সিএসইতে বেশি কোম্পানির দর বেড়েছে

cseনিজস্ব প্রতিবেদক :

সূচকের উত্থানে শেষ হয়েছে দেশের দ্বিতীয় শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) লেনদেন। মঙ্গলবার সেখানে বেশির ভাগ কোম্পানির দর বেড়েছে।

সিএসইতে দিনশেষে লেনদেনে হওয়া ২৫৩ টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ১৩৪টি কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিটের। আর কমেছে ৯২টির ও অপরিবর্তিত রয়েছে ২৭টির দর।

সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবসে এ শেয়ারবাজারে মূল্য সূচক ১৩৫ পয়েন্ট বেড়ে দিনশেষে সিএসইএক্স সূচক গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ২৬৯ পয়েন্টে।

এদিন সিএসইতে ৭৭ কোটি ১০ লাখ টাকা লেনদেন হয়।

টাকার পরিমানে সিএসইতে লেনদেনের শীর্ষস্থান দখল করেছে খুলনা পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ/এএআর

  1. ইউনাইটেড পাওয়ার
  2. খুলনা পাওয়ার
  3. বেক্সিমকো লিমিটেড
  4. ফ্যামিলিটেক্স
  5. কেয়া কসমেটিকস
  6. বারাকা পাওয়ার
  7. আল-আরাফাহ ব্যাংক
  8. পিএলএফএসএল
  9. ফার কেমিক্যাল
  10. অগ্নি সিস্টেমস।

ডিএসইতে সূচক বাড়লেও লেনদেন কম

dseনিজস্ব প্রতিবেদক :

সূচকের উত্থানে শেষ হয়েছে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) লেনদেন। তবে আগের দিনের চেয়ে লেনদেন কমেছে।আজ মঙ্গলবার লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৮৩৫ কোটি টাকা।

সপ্তাহের তৃতীয় এ কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের মূল্য সূচক ডিএসইএক্স দিনশেষে সূচক ১২ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৬২৭ পয়েন্টে। এদিন মোট ৮৩৫ কোটি ৭০ লাখ টাকা লেনদেন হয়। আগের দিন সোমবার ডিএসইতে ৮৫৫ কোটি ৭৮ লাখ টাকা লেনদেন হয়েছে।

দিনশেষে লেনদেনে হওয়া ৩০৮ টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ১২৩ টির, কমেছে ১৫৬ টির ও অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৬ টির দর।

টাকার পরিমানে লেনদেনের শীর্ষস্থান দখল করেছে ইউনাইটেড পাওয়ার, খুলনা পাওয়ার, বেক্সিমকো লিমিটেড, ফ্যামিলিটেক্স, কেয়া কসমেটিকস, বারাকা পাওয়ার, আল-আরাফাহ ব্যাংক, পিএলএফএসএল, ফার কেমিক্যাল ও অগ্নি সিস্টেমস।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ/এএআর

ব্যাংক এশিয়া ও খুলনা পাওয়ার স্পট মার্কেটে

Spot-Market-230x155স্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংক এশিয়া লিমিটেড ও খুলনা পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড আগামী ২৭ ও ২৮ মে স্পটমার্কেটে এবং অড মার্কেটে লেনদেন হবে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, কোম্পানিগুলোর রেকর্ড ডেট হওয়ায় আগামী ৩১মে লেনদেন বন্ধ থাকবে। পরেদিন থেকেই স্বাভাবিক লেনদেন হবে।

২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত অর্থ বছরে শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ব্যাংক এশিয়া ১০ শতাংশ বোনাস ও ৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। অন্যদিকে খুলনা পাওয়ার শেয়ারহোল্ডারদের সর্বশেষ বছরের জন্য ৪০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। আগামী ৩১মে কোম্পানিগুলোর লভ্যাংশের রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ/এলকে

ন্যাশনাল হাউজিংয়ের মুনাফা ও আয় কম

national-smbdনিজস্ব প্রতিবেদক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত নন-ব্যাংকিং আর্থিক খাতের প্রতিষ্ঠান ন্যাশনাল হাউজিং ফিন্যান্স এন্ড ইনভেষ্টমেন্ট লিমিটেডের প্রথম প্রান্তিকের কর পরবর্তী মুনাফা ও ইপিএস বা আয় কমেছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকের (জানুয়ারি’১৫ থেকে মার্চ’১৫) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ি ন্যাশনাল হাউজিংয়ের কর পরবর্তী মুনাফা হয়েছে ৩ কোটি ৫০ লাখ ৯০ হাজার টাকা এবং শেয়ারপ্রতি আয় হয়েছে ৩৩ পয়সা। আগের বছরের একই প্রান্তিকের তুলনায় চলতি বছরের এই প্রান্তিকে কোম্পানিটির এই আয় আর মুনাফা কম।

