সিএসইতে কমেছে সবগুলো খাতের সূচক

cseস্টকমার্কেট ডেস্ক :

চট্রগ্রাম স্টিক একচেঞ্জ (সিএসই) তে সোমবার সপ্তাহের দ্বিতীয় দিনের লেনদেন শেষে খাত ভিত্তিক বিবেচনায় সবগুলো খাতের সূচক ছিল নিম্নগামী। একসাথে সবগুলো খাতের সূচক নিম্নমূখী হওয়ায় সিএসই সার্বিক সূচকও ছিল তলানিতে। সবচেয়ে বেশি সূচক কমেছে “জীবন বিমা” খাতের।

অথচ গতকাল এই “জীবন বিমা” খাতে সূচক উঠেছিল সবচেয়ে বেশি। দিনশেষে “জীবন বীমা” খাতের সূচক ১৮৫৪ পয়েন্ট কমে দাড়িয়েছে ১ লক্ষ ১ হাজার ৭৭ পয়েন্ট । রবিবার এ খাতে সূচক ছিল ১ লক্ষ ২ হাজার ৯৩১ পয়েন্ট।

তবে শতকরা হিসাবে সবচেয়ে বেশি কমেছে “লেদার এন্ড ফুটওয়ার” খাতের সূচক। আজ এ খাতে সূচক কমেছে প্রায় ৪.৭৮ শতাংশ। এছাড়া ফার্মা এন্ড ক্যামিকাল, লিজিং এন্ড ফাইনান্স, ফুড, সিমেন্ট, এনার্জী এবং ব্যাংকিং, সাধারন বিমা সহ ১৮টি খাতের সবগুলোতেই সুচক ছিল নিম্নগামী।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ/এএআর

শীর্ষ অবস্থান ধরে রেখেছে সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইল

cnaস্টকমার্কেট ডেস্ক :

সপ্তাহের দ্বিতীয় দিনে আজ আবারো বস্ত্র খাতের কোম্পানি সি অ্যান্ড এ টেক্সটাইল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনের শীর্ষে অবস্থান করছে। এ নিয়ে টানা ৩ দিন শীর্ষ অবস্থান ধরে রেখেছে সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইল। তবে সোমবার কোম্পানিটির মোট লেনদেন বাড়লেও কমেছে শেয়ারের দাম।

ডিএসইর তথ্য অনুযায়ী, কোম্পানিটি আজ ২৬ টাকা ১০ পয়সায় লেনদেন শুরু করে। এদিন শেয়ারটি সর্বোচ্চ লেনদেন হয় ২৭ টাকা ৫০ পয়সা দরে। তবে দিনশেষে কোম্পানিটির শেয়ার দর ১ টাকা ৫০ পয়সা কমে দাঁড়িয়েছে ২৪ টাকা ৬০ পয়সায়। এদিন কোম্পানির ৬৫ লাখ ৮৫ হাজার ২৩৯ টি শেয়ার ৫ হাজার ৮৭৬ বার লেনদেন হয়। যার বাজার মূল্য ছিল ১৭ কোটি ১৩ লাখ টাকা।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ/এএআর

পদ্মা অয়েলের এজিএম ভেন্যু পরিবর্তন

padma1স্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত জ্বালানি খাতের কোম্পানি পদ্মা অয়েল কোম্পানির বার্ষিক সাধারণ সভার (এজিএম) ভেন্যু পরিবর্তন করেছে কোম্পানির পরিচালনা বোর্ড। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

পদ্মা অয়েলের এজিএম ১৪ ফেব্রুয়ারি সকাল ১১টায় অনুষ্ঠিত হবে । ওইদিন পতেঙ্গায় বোট ক্লাবে সিসিএল কনভেনশন সেন্টারে এই এজিএম অনুষ্ঠিত হবে । ৪৫তম এই এজিএমে কোম্পানি সমাপ্ত অর্থবছরে ১০০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ অনুমোদিত হবে।

সূত্র জানায়, এর আগে চিটাগাং পতেঙ্গায় কারখানা প্রাঙ্গনে এই এজিএম করার ঘোষণা দেয় কোম্পানিটি। পরে সেখান থেকে ভেন্যু পরিবর্তনের ঘোষণা দেয়।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ/এএআর

লেনদেনে সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইলের এককচ্ছত্ব প্রভাব

cnaস্টকমার্কেট ডেস্ক :

লেনদেনে আসার পর থেকেই দুই শেয়ারবাজারেই লেনদেনের শীর্ষ অবস্থান ধরে রাখছে সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইল লিমিটেড। সপ্তাহের দ্বিতীয় দিনে আজ আবারো বস্ত্র খাতের কোম্পানি সি অ্যান্ড এ টেক্সটাইল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনের শীর্ষে অবস্থান করছে। সর্বশেষ দিনে কোম্পানিটির মোট লেনদেন শীর্ষে থাকলেও কমেছে শেয়ারটির দর।

