সাপ্তাহিক দর কমার শীর্ষে রেনেটা

reneta-smbdনিজস্ব প্রতিবেদক :

গত সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) দর কমার শীর্ষে ছিল রেনেটা কোম্পানি লিমিটেড। এ সময় শেয়ারটির দর ১৬ দশমিক ৩৮ শতাংশ কমেছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র থেকে আরো জানা যায়, সপ্তাহের ব্যবধানে রেনেটা লিমিটেডের প্রতিটি শেয়ারের দর ১৬ দশমিক ৩৮ শতাংশ কমেছে। বিদায়ী সপ্তাহে প্রতিদিন এই কোম্পানিটির ১ কোটি ৮০ লাখ ৫ হাজার ৮০০ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে ৯ কোটি ২৯ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

দর কমার শীর্ষে থাকা অন্য কোম্পানিগুলো হলো – ফাস ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডের ১২.৫৯%, ইনফরমেশন সার্ভিস নেটওয়ার্কের ১২.২৮%,
অ্যাপেক্স ফুটওয়্যারের ৯.৯৮%, এসিআই লিমিটেডের ৮.৬০%, এমবি ফার্মার ৭.৪৭%, ফারইস্ট ফিন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডের ৬.৪২%, আজিজ পাইপসের ৫.৪৯%, প্রিমিয়ার লিজিংয়ের ৫.৪৮% এবং অ্যাক্টিভ ফাইন কেমিক্যালসের ৫.৪৫% ।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এএআর

লেনদেনের শীর্ষে ‘এন’ ক্যাটাগরির ২ কোম্পানি

h indexনিজস্ব প্রতিবেদক :

গত সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনের শীর্ষে ছিল ‘এন’ ক্যাটাগরির ২ কোম্পানি। কোম্পানি ২টি হচ্ছে- ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড এবং ইফাদ অটোস। ঢাকা স্টক একচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

তথ্য অনুযায়ী, সপ্তাহজুড়ে ‘এন’ ক্যাটাগরির ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন অ্যান্ড ডিসট্রিবিউশন ১ কোটি ১০ লাখ ৫ হাজার ৬৪৭টি শেয়ার ২২৯ কোটি ২২ লাখ ২০ হাজার টাকায় লেনদেন হয়েছে।

লেনদেনের ষষ্ঠ স্থানে থাকা ‘এন’ ক্যাটাগরির ইফাদ অটোস লিমিটেড ৯৪ লাখ ৪৯ হাজার ৬৫টি শেয়ার ৮৫ কোটি ৪৩ লাখ ৬৫ হাজার টাকায় লেনদেন হয়েছে।

এছাড়া লেনদেনের শীর্ষ দশে থাকা অন্য কোম্পানিগুলো হচ্ছে- এসিআই ফরমুলেশনস, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়র্ড, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি, এমজেএল বাংলাদেশ, বেক্সিমকো, আরএকে সিরামিকস বাংলাদেশ লিমিটেড, বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবল কোম্পানি এবং সাইফ পাওয়ারটেক।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এএআর

সাপ্তাহিক দর বৃদ্ধির শীর্ষে মেঘনা সিমেন্ট

megna-smbdনিজস্ব প্রতিবেদক :

গত সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) দর বৃদ্ধির শীর্ষে রয়েছে মেঘনা সিমেন্ট কোম্পানি লিমিটেড। এ সময় শেয়ারটির দর ৪৩ শতাংশ বেড়েছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ডিএসই সূত্রে জানা গেছে, আলোচিত সপ্তাহে লেনদেনে প্রথম স্থানে থাকা মেঘনা সিমেন্টের শেয়ার প্রতি দর বেড়েছে ৯৩ টাকা। এসপ্তাহে প্রতিদিন গড়ে ১ কোটি লাখ ৫৪ লাখ ৬৪ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। পুরো সপ্তাহে কোম্পানিটির ৭ কোটি ৭৩ লাখ ২৪ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে।

গেইনারে থাকা অপর কোম্পানিগুলোর মধ্যে ফার কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজের ৩৬ দশমিক ৮৭ শতাংশ, এশিয়া ইন্স্যুরেন্সের ৩৬ দশমিক ৮১ শতাংশ, নিটল ইন্স্যুরেন্সের ৩৪ দশমিক ৯২ শতাংশ, বেঙ্গল উইন্ডসোর থার্মোপ্লাস্টিক লিমিটেডের ৩৪ দশমিক ৮২ শতাংশ, সোনারবাংলা ইন্স্যুরেন্সের। সপ্তাহের ব্যবধানে কোম্পানির প্রতিটি শেয়ারের দর বেড়েছে ২৮ দশমিক ১৫ শতাংশ, বিএসসির ২৭ দশমিক ৬৩ শতাংশ, আফতাব অটোমোবাইলসের ২৭ দশমিক ৪১ শতাংশ, নর্দার্ন জেনারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির ২৬ দশমিক ৯৫ শতাংশ এবং এশিয়ান টাইগার সন্ধানী লাইফ গ্রোথ ফঢান্ডের ২৫ দশমিক ৮৬ শতাংশ শেয়ার দর বেড়েছে।
স্টকমার্কেটবিডি.কম/এএআর

সাপ্তাহিক লেনদেনের শীর্ষে ইউনাইটেড পাওয়ার

UPGDনিজস্ব প্রতিবেদক :

গত সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনের শীর্ষে ছিল ‘এন’ ক্যাটাগরির কোম্পানি ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

তথ্য অনুযায়ী, সপ্তাহজুড়ে ‘এন’ ক্যাটাগরির ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন অ্যান্ড ডিসট্রিবিউশন ১ কোটি ১০ লাখ ৫ হাজার ৬৪৭টি শেয়ার ২২৯ কোটি ২২ লাখ ২০ হাজার টাকায় লেনদেন হয়েছে।