এর আগের বছর একই প্রান্তিকে কর পরবর্তী এই মুনাফার পরিমাণ ছিল ৬ কোটি ১৬ লাখ ৮০ হাজার টাকা এবং শেয়ারপ্রতি আয়ের পরিমাণ ছিল ৫৮ পয়সা।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ/এএআর

এইচআর টেক্সটাইলের অর্ধ-বার্ষিকী মুনাফা কম

hr texনিজস্ব প্রতিবেদক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত পোশাক শিল্প খাতের কোম্পানি এইচআর টেক্সটাইল লিমিটেডের অর্ধ-বার্ষিকীতে কর পরবর্তী মুনাফা ও ইপিএস বা আয় কমেছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

চলতি বছরের অর্ধ-বার্ষিকীতে (অক্টোবর’১৪ থেকে মার্চ’১৫) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ি এইচআর টেক্সটাইলের কর পরবর্তী মুনাফা হয়েছে ১ কোটি ৯ লাখ ৮০ হাজার টাকা এবং শেয়ারপ্রতি আয় হয়েছে ৪৩ পয়সা। আগের বছরের একই প্রান্তিকের তুলনায় চলতি বছরের এই অর্ধবার্ষকীতে কোম্পানিটির এই আয় আর মুনাফা কম।

এর আগের বছর একই সময়ে কর পরবর্তী এই মুনাফার পরিমাণ ছিল ২ কোটি ৪ লাখ টাকা এবং শেয়ারপ্রতি আয়ের পরিমাণ ছিল ৮১ পয়সা।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ/এএআর

ন্যাশনাল হাউজিংয়ের দর বাড়ার তথ্য নেই

national-smbdনিজস্ব প্রতিবেদক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত নন-ব্যাংকিং আর্থিক খাতের প্রতিষ্ঠান ন্যাশনাল হাউজিং ফিন্যান্স এন্ড ইনভেষ্টমেন্ট লিমিটেড গত কয়েক দিন ধরে টানা শেয়ারের দর বাড়ার পেছনে অপ্রকাশিত কোনো সংবেদনশীল তথ্য নেই বলে জানিয়েছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

দর বাড়ার কারণ সম্পর্কে জানতে চাইলে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) কর্তৃপক্ষকে এ জবাব দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

তথ্য পর্যালোচনায় দেখা যাচ্ছে, গত ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে ১১ কার্যদিবস ন্যাশনাল ফিন্যান্সের শেয়ারের দর বেড়েছে। এরমধ্যে কোম্পানিটির দর বেড়েছে ২১ টাকা।

গত ৪ মে এ শেয়ারটির দর ছিল ১৭.২০ টাকা। যা আজ সোমবার দিনশেষে দাঁড়িয়েছে ২৫ টাকার উপরে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ

ডিএসইতে মঙ্গলবার নির্ধারিত সময়ে লেনদেন

dseনিজস্ব প্রতিবেদক :

রবিবার ও সোমবার কারিগরি ত্রুটির কারণে নির্ধারিত সময়ে লেনদেন শুরু করতে পারেনি ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)। তবে মঙ্গলবার নির্ধারিত সময়ে বেলা সাড়ে ১০ টায় লেনদেন শুরু করতে সমর্থ হয়েছে স্টক এক্সচেঞ্জটি। দুইদিন সমস্যা দেখা দেওয়ায় আজ মঙ্গলবারও বেশ উৎকন্ঠায় ছিল বিনিয়োগকারীরা। যা অবসান করতে সক্ষম হয়েছে ডিএসই।

কোনাে ধরনের ত্রুটি দেখা না দিলে আড়াইটায় নির্ধারিত সময়ে আজকের লেনদেন শেষ হবে ডিএসইতে।

এর আগে গত ২৪ জুন রবিবার কারিগরি ত্রুটির কারণে নির্ধারিত সময়ের ২ ঘণ্টা ৫০ মিনিট পর বেলা ২ টা ২০ মিনিটে লেনদেন শুরু হয় ও বেলা ৪ টায় শেষ হয়।ফলে স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় ওইদিন ২ ঘন্টা ২০ মিনিট কম লেনদেন হয়েছে ডিএসইতে।

