি ৪৭ লাখ ৪৬ হাজার ৫৮৫ কোটি টাকার শেয়ার। অর্থাৎ আগস্টে মোট ৩১৭ কোটি ৪০ লাখ ৫৫ হাজার ২৭৫ টাকার শেয়ার লেনদেন করেছে।

এর আগে জুলাই মাসে বিদেশি বিনিয়োগকারীরা ২৫৩ কোটি ২৬ লাখ ১৫ হাজার ৯৪১ টাকার শেয়ার লেনদেন করেছেন। আর জুন মাসে লেনদেন করেছেন ৬০২ কোটি ৩৮ লাখ ৬০ হাজার ২২৭ টাকার শেয়ার।

লুজার তালিকায় সাইফ পাওয়ারটেক

SAIF powerস্টকমার্কেট ডেস্ক, ১ অক্টোবর :
শেয়ারবাজারে অভিষেক ঘটা সাইফ পাওয়ারটেক কোম্পানি লুজার তালিকায় নেমে গেছে।
বিশ্লেষণে দেখা যায়, সাইফ পাওয়ারটেকের বুধবার ৭ টাকা ৫০ পয়সা বা ১১ দশমিক ৬৩ শতাংশ দর কমেছে। এদিন শেয়ারটি সর্বশেষ লেনদেন হয় ৫৭ টাকায়।

কোম্পানির ১৮ লাখ ৬৯ হাজার শেয়ার ৪ হাজার ৪৭০ বার লেনদেন হয়। যার বাজার মূল্য ছিল ১১ কোটি ৪৩ লাখ টাকা।

এদিকে মাত্র ৩ দিন লেনদেন শুরু করা কোম্পানিটির সর্বোচ্চ দর ওঠে ৮০ টাকা পর্যন্ত। আর সর্বনিম্ন ৫৬ টাকা ২০ পয়সা।
প্রসঙ্গত, সাইফ পাওয়ারটেকের লেনদেন শুরু হয় গত সোমবার। আর রতনপুর স্টীল এর আগের সপ্তাহে লেনদেন শুরু হয়।

 

পদ্মা ইসলামী লাইফের নো ডিভিডেন্ড’ ঘোষণা

padma lifeস্টকমার্কেট ডেস্ক, ১ অক্টোবর :
শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত বীমা খাতের পদ্মা ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৩ সমাপ্ত অর্থবছরের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে বিনিয়োগকারীদের জন্য ‘নো ডিভিডেন্ড’ ঘোষণা করেছে। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, কোম্পানির ঘোষিত নো ডিভিডেন্ড বিনিয়োগকারীদের সম্মতিক্রমে অনুমোদনের জন্য বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) আগামী ২০ নভেম্বর, সকাল ১১টা ৩০ মিনিটে, যমুনা রিসোর্টে অনুষ্ঠিত হবে। এ সংক্রান্ত রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ২৯ অক্টোবর।

 

প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্সের মিউচ্যুয়াল ফান্ড

progoti lস্টকমার্কেট ডেস্ক, ১ অক্টোবর :
শেয়ারবাজারের তালিকাভুক্ত প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স একটি বে-মেয়াদি মিউচ্যুয়াল ফান্ড চালু করবে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

জানা যায়, এ বে-মেয়াদি ফান্ডটির নাম হবে ইউএফএস প্রগতি লাইফ ইউনিট ফান্ড।

তবে কোম্পানিটি ফান্ডের আকার সম্পর্কে কোন তথ্য প্রকাশ করে নি।

পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) অনুমোদন নিয়েই ফান্ডটি চালু করা হবে।

ফাইলবন্দী পুনঃঅর্থায়নের দ্বিতীয় কিস্তি

refinanceনিজস্ব প্রতিবেদক, ১ অক্টোবর :
অর্থ মন্ত্রণালয়ের ফাইলে বন্দী হয়ে আছে পুনঃঅর্থায়নের দ্বিতীয় কিস্তির অর্থ। সংস্থাটির অনুমোদন না পাওয়া পর্যন্ত তহবিলের দ্বিতীয় কিস্তির ৩০০ কোটি টাকা ছাড় করা হচ্ছে না। প্রথম কিস্তি বণ্টনের দুই মাস হতে চললেও মিলছে না দ্বিতীয় কিস্তির অর্থ। পুঁজিবাজার উন্নয়ন ও ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারীদের স্বার্থে পুনঃঅর্থায়ন তহবিলের দ্বিতীয় কিস্তির অর্থ ছাড়ের অনুমোদন নিয়ে কালক্ষেপণ না করার আহ্বান জানিয়েছেন বাজার-সংশ্লিষ্টরা।