ডিএসইর তথ্য অনুযায়ী, কোম্পানিটি আজ ২৬ টাকা ১০ পয়সায় লেনদেন শুরু করে। এদিন শেয়ারটি সর্বোচ্চ লেনদেন হয় ২৭ টাকা ৫০ পয়সা দরে। তবে দিনশেষে কোম্পানিটির শেয়ার দর ১ টাকা ৫০ পয়সা কমে দাঁড়িয়েছে ২৪ টাকা ৬০ পয়সায়। এদিন কোম্পানির ৬৫ লাখ ৮৫ হাজার ২৩৯ টি শেয়ার ৫ হাজার ৮৭৬ বার লেনদেন হয়। যার বাজার মূল্য ছিল ১৭ কোটি ১৩ লাখ টাকা।

এদিন টট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইল লেনদেনের শীর্ষে ছিল। এদিন কোম্পানিটির মোট ৩ কোটি ১৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/তরি/এইচ/এএআর

  1. সিএ্যান্ডএ টেক্সটাইল
  2. ব্র্যাক ব্যাংক
  3. গ্রামীণফোন
  4. ন্যাশনাল ফিড মিল
  5. অলটেক্স টেক্সটাইল
  6. লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট
  7. ডেসকো
  8. সাপোর্ট
  9. শাহজিবাজার পাওয়ার
  10. জিএসপি ফিন্যান্স।

দুই শেয়ারবাজারেই কমেছে সূচক ও লেনদেন

dseনিজস্ব প্রতিবেদক :

টানা কয়েক দিন ধরে শেয়ারবাজারে সূচক ও শেয়ার দর পতনের ধারাটি আজও অব্যহত রয়েছে দুই শেয়ারবাজারেই। সোমবার প্রধান বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচক ও লেনদেন আগের দিনের চেয়ে কমেছে।

আজ সোমবার দিনশেষে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৮ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৪ হাজার ৭০ পয়েন্টে।

এদিন দিনভর লেনদেন হওয়া ৩০৭টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে মাত্র ১২৯টির, কমেছে ১৩১টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৭টি কোম্পানির শেয়ার দর। লেনদেন হয়েছে ২০৪ কোটি ৩৬ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। গত দিন লেনদেন হয়েছে ২২৩ কোটি ২৪ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট।

এ দিন ডিএসইতে সবচেয়ে বেশী শেয়ার লেনদেন হয়েছে সিএ্যান্ডএ টেক্সটাইল, ব্র্যাক ব্যাংক, গ্রামীণফোন, ন্যাশনাল ফিড মিল, অলটেক্স টেক্সটাইল, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, ডেসকো, সাপোর্ট, শাহজিবাজার পাওয়ার ও জিএসপি ফিন্যান্স।

দিনশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সাধারণ মূল্য সূচক ২৬ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৮ হাজার ৭৪২ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২৩১টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৭৭টির, কমেছে ১২৫টির এবং দর অপরিবর্তিত রয়েছে ২৯টি কোম্পানির।

এদিন সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২০ কোটি ২৮ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। গত দিন লেনদেন হয়েছিল ২৩ কোটি ৬৬ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ/এএআর

মাইলফলকের একটি সপ্তাহ পার করলো সেনসেক্স

sensexস্টকমার্কেট ডেস্ক :

২৯ হাজারে পৌঁছেছে সেনসেক্স। নতুন নজির গড়ে বৃহস্পতিবার সূচক বাজার বন্ধের সময়ে থিতু হল ২৯,০০৬.০২ অঙ্কে। এ দিন সূচক উত্থান ছিল ১১৭.১৬ পয়েন্ট। সূচকের দৌড় শুরুর ক্ষেত্র তৈরিই ছিল। প্রয়োজন ছিল শুধু বাঁশি বাজানোর। গত ১৫ জানুয়ারি রিজার্ভ ব্যাঙ্ক সুদ কমানোর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে সেই বাঁশিটিই বাজানোর পরে টানা দৌড় শুরু হয়েছে সূচকের। মাত্র গত ছ’দিনেই সেনসেক্স বেড়ে গিয়েছে ১,৬৫৯ পয়েন্ট। সূত্র আনন্দবাজার

তবে বিএনকে ক্যাপিটাল মার্কেটসের এমডি অজিত খান্ডেলওয়ালের মতো বাজার বিশেষজ্ঞ, যাঁরা সূচকের খুব দ্রুত ওঠা পছন্দ করেন না, তাঁদের ধারণা, শীঘ্রই শেয়ার দরে একটা সংশোধন আসবে। অবশ্য ৩০ হাজারে সূচকের পৌঁছনোর ব্যাপারে তাঁদেরও কোনও সংশয় নেই। তবে সেটা কত দিনের মধ্যে ঘটবে, তা নিয়ে ভবিষ্যদ্বাণী করতে নারাজ খান্ডেলওয়ালের মতো বিশেষজ্ঞরা।

