সূচক চালুর মাধ্যমে মধ্যপ্রাচ্যের বিনিয়োগ আসবে : সিএসই

cseনিজস্ব প্রতিবেদক :
নতুন দুই সূচক চালুর মাধ্যমে সিএসইতে মধ্যপ্রাচ্যের বিনিয়োগ আসবে বলে মনে করছে চট্রগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই)। রোববার সিএসইতে নতুন দুটি সূচক সিএসআই বা শরীয়াহ সূচক ও সিএসই৫০ বা বেঞ্চমার্ক সূচক চালু পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে সিএসই পরিচালক মো. মহিউদ্দিন এফসিএমএ এ কথা বলেন।

এসময় তিনি বলেন, মধ্যপ্রাচ্যের অনেক মানুষের বাংলাদেশের শেয়ারবাজারে বিনিয়োগের প্রতি আগ্রহ রয়েছে।এর আগে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) শরীয়াহ সূচক চালু হয়। এর পরে আমরা দীর্ঘদিন পরীক্ষা-নিরীক্ষার পরে এই সূচক চালু করতে পেরেছি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সিএসই পরিচালক অধ্যাপক মমতাজ উদ্দীন আহমেদ, ড. মাঈনুল ইসলাম মাহমুদ ও শামসুল ইসলাম।

সিএসইর চেয়ারম্যান ড. আব্দুল মজিদ বলেন, নতুন দুই সূচক চালুর মাধ্যমে বিনিয়োগকারীরা সুচিন্তিতভাবে বিনিয়োগ করতে পারবে। শরীয়াহ সূচকে ইসলামী শরীয়াহ ভিত্তিক কোম্পানিগুলো থাকবে। আর বেঞ্চমার্ক সূচকে থাকবে নির্বাচিত ৫০টি কোম্পানি। শরীয়াহ সূচকের ভিত্তি পয়েন্ট ধরা হয়েছে ১ হাজার ৯২ পয়েন্ট ৫৯। সিএসই শরীয়াহ সূচকে ১৭টি খাতের ৬৩টি কোম্পানি অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

কোম্পানিগুলোর পরিশোধিত মূলধন, লভ্যাংশের হার, গড় লেনদেনের অবস্থা ও বার্ষিক প্রতিবেদনের ভিত্তিতে মূল্যায়ন করার হবে।

তিনি বলেন, বেঞ্চমার্ক সূচকের ভিত্তি পয়েন্ট ধরা হয়েছে ১ হাজার ১৭৩ পয়েন্ট ৮৫। তারল্য অবস্থা ও আর্থিক সক্ষমতা এবং বাজার মূলধনের ভিত্তিতে শীর্ষ ৫০টি কোম্পানিকে সিএসই৫০ সূচকের অন্তর্ভুক্ত করা হবে। পুঁজিবাজারে অর্থনীতির বড় ১৩টি খাত থেকে এই ৫০টি কোম্পানি নেয়া হবে।

সূচক আপডেটেড রাখতে সিএসই প্রতি ৬ মাস অন্তর কোম্পানিগুলোর কার্যক্রম মূল্যায়ন করবে।

সিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ সাজিদ হোসেন বলেন, সিএসই৩০ সূচকে মার্কেটের মুভমেন্ট বোঝা যায় না। এই জন্য সিএসই৫০ সূচক চালু করা হয়েছে। এই সূচকের মাধ্যমে বাজার সমৃদ্ধি হবে। নতুন সূচক চালুর মাধ্যমে বাজারে নতুন বিনিয়োগকারী আসবে বলেও মনে করেন তিনি।

স্টকমার্কেটবিডে.কম/এআর/সি

দর বাড়ার কারণ নেই ইউনিয়ন ক্যাপিটালের

unionস্টকমার্কেট ডেস্ক :
ব্যাংক বর্হিভূত আর্থিক খাতের ইউনিয়ন ক্যাপিটালের শেয়ার দর বাড়ার কোনো কারণ নেই। শেয়ারটির অস্বাভাবিক দর বাড়ার পেছনে কারণ জানতে চাইলে কোম্পানি কতৃপক্ষ এমনটাই জানায় ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জকে (ডিএসই)। রোববার ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা যায়, শেয়ারটির অস্বাভাবিক দর বাড়ার পেছনে কারণ জানতে চেয়ে ২ অক্টোবর ডিএসই নোটিশ পাঠায়। এর জবাবে কোম্পানিটি জানায়, কোনো রকম মূল্য সংবেদনশীল তথ্য ছাড়াই শেয়ারটির দর বাড়ছে।

বিশ্লেষণে দেখা যায়, গত ৪ কার্যদিবস ধরে শেয়ারটির দর বেড়েছে। এ সময়ে শেয়ারটির দর বেড়েছে ২৩ টাকা থেকে ২৪ টাকা পর্যন্ত। এই সময়ে শেয়ারটির দর বেড়েছে ১ টাকা। আর শেয়ারটির এই দর বাড়াকে অস্বাভাবিক বলে মনে করছেন ডিএসই কতৃপক্ষ।