জানা যায়, গত জুলাই মাসের প্রথম দিকে পুনঃঅর্থায়ন তহবিলের প্রথম কিস্তির ৩০০ কোটি টাকা বণ্টন শেষ হয়েছে। পুঁজিবাজারে ক্ষতিগ্রস্ত মোট ১০ হাজার ৫৬৮ জন বিনিয়োগকারীদের মাঝে এ অর্থ বণ্টন করা হয়েছে। ইতোমধ্যে একাধিক হাউজ থেকে প্রথম কিস্তির সুদ প্রদান করা হয়েছে। প্রথম কিস্তি বণ্টনের পরপরই দ্বিতীয় কিস্তির অর্থ ছাড় করার কথা থাকলেও বিগত দুই মাসেও দ্বিতীয় কিস্তির অর্থ ছাড় করা হয়নি।
এ ব্যাপারে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র এবং পুনঃঅর্থায়ন তহবিল বণ্টন তদারকি কমিটির আহ্বয়ক মো. সাইফুর রহমান জানান, দ্বিতীয় কিস্তির অর্থ ছাড়ের বিষয়ে আমরা বৈঠক করেছি। কিন্তু অর্থ মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন না পাওয়া গেলে অর্থ ছাড় করা হচ্ছে না।

জানা যায়, গত সোমবার পুনঃঅর্থায়ন তহবিল বণ্টন তদারকি কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হলেও কার্যত কোনো ফল মেলেনি। গত বছরের ১৯ আগস্ট পুঁজিবাজারে ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের সহায়তা তহবিল পরিচালনার জন্য নীতিমালা প্রণয়ন ও প্রয়োজনীয় তথ্যাবলি সরবরাহ এবং যাবতীয় দলিলাদি সম্পাদন করতে আইসিবিকে দায়িত্ব দেয়া হয়।

২২ আগস্ট অর্থ ছাড়ের বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক, বিএসইসি ও আইসিবির মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর হয়। ২৬ আগস্ট পুনঃঅর্থায়ন তহবিলের প্রথম কিস্তির ৩০০ কোটি টাকা ছাড় করে বাংলাদেশ ব্যাংক। এরপর পুনঃঅর্থায়ন তহবিল অর্থ ব্যবহার তদারক করতে কমিটি গঠন হয়। পরবর্তীতে পুনঃঅর্থায়নের প্রথম কিস্তির টাকা প্রদান করার জন্য সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের আবেদনের সময় ৩০ নভেম্বর নির্ধারণ করে আইসিবি।

একের পর নতুন শর্ত জুড়ে দিয়ে আবেদনের সময় বাড়ানোর অজুহাতে কালক্ষেপণ করা হয়। এক্ষেত্রে ৫ দফায় সময় বাড়ানো হয়। অতঃপর দীর্ঘ ভোগান্তির পর প্রথম কিস্তির অর্থ ছাড় করে আইসিবি। তাই দ্বিতীয় কিস্তির ক্ষেত্রেও এমন কালক্ষেপণের আশঙ্কা করছেন বাজার-সংশ্লিষ্টরা।
এ ব্যাপারে বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংক অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ এ হাফিজ জানান, ২০১১ সালের ২৩ নভেম্বর প্রণোদনা প্যাকেজের মাধ্যমে ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারীদের পুনঃঅর্থায়ন তহবিলের ব্যবস্থা করার পদক্ষেপ নেয়া হয়। পদক্ষেপ নেয়ার দীর্ঘ আড়াই বছর পর প্রথম কিস্তির অর্থ ছাড় করা হয়। যদিও অর্থ মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের পর দ্বিতীয় কিস্তির অর্থ ছাড় করা হবে বলে বলা হচ্ছে। কিন্তু এ অর্থ বিনিয়োগকারী পর্যন্ত পৌঁছাতে অনেক সময় লেগে যাবে। তবে পুঁজিবাজার উন্নয়ন ও ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারীদের স্বার্থে নীতিনির্ধারণী মহল চাইলে স্বল্প সময়ের মধ্যেই কাজটি করতে পারেন বলে মনে করেন তিনি।