শেয়ার দর বাড়লেও গত সপ্তাহের শেষ দিন রুপির দাম কমেছে। টানা পাঁচ দিন টানা ওঠার পরে এ দিন ডলারের সাপেক্ষে রুপির দাম কমেছিল ৭ পয়সা।এই দিন রুপির দাম পড়ার ফলে বিদেশি মুদ্রার বাজার বন্ধের সময়ে প্রতি ডলারের দাম দাঁড়িয়েছে ৬১.৭০ পয়সা। সাধারণত শেয়ার বাজার চাঙ্গা হলে ডলারের দাম পড়ে। এ দিনও অবশ্য লেনদেনের প্রথম দিকে তার ব্যতিক্রম হয়নি। প্রতি ডলারের দাম নেমেছিল ৬১.৪৯ টাকায়। কিন্তু পরের দিকে রফতানিকারী ও ব্যাঙ্কগুলি ডলার কিনতে থাকে। তার জেরেই বাড়তে থাকে ডলারের দাম।

তবে বিদেশি মুদ্রা-বাজার বিশেষজ্ঞদের মধ্যে অনেকেরই ধারণা, শেয়ার বাজার এই হারে চাঙ্গা হতে থাকলে রুপির দাম বাড়বে। এর কারণ বিদেশি লগ্নিকারী সংস্থাগুলি তাদের দেশ থেকে ডলারে তহবিল সংগ্রহ করে। সেই ডলার ভারতের বাজারে বিক্রি করে রুপিতে পরিণত করে তারা লগ্নি করে শেয়ার বাজারে। এর ফলেই বাজারে ডলারের জোগান বেড়ে গিয়ে তার দাম পড়তে থাকে। ভারতের বাজারে বিনিয়োগের বহর দ্রুত বাড়িয়ে দিয়েছে ওই সব বিদেশি লগ্নিকারী সংস্থা। সংবাদ সংস্থা পিটিআইয়ের খবর অনুযায়ী বুধবার তারা দেশের বাজারে ২০৬৫.৪৯ কোটি টাকা লগ্নি করেছে। ওই দিন এখানে বিদেশি লগ্নিকারী সংস্থাগুলি ৩৪ কোটি ৬০ লক্ষ ডলার ভাঙিয়েছে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ/এলকে

পদ্মা ওয়েলের অর্ধবার্ষিকী আর্থিক প্রতিবেদন

padma1স্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত বিদ্যুৎ-জ্বালানি খাতের কোম্পানি পদ্মা অয়েল কোম্পানি লিমিটেড ২০১৪ সালের  অর্ধবার্ষিকী (জুলাই, ১৪ -ডিসেম্বর,১৪) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। ডিএসইতে এই তথ্য পাওয়া যায়।

ডিএসই সূত্রে জানা যায়, ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বর শেষ হওয়া অর্ধবার্ষিক (জুলাই’১৪-ডিসেম্বর’১৪) আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী পদ্মা অয়েলের করপরবর্তী মুনাফা হয়েছে ৮৮ কোটি ৪২ লাখ ৬০ হাজার টাকা ও প্রতি শেয়ারে আয় হয়েছে ৯ টাকা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল যথাক্রমে ১০১ কোটি ৫৩ লাখ টাকা ও ১০.৩৪ টাকা।

বিগত তিন মাসে (অক্টোবর’১৪-ডিসেম্বর’১৪) এ কোম্পানির করপরবর্তী মুনাফা হয়েছে ৪২ কোটি ২৩ লাখ ৯০ হাজার টাকা ও প্রতি শেয়ারে আয় হয়েছে ৪.৩০ টাকা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল যথাক্রমে ৩৪ কোটি ৫৬ লাখ ১০ হাজার টাকা ও ৩.৫২ টাকা।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ/এলকে

ইস্টার্ণ লুব্রিকেন্টসের ইপিএস কমেছে

easterস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত বিদ্যুৎ-জ্বালানি খাতের কোম্পানি ইস্টার্ণ লুব্রিকেন্টস এন্ড ব্লেন্ডার লিমিটেডের শেয়ার প্রতি আয় বা ইপিএস কমেছে। কোম্পানিটি অর্ধবার্ষিকী (জুলাই, ১৪ -ডিসেম্বর,১৪) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করলে এই তথ্য পাওয়া যায়।

ডিএসই সূত্রে জানা যায়, অর্ধবার্ষিকে ইস্টার্ন লুব্রিকেন্টসের করপরবর্তী মুনাফা হয়েছে ১৫ লাখ ৫০ হাজার টাকা ও প্রতি শেয়ারে আয় হয়েছে ১.৫৬ টাকা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল যথাক্রমে ২৯ লাখ ৯০ হাজার টাকা ও ৩.০১ টাকা।

বিগত তিন মাসে (অক্টোবর’১৪-ডিসেম্বর’১৪) এ কোম্পানির করপরবর্তী মুনাফা হয়েছে ১০ লাখ ৪০ হাজার টাকা ও প্রতি শেয়ারে আয় হয়েছে ১.৬৯ টাকা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল যথাক্রমে ১৬ লাখ ৯০ হাজার টাকা ও ১.৭০ টাকা।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ/এলকে

  1. সিএ্যান্ডএ টেক্সটাইল
  2. ব্র্যাক ব্যাংক
  3. সাপোর্ট
  4. ন্যাশনাল ফিড মিল
  5. অলটেক্স
  6. ডেসকো
  7. লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট
  8. এসপিসিএল
  9. অগ্নি সিস্টেমস
  10. আইসিবি