অগ্নি সিস্টেমসের লভ্যাংশ বিওতে

Agni_Logoস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত আইটি খাতের কোম্পানি অগ্নি সিস্টেমস লিমিটেড সমাপ্ত অর্থবছরের লভ্যাংশ বিনিয়োগকারীদের (বেনিফিশিয়ারি ওনার্স) বিও হিসাবে পাঠিয়েছে। সিডিবিএল সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, অগ্নি সিস্টেমস ৩০ জুন সমাপ্ত অর্থবছরে বিনিয়োগকারীদের জন্য ১০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছে।

যেসব বিনিয়োগকারীদের ব্যাংক একাউন্টে অনলাইন সুবিধা চালু আছে, তাদের লভ্যাংশ বাংলাদেশ ইলেক্ট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার নেটওয়ার্কের (বিইএফটিএন) মাধ্যমে পাঠানো হয়েছে। আর যাদের অনলাইন সুবিধা চালু নেই, তাদের পোস্ট অফিস ও কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে পাঠানো হয়েছে।

গত ১৬ নভেম্বর অগ্নি সিস্টেমসের রেকর্ড ডেট ছিল। এসময় যাদের বিওতে কোম্পানির শেয়ার ছিল তারা এই বোনাস লাভ করবে।

গত ২৩ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএমে) এই লভ্যাংশ অনুমোদন করে অগ্নি সিস্টেমসের পরিচালনা পর্ষদ।

স্টকমার্কেটবিডিকিম/এইচ/এলকে

লেনদেনের শীর্ষে ন্যাশনাল ফিড

natinalস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে আজই লেনদেনে আসা ন্যাশনাল ফিড মিল লিমিটেডের শেয়ার টাকার অঙ্কেও লেনদেনের শীর্ষে অবস্থান করেছে। এদিন কোম্পানিটির ৩৬ কোটি ১৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।।

ডিএসইর বাজার পর্যালোচনা দেখা যায়, সোমবার কোম্পানির প্রথম লেনদেন শুরু হয় ৪৪.৯০ টাকায়। দিনশেষে শেয়ারটির দর ৩২.৩০ টাকা বেড়ে লেনদেন হয় ৪২.৩০ টাকায়। প্রথমদিন কোম্পানির ৮১ লাখ ২৭ হাজার ১৮৭টি শেয়ার লেনদেন হয়। এসব শেয়ার মোট ১৯ হাজার ৫৯৪ বার লেনদেন হয়।

ন্যাশনাল ফিড বাজারে ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে শেয়ার ইস্যু করেছিল। এই কোম্পানির অনুমোদিত মূলধন রয়েছে ২০০ কোটি টাকা এবং পরিশোধিত মূলধন ৫৮ কোটি টাকা। কোম্পানিটির মোট শেয়ার রয়েছে ৫ কোটি ৮০ লাখ।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম/এলকে

বিএসইসির আইপিও অনুমোদনে স্থবিরতা

bsecনিজস্ব প্রতিবেদক :

গত এক মাস ধরে প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) অনুমোদন বন্ধ রেখেছে শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। কমিশনের কাছে এ মুহূর্তে অন্তত ছয়টি কোম্পানির আইপিও অনুমোদন সংক্রান্ত চূড়ান্ত নথি পেশ করা হলেও একটি স্থবির অবস্থা তৈরি হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, গত ১৭ ডিসেম্বর অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের মূলধন মার্কেট অধিশাখা থেকে জারি করা এক চিঠির পরই এক ধরনের অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়েছে।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের ওই চিঠিতে আইপিও অনুমোদনে কমিশনকে আরও সতর্ক ও দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখার কথা বলা হয়েছে। এতে বলা হয়, সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন অধ্যাদেশ, ১৯৬৯-এর ২এ(৪) অনুুযায়ী, কমিশন মূল্য (আইপিও ইস্যু মূল্য) নির্ধারণ করবে না। চিঠিতে অন্য এক আইনের কয়েকটি ধারা উল্লেখ করে বলা হয়, কমিশনের মূল উদ্দেশ্য, দায়িত্ব ও কার্যাবলি হচ্ছে সিকিউরিটিতে বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ সংরক্ষণ, সিকিউরিটির যথার্থ ইস্যু নিশ্চিতকরণ ও সিকিউরিটি বা সিকিউরিটি বাজার সম্পর্কিত প্রতারণামূলক ও অসাধু ব্যবসা বন্ধকরণ।

একই সঙ্গে ওই চিঠিতে আরও বলা হয়, আইপিওর স্থির মূল্য পদ্ধতিতে (ফিক্সড প্রাইস মেথড) প্রিমিয়ামে শেয়ার ইস্যুর ক্ষেত্রে একাধিক মূল্য নির্ধারণ পদ্ধতির উল্লেখ রয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কমিশনের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেন, হঠাৎ এমন চিঠিতে বিব্রত কমিশন। চিঠিটি কমিশনকে পাঠানো হয়নি; বরং ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে। এতে কমিশনের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়েছে বা প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে।

বিএসইসিকে অর্থ মন্ত্রণালয়ের চিঠির প্রসঙ্গে মির্জ্জা আজিজ গনমাধ্যমেক বলেন, এসইসি অধ্যাদেশ ১৯৬৯ অনুযায়ী অর্থ মন্ত্রণালয় চাইলে কমিশনকে কোনো নির্দেশনা দিতে পারে। তিনি চেয়ারম্যান থাকাকালে এ ধারাটি তুলে দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন, কিন্তু পারেননি। মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম বলেন, গত ১৭ ডিসেম্বরের চিঠিতে কোনো নির্দেশনা ছিল না।

গত ৯ ডিসেম্বর সর্বশেষ বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলস কোম্পানিকে (বিএসআরএম) ও ১১ নভেম্বর বুক বিল্ডিং প্রক্রিয়ায় মূল্য নির্ধারণের পর ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশনকে আইপিও অনুমতি দেওয়া হয়। অর্থাৎ গত নভেম্বর থেকে গত আড়াই মাসে মাত্র দুটি আইপিও অনুমোদন হয়েছে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ/এলকে

ইফাদ অটোসকে তালিকাভুক্তির অনুমোদন

ifadনিজস্ব প্রতিবেদক :

সদ্য আইপিও (প্রাথমিক গণপ্রস্তাব) প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা কোম্পানি ইফাদ আটোস লিমিটেডকে তালিকাভুক্তির অনুমোদন দিয়েছে ডিএসই। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

গতকাল রবিবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) পরিচালনা পর্ষদের বৈঠকে এই কোম্পানিকে তালিকাভুক্তির বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে।

গত বছরের ২৪ ডিসেম্বর ইফাদ অটোস আইপিও লটারির ড্র সম্পন্ন করে। এই কোম্পানির আইপিওতে ৬৩ কোটি টাকার বিপরীতে এক হাজার ২৩ কোটি ৩৯ লাখ ৫০ হাজার টাকার আবেদন জমা পড়েছিল। কোম্পানিটি বাজার থেকে যে পরিমাণ টাকা তুলতে চেয়েছিল তার ১৬ দশমিক ৫ গুণ বেশি আবেদন।

এর আগে ২৩ নভেম্বর থেকে ৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত ইফাদ অটোর আইপিও আবেদন চলে।

বিএসইসির ৫২৭তম কমিশন সভায় এই কোম্পানির আইপিও অনুমোদন দেওয়া হয়।

কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে ছিল ব্যানকো ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড এবং আলফা ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ/এলকে

  1. ন্যাশনাল ফিড মিল
  2. গ্রামীণফোন
  3. বিবিএস
  4. আইডিএলসি
  5. অগ্নি সিস্টেমস
  6. লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট
  7. ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড
  8. সাইফ পাওয়ারটেক
  9. কেপিসিএল
  10. স্কয়ার ফার্মা।

শেয়ারবাজারে সূচকের বড় পতন

dse cseনিজস্ব প্রতিবেদক :
শেয়ারবাজারে ধারাবাহিকভাবে সূচক কমছেই। সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবস সোমবার সূচক কমলেও লেনদেন বেড়েছে। এদিন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের বড় ধরনের পতন হয়েছে।

ডিএসইর তথ্য অনুযায়ী, আজ সোমবার ডিএসইএক্স বা প্রধান সূচক ৫০ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৪ হাজার ৮৬৭ পয়েন্টে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ৯ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ১৫৩ পয়েন্টে।

ডিএসইতে ২৮৫ কোটি ১৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আগের দিন এ বাজারে লেনদেন হয়েছিল ২৫১ কোটি ৪৪ লাখ টাকার শেয়ার।

এদিন ডিএসইতে মোট লেনদেনে অংশ নেয় ৩০৪টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৪৪টির, কমেছে ২৩২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৮টির দর।

এসময় লেনদনে এগিয়ে- ন্যাশনাল ফিড মিল, ওয়েস্টার্ণ মেরিন, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, অগ্নি সিস্টেমস, সাইফ পাওয়ার, আইডিএলসি ফিন্যান্স, গ্রামীন ফোন, এনসিসি মিউচুয়াল ফান্ড, তিতাস গ্যাস ও এমজেএলবিডি।

অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) সূচকের পতনে লেনদেন শেষ হয়েছে। সিএসই সার্বিক সূচক ১৫৮ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ৯২১ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৪২টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ২৮টির, কমেছে ১৮৬টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৪টির।

এদিন সিএসইতে ২৮ কোটি ৪৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ/এলকে

ফার্ষ্ট সিকিউরিটি ব্যাংকের রাইট শেয়ার বিওতে

firstস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংকিং খাতের প্রতিষ্ঠান ফার্ষ্ট সিকিউরিটি ব্যাংক লিমিটেডের সমাপ্ত অর্থবছরে অনুমোদন পাওয়া রাইট শেয়ার বিনিয়োগকারীদের (বেনিফিশিয়ারি ওনার্স) বিও হিসাবে পাঠিয়েছে। সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

সূত্র জানায়, ফার্ষ্ট সিকিউরিটি ব্যাংকের বিনিয়োগকারীদের জন্য প্রতি দুই শেয়ারের বিপরীতে ১টি শেয়ার রাইট প্রদান করেছে।

যেসব বিনিয়োগকারীদের ব্যাংক একাউন্টে অনলাইন সুবিধা চালু আছে, তাদের রাইট শেয়ার বাংলাদেশ ইলেক্ট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার নেটওয়ার্কের (বিইএফটিএন) মাধ্যমে পাঠানো হয়েছে। আর যাদের অনলাইন সুবিধা চালু নেই, তাদের পোস্ট অফিস ও কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে পাঠানো হয়েছে।

রাইট শেয়ারের জন্য গত ২০ নভেম্বর ফার্ষ্ট সিকিউরিটি ব্যাংকের রেকর্ড ডেট ছিল। এসময় যাদের বিওতে কোম্পানির শেয়ার ছিল তারা এই রাইট শেয়ার লাভ করবে।

গত ২২ জুন অনুষ্ঠিত ইজিএমে এই রাইট অনুমোদন করে ফার্ষ্ট সিকিউরিটি ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদ।

স্টকমার্কেটবিডিকিম/এইচ/এএআর

  1. ন্যাশনাল ফিড মিল
  2. বাংলাদেশ বিল্ডিং সিস্টেমস
  3. অগ্নি সিস্টেমস
  4. লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট
  5. আইডিএলসি ফিন্যান্স
  6. ওয়েস্টার্ণ মেরিন
  7. সিভিও পেট্রো
  8. এবি ব্যাংক
  9. কেপিসিএল
  10. অলটেক্স টেক্সটাইল।

শেয়ারবাজারে লেনদেনের শুরুতেই নিম্নমূখী সূচক

indexস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবস সোমবার লেনদেনের শুরুতেই সূচকের নিম্নমুখী প্রবণতায় লেনদেন চলছে। দিনের প্রথম ঘণ্টায় মূল্য সূচক নিম্নমুখী ছিল।

সকাল সাড়ে ১১টায় ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৬ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৪৯১১ পয়েন্টে।

এ সময়ে লেনদেন হওয়া ২৫২টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৬৫টির, কমেছে ১৪৯টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৮টি কোম্পানির শেয়ার দর। লেনদেন হয়েছে ৬২ কোটি ৬৯ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট।

এসময় লেনদনে এগিয়ে- ন্যাশনাল ফিড মিল, বাংলাদেশ বিল্ডিং সিস্টেমস, অগ্নি সিস্টেমস, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, আইডিএলসি ফিন্যান্স, ওয়েস্টার্ণ মেরিন, সিভিও পেট্রো, এবি ব্যাংক, কেপিসিএল ও অলটেক্স টেক্সটাইল।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সাধারণ মূল্য সূচক সকাল সাড়ে ১১টায় ১৪ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৯১২২ পয়েন্টে। এ সময়ে লেনদেন হওয়া ১৪১টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৪৬টির, কমেছে ৭৪টির এবং দর অপরিবর্তিত রয়েছে ২১টি কোম্পানির।

এসময় সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৭ কোটি ২১ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের দিন এ সময়ে লেনদেন হয়েছিল ২ কোটি ৫০ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট।

স্টকমার্কেটবিডিকিম/এইচ/এএআর

ন্যাশনাল ফিড মিলের লেনদেন শুরু

national_groupস্টকমার্কেট ডেস্ক :

সদ‌্য অনুমোদন পা্ওয়া ন্যাশনাল ফিড মিল লিমিটেডের লেনদেন শুরু হবে আজ। কোম্পানিটি শেয়ারবাজারে ‘এন’ ক্যাটাগরিতে লেনদেন শুরু করবে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, ডিএসইতে ন্যাশনাল ফিডের ট্রেডিং কোড হবে ‘NFML’। আর কোম্পানি কোড হবে ৯৯৬৪০।

এর আগে গত ১৯ জানুয়ারি সোমবার লেনদেন শুরু করার অনুমোদন পায়। আর গত ৬ জানুয়ারি এই কোম্পানিকে ডিএসইর পরিচালনা পর্ষদ তালিকাভুক্তির সিদ্ধান্ত নেয়।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম/এএআর