  1. তিতাস গ্যাস
  2. গ্রামীণফোন
  3. স্কয়ার ফার্মা
  4. ডেল্টা লাইফ ইনস্যুরেন্স
  5. এমজেএল বিডি
  6. যমুনা অয়েল
  7. অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ
  8. বেক্সিমকো ফার্মা
  9. বেক্সিমকো লিমিটেড
  10. পদ্মা অয়েল

বেড়েছে লেনদেন, সূচক ও শেয়ারের দর

high indexনিজস্ব প্রতিবেদক, অক্টোবর ০১, ২০১৪
চাঙাভাবের মধ্যে বুধবার দেশের শেয়ারবাজারের লেনদেন শেষ হয়েছে। দিনের লেনদেন শেষে দুই স্টক এক্সচেঞ্জে অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ারের দাম বেড়েছে। ফলে সূচক বেড়েছে। পাশাপাশি প্রধান বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন বাড়লেও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) কমেছে।
দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইর ডিএসইএক্স সূচক ৭৮ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৫,১৫৩ পয়েন্টে। এর আগে সকালে সূচকের ইতিবাচক প্রবণতায় ডিএসইতে লেনদেন শুরু হয়। এক পর্যায়ে সূচক ১০৫ পয়েন্ট বেড়েছে। সূচকের ঊর্ধ্বমুখী এই প্রবণতা লেনদেনের শেষ পর্যন্ত অব্যাহত ছিল।

ডিএসইতে ৩০২টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ড লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে ২২৯টিরই দাম বেড়েছে, কমেছে ৫২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২১টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম।

ডিএসইতে ৯৭৭ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যা গতকালের চেয়ে ৯৮ কোটি টাকা বেশি। গতকাল এ বাজারে ৮৭৯ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

ডিএসইর পাশাপাশি চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) সূচক বেড়েছে। লেনদেন শেষে সিএসইর সার্বিক মূল্যসূচক ২৮৫ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৫ হাজার ৯০৮ পয়েন্টে।

সিএসইতে ২২৯টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ড লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে ১৭১টির দাম বেড়েছে। কমেছে ৩৯টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ১৯টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম।
সিএসইতে আজ ৫০ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যা গতকালের চেয়ে তিন কোটি টাকা কম। গতকাল সিএসইতে ৫৩ কোটি টাকার লেনদেন হয়।

ডিএসই ও কলকাতা স্টক এক্সচেঞ্জের চুক্তি

dse1নিজস্ব প্রতিবেদক, অক্টোবর ০১ : ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও কলকাতা স্টক এক্সচেঞ্জ নিজেদের মধ্যে জ্ঞান ও দক্ষতা বিনিময় চুক্তি করেছে। কলকাতা স্টক এক্সচেঞ্জ কার্যালয়ে সম্প্রতি চুক্তিটি স্বাক্ষরিত হয়।

ডিএসইর পক্ষে সংস্থাটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) স্বপন কুমার বালা ও কলকাতা স্টক এক্সচেঞ্জের এমডি মাধব রেড্ডি চুক্তিতে সই করেন। এই চুক্তির আওতায় দুই সংস্থা ব্যবসাবিষয়ক অভিজ্ঞতা বিনিময়ের পাশাপাশি জ্ঞান ও তথ্য বিনিময় করবে।

এর ফলে উভয় স্টক এক্সচেঞ্জই লাভবান হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ভবিষ্যতে এ চুক্তির আওতা বৃদ্ধিরও সুযোগ রাখা হয়েছে।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন কলকাতা স্টক এক্সচেঞ্জের সাবেক পরিচালক সুরেশ কুমার কৌশিক, মহাব্যবস্থাপক এম এ ভি রাজু ও ডিএসইর উপমহাব্যবস্থাপক আসাদুর রহমান প্রমুখ।