এদিকে গত ৫২ সপ্তাহে শেয়ারটির দর বেড়েছে ১৭ টাকা ৯০ পয়সা থেকে ৩৮ টাকা পর্যন্ত।
স্টকমার্কেটবিডি.কম/এআর/সি

ছুটি শেষেও উর্ধ্বমূখী শেয়ারবাজার

h indexনিজস্ব প্রতিবেদক :

পবিত্র ঈদুল আজহা, দুর্গাপূজা ও সাপ্তাহিক ছুটি সব টানা নয় দিনের ছুটি শেষে আজ রোববার দেশের শেয়ারবাজারে লেনদেন শুরু হয়েছে। ছুটি শেষে প্রথম কর্মদিবসে সূচকের উর্ধ্বমুখীভাব লক্ষ করা গেছে শেয়ারবাজারে। দিনের লেনদেন শেষে দুই স্টক এক্সচেঞ্জে অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ারের দাম বেড়েছে। এতে সূচক বেড়েছে। তবে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) আগের দিনের (২ অক্টোবর) চেয়ে লেনদেন কমলেও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সামান্য বেড়েছে।

দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইর ডিএসইএক্স সূচক ৯৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৫,৩৩৪ পয়েন্টে। এর আগে আজ সকালে সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় ডিএসইতে লেনদেন শুরু হয়, যা শেষ পর্যন্ত অব্যাহত ছিল।

আজ ডিএসইতে ৩০৬টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ড লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে ২৪৬টির দাম বেড়েছে, কমেছে ৪৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১২টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম।

ডিএসইতে আজ ৯১৫ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যা আগের দিনের চেয়ে ২২ কোটি টাকা কম। ২ অক্টোবর এ বাজারে ৯৩৭ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

ডিএসইর পাশাপাশি সিএসইতেও সূচক বেড়েছে। লেনদেন শেষে সিএসইর সার্বিক মূল্যসূচক ৩২৯ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৬ হাজার ৪৫৫ পয়েন্টে।

সিএসইতে আজ ২৩৫টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ড লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে ১৭৭টির দাম বেড়েছে। কমেছে ৪৮টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ১০টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম।

সিএসইতে আজ ৬২ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যা আগের দিনের চেয়ে দুই কোটি টাকা বেশি। আগের দিন সিএসইতে ৬০ কোটি টাকার লেনদেন হয়।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এআর/সি

  1. সামিট পাওয়ার
  2. তিতাস গ্যাস
  3. গ্রামীণফোন
  4. স্কয়ার ফার্মা
  5. ডেল্টা লাইফ ইনস্যুরেন্স
  6. কেপিসিএল
  7. এমজেএল বিডি
  8. সিটি ব্যাংক
  9. এনবিএল
  10. পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস।

  1. ফ্যামেলি টেক্সটাইল
  2. কেপিসিএল
  3. সিটি ব্যাংক
  4. সামিট পাওয়ার
  5. জেনারেশন নেক্সট
  6. ডেল্টা লাইফ
  7. তিতাস গ্যাস
  8. ডেল্টা স্পিনিং
  9. ন্যাশনাল ব্যাংক
  10. স্কয়ার ফার্মা।

আবারো একই প্রস্তাব দিয়েছে মোজাফফর স্পিনিং

mjনিজস্ব প্রতিবেদক :

আইপিওর মাধ্যমে শেয়ারবাজার থেকে অর্থ সংগ্রহ করার এক বছরের মধ্যে আবারো একই প্রস্তাব দিয়েছে মোজাফফর হোসেন স্পিনিং মিলস। সংগৃহীত অর্থ দিয়ে ব্যাংকঋণ পরিশোধের পাশাপাশি ব্যবসা সম্প্রসারণ করতে চায় কোম্পানিটি।

নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) অনুমোদন সাপেক্ষে মাত্র বছরখানেক আগেই প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে শেয়ারবাজার থেকে অর্থ সংগ্রহ করে তা ব্যাংকঋণ পরিশোধে ব্যয় করে কোম্পানিটি। এবার রাইট শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে অর্থ সংগ্রহের প্রস্তাব দিয়েছে মোজাফফর হোসেন স্পিনিং মিলস।

সম্প্রতি এ কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদের সভা শেষে রাইট শেয়ার ছাড়ার ঘোষণা দেয়া হয়েছে। অবশ্য শেয়ারহোল্ডার ও নিয়ন্ত্রক সংস্থার অনুমোদন সাপেক্ষে তা কার্যকর করার কথা বলা হয়েছে।

আইনে কোনো বাধা না থাকলেও তালিকাভুক্তির স্বল্প সময়ে নতুন করে অর্থ সংগ্রহের প্রস্তাবের যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিশেষজ্ঞরা। এতে কোম্পানি কর্তৃপক্ষের ভবিষ্যত্ কর্মপরিকল্পনায় দুর্বলতার বিষয়টিও ফুটে উঠছে বলে মনে করেন তারা।

গত বছরের নভেম্বরে কোম্পানিটি শেয়ারবাজার থেকে অভিহিত মূল্যে শেয়ার ছেড়ে ২৭ কোটি ৫০ লাখ টাকা সংগ্রহ করে। সংগৃহীত অর্থ থেকে ২৬ কোটি ১৪ লাখ ৯৫ হাজার টাকা ব্যাংকঋণ পরিশোধের কথা বলা হয় আইপিও প্রসপেক্টাসে। সে সময় প্রতিষ্ঠানটির দীর্ঘমেয়াদি ঋণের পরিমাণ ছিল ২৬ কোটি ১৭ লাখ ১৯ হাজার ৫৫২ টাকা এবং স্বল্পমেয়াদি ঋণের পরিমাণ ছিল ২৩ কোটি ৫৭ লাখ টাকা।

বিষয়টি অনেকটাই অস্বাভাবিক বলে ব্যাখ্যা করে ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক মোহাম্মদ মুসা বলেন, এত স্বল্প সময়ের ব্যবধানে কোম্পানির দুইবার অর্থ সংগ্রহের সিদ্ধান্ত যৌক্তিক হতে পারে না। এক বছরের মধ্যে যদি ব্যবসা সম্প্রসারণ অথবা পুনরায় ব্যাংকঋণ পরিশোধের প্রয়োজন হয়ে থাকলে, সেটি কোম্পানি কর্তৃপক্ষের আইপিও ইস্যুর সময়ে বিবেচনা করা উচিত ছিল। এসব প্রস্তাব অনুমোদনের ক্ষেত্রে নিয়ন্ত্রক সংস্থার সতর্কতার সঙ্গে বিবেচনা করা উচিত।

আইপিওর টাকায় দীর্ঘমেয়াদি ঋণ পরিশোধ করা হলেও এবার রাইট শেয়ারের মাধ্যমে সংগৃহীত অর্থ দিয়ে ব্যবসা সম্প্রসারণের প্রস্তাব দিয়েছে কোম্পানিটি। ব্যবসা সম্প্রসারণের অংশ হিসেবে রোটর প্রজেক্টের অধীনে একটি রিং প্রজেক্ট স্থাপন করার প্রস্তাব দিয়েছে। চলতি বছরের ১৫ সেপ্টেম্বর কোম্পানিটি অভিহিত মূল্যে দুটি সাধারণ শেয়ারের বিপরীতে তিনটি রাইট শেয়ার ইস্যুর প্রস্তাব দিয়েছে এ কোম্পানি। প্রতিষ্ঠানটি শতভাগ রফতানিমুখী সুতা উত্পাদন করে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/চঞ্চল

এমটিবি ইউনিট ফান্ডের সম্পদমূল্য প্রকাশ

mtbস্টকমার্কেট ডেস্ক :
সম্পদ ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠান অ্যালায়েন্স ক্যাপিটাল অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনায় থাকা এমটিবি ইউনিট ফান্ডের সম্পদমূল্য প্রকাশ করা হয়েছে।

১১ অক্টোবর অনুযায়ী প্রতি ইউনিট ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের এ ফান্ডের বাজারমূল্যে নেট সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ৩১ কোটি ৯২ লাখ ৫২ হাজার ৭৮৭ টাকা ৫২ পয়সা, যা ক্রয়মূল্যে ৩২ কোটি ৫০ লাখ ৮৮ হাজার ৬৫৪ টাকা ১ পয়সা। বাজারমূল্যে ইউনিটপ্রতি নেট সম্পদমূল্য ১০ টাকা ৪৯ পয়সা এবং এর পরিপ্রেক্ষিতে প্রতি ইউনিটের পুনঃক্রয়মূল্য ও বিক্রয়মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে যথাক্রমে ১০ টাকা ১৫ পয়সা ও ১০ টাকা ৪৫ পয়সা। ১২ অক্টোবর থেকে পরবর্তী ঘোষণার আগ পর্যন্ত তা কার্যকর থাকবে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এআর

পপুলার লাইফের বোর্ডসভা ১৬ অক্টোবর

populer lifস্টকমার্কেট ডেস্ক :
শেয়ারবাজারের তালিকাভুক্ত পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্সের পরিচালনা পর্ষদের বৈঠকের দিন ঘোষণা করা হয়েছে। আগামী ১৬ অক্টোবর, বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় অনুষ্ঠিত হবে এই বৈঠক। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ সূত্রে এই তথ্য জানা যায়।

বৈঠকে কোম্পানির ৩১ ডিসেম্বর ২০১৩ সমাপ্ত বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করা হবে। একই সাথে বৈঠকে আসতে পারে কোম্পানির শেয়ারহোল্ডারদের জন্য লভ্যাংশ।

২০১২ সমাপ্ত বছরে কোম্পানি শেয়ারহোল্ডারদেরকে ৩৭ শতাংশ লভ্যাংশ দিয়েছিল। এর মধ্যে ৩২ শতাংশ নগদ আর ৫ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ।

কোম্পানিটি ২০০৫ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। ‘এ’ ক্যাটাগরিতে লেনদেন করছে পুঁজিবাজারে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এআর/সি