এছাড়া লেনদেনের শীর্ষ দশে থাকা অন্য কোম্পানিগুলো হচ্ছে- এসিআই ফরমুলেশনস, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়র্ড, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি, এমজেএলবিডি, ইফাদ অটোস, বেক্সিমকো লিমিটেড, আরএকে সিরামিকস বাংলাদেশ লিমিটেড, বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবল কোম্পানি এবং সাইফ পাওয়ারটেক।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এএআর

ওয়েস্টার্ন মেরিনের মুনাফা কমেছে দুই-তৃতীয়াংশ

weastaernনিজস্ব প্রতিবেদক :

তৃতীয় প্রান্তিকে ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড লিমিটেডের মুনাফা আগের বছরের একই সময়ের চেয়ে দুই-তৃতীয়াংশেরও বেশি কমেছে। গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রকাশিত অনিরীক্ষিত প্রান্তিক প্রতিবেদন অনুসারে, জানুয়ারি-মার্চ সময়ে জাহাজ নির্মাণ প্রতিষ্ঠানটির নিট মুনাফা হয়েছে ১ কোটি ১৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা, যা ২০১৪ সালের একই সময়ে ছিল ৩ কোটি ৬০ লাখ ৫০ হাজার টাকা। তৃতীয় প্রান্তিকে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) দাঁড়িয়েছে ৯ পয়সা।

আর্থিক প্রতিবেদন পর্যবেক্ষণে দেখা যায়, গেল তিন মাসে বিক্রি থেকে আয় কমায় কোম্পানির মোট (গ্রস) মুনাফা এক বছর আগের তুলনায় প্রায় ১৫ শতাংশ কমেছে। এছাড়া প্রশাসনিক ও বিপণন ব্যয় দ্বিগুণ হয়েছে।

এদিকে প্রথম তিন প্রান্তিকে কর-পরবর্তী মুনাফা দাঁড়িয়েছে ৮ কোটি ৩০ লাখ ৬০ হাজার টাকা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ১৫ কোটি ১৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এএআর

 

সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ১০৬%

dseনিজস্ব প্রতিবেদক :

গত সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন বেড়েছে ১০৬ শতাংশ। এ সপ্তাহে বেড়েছে প্রতিদিনের গড় লেনদেন। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, আগের সপ্তাহের চেয়ে এ সপ্তাহে ডিএসইতে মোট লেনদেন বেড়েছে ১০৬ শতাংশ। সর্বশেষ সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২,৯৭৯ কোটি ২২ লাখ ২৭ হাজার টাকা। আর আগের সপ্তাহে এ লেনদেন হয়েছিল ১, ৪৪২কোটি ৯০ লাখ ৭৫ হাজার টাকার শেয়ার।

এ সপ্তাহে ডিএসইতে গড়ে প্রতিদিন লেনদেন হয়েছে ৫৯৫ কোটি ৮৪ লাখ টাকা। আর আগের সপ্তাহে গড়ে প্রতিদিন লেনদেন হয়েছিল ৩৬০ কোটি ৪৭ লাখ টাকার শেয়ার।

গত সপ্তাহে ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৮০ দশমিক ৮৩ শতাংশ। ‘বি’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ৩ দশমিক ৯৩ শতাংশ। ‘এন’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১৩ দশমিক ৯১ শতাংশ।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এএআর

বিনিয়োগকারীদের ফেসবুকে তথ্য দিচ্ছে সিএসই

cseনিজস্ব প্রতিবেদক :

বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে তথ্য আদান-প্রদানের মাধ্যমে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রক্ষা করছে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই)। নিজস্ব অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ খুলে প্রতিদিনই তথ্য, সংবাদ এবং ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা বিষয়ে বিনিয়োগকারীদের পরামর্শ প্রদান করা হচ্ছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসির সঙ্গে শেয়ারবাজারের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে বৈঠকে এসব বিষয় অবহিত করে সিএসই। বৈঠকে সিএসইর বর্তমান কার্যক্রম ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা তুলে ধরা হয়।

এতে জানানো হয়, গত তিন মাসে সিএসই বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে ইন্টারনেটের মাধ্যমে যোগাযোগ বাড়িয়েছে। সিএসই নিজস্ব অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ খুলেছে, যার মাধ্যমে প্রতিদিনই তথ্য, সংবাদ এবং ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা বিষয়ে বিনিয়োগকারীদের পরামর্শ প্রদান করা হচ্ছে। ১৪ হাজার ১৫৮ জন ব্যক্তি ইতিমধ্যে সরাসরি এই পেজের মাধ্যমে সেবা গ্রহণ করেছে এবং গতকাল পর্যন্ত ৩১ হাজার ৯৪০ জন ব্যক্তি এই পেজে লাইক দিয়েছে।

বৈঠকে স্ক্রিপ্ট নেটিং চালু এবং স্বল্প মূলধনি কম্পানিগুলোর জন্য আলাদা সেগমেন্ট করতেও অনুরোধ জানানো হয় এবং এর গুরুত্ব তুলে ধরা হয়। এ ছাড়া সিএসইর পক্ষ থেকে মার্কেট মেকিং রুল পুনর্বিবেচনারও অনুরোধ জানানো হয় এবং বিএসইসির সম্মতি পেলে এ ব্যাপারে প্রস্তাবনা পেশেরও পরিকল্পনা জানানো হয়।

সভায় বিএসইসির চেয়ারম্যন অধ্যাপক ড. এম খায়রুল হোসেন, বিএসইসির কমিশনাররা, সিএসইর চেয়ারম্যান ড. মুহাম্মদ আবদুল মজিদ, সিএসই পরিচালক এবং সিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক উপস্থিত ছিলেন।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এএআর