সোমবারও কারিগরি সমস্যার কারণে বিলম্বে লেনদন শুরু হয় ডিএসইতে। সকাল সাড়ে ১০ টার পরিবর্তে লেনদেন শুরু হয় বেলা সোয়া ১২ টায়। লেনদেন শেষ হয় বেলা সোয়া ৪ টায়। ওইদিন ৪ ঘণ্টা লেনদেন হলেও নির্ধারিত সময়ে লেনদেন শুরু ও শেষ না হওয়ায় বিনিয়োগকারীদের নানা ভোগান্তিতে পড়তে হয়।

অবশ্য অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) যথাসময়ে লেনদেন শুরু ও শেষ হয়।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম/এইচ

নিটল ইন্স্যুরেন্সের শেয়ার বাড়াবে ফাস ফিন্যান্স

nitol-smbdটকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত বীমা খাতের কোম্পানি নিটল ইন্স্যুরেন্সের প্রাতিষ্ঠানিক উদ্যোক্তা ফাস ফিন্যান্স কোম্পানিটির শেয়ার সংখ্যা বাড়াবে। এই উদ্যোক্তা বীমাটির আরো শেয়ার ক্রয়ের ঘোষণা দিয়েছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, উদ্যোক্তা ফাস ফিন্যান্সের কাছে কোম্পানির মোট ১২ লাখ ১২ হাজার ৩০ টি শেয়ার রয়েছে। প্রতিষ্ঠানটি নিটল ইন্স্যুরেন্সের আরো ১ লাখ ৮৮ হাজার শেয়ার ক্রয় করবে।

আগামী ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে বর্তমান বাজার দরে ক্রয় করতে পারবে কোম্পানিটি।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম/এইচ

শেয়ারবাজারে কেন্দ্রীয় ব্যাংক আরো ভূমিকা রাখতে পারে

bbনিজস্ব প্রতিবেদক :

শেয়ারবাজারের উন্নয়নে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আরো ভূমিকা রাখার সুযোগ রয়েছে। ব্যাংকের বিনিয়োগসীমা গণনায় বাংলাদেশ ব্যাংক কিছুটা নমনীয় হলে শেয়ারবাজারে স্থিতিশীলতা বজায় থাকবে, যা বিনিয়োগকারীদের আস্থা তৈরিতে সহায়ক হবে। তবে দীর্ঘমেয়াদে আস্থা অর্জনে শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থারও করণীয় রয়েছে।

গতকাল সন্ধ্যায় রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে ‘বাংলাদেশের অর্থনীতি ও পুঁজিবাজারের সমৃদ্ধি’ শীর্ষক এ সম্মিলন অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান, অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান এবং বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. এম খায়রুল হোসেন। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ওয়ালি-উল-মারূফ মতিন।

অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান বলেন, সাবসিডিয়ারি কোম্পানিতে ব্যাংকগুলোর বিনিয়োগকে এক্সপোজার লিমিটেডের অন্তভূর্ক্ত করা ইলিগ্যাল। সাবসিডিয়ারি কোম্পানি একটি স্বতন্ত্র বা আলাদা সত্ত্বা ও আলাদা ব্যবসা। তাই সাবসিডিয়ারিতে বিনিয়োগকে এক্সপোজারে অন্তভূর্ক্ত করা ঠিক না। এ ছাড়া অ-তালিকাভুক্ত কোম্পানিতে বিনিয়োগকে এক্সপোজারে অন্তভূর্ক্ত করা ঠিক না বলে জানান মসিউর রহমান। এ বিষয়ে বিএসইসির পক্ষে কাজ করবেন বলে জানান।

অর্থনীতিবীদ ড. এবি মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম বলেন, শেয়ারবাজারের স্বার্থে ব্যাংকগুলোর এক্সপোজার লিমিটেডের সময় বাড়ানো দরকার। এ ছাড়া এক্সপোজার লিমিটেডে অ-তালিকাভুক্ত কোম্পানিকে অন্তভূর্ক্ত করা বোধগম্য না বলে জানান।
শেয়ারবাজারের গভীরতার জন্য নতুন নতুন কোম্পানি তালিকাভুক্ত করার দরকার আছে। তবে এর চেয়ে বড় হল যেসব কোম্পানি আনা হবে সেগুলোর কোয়ালিটি।

বিএসইসির সাবেক চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ সিদ্দিকী বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের এক্সপোজার লিমিটেডের নির্দেশনা সঠিক। তবে বর্তমানে ব্যাংকগুলোর এক্সপোজার লিমিটেড খুব বেশি হলে সময় সীমা বাড়ানো যেতে পারে বলে মনে করেন তিনি।

ইনভেষ্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশের (আইসিবি) মো. ফায়েকুজ্জামান বলেন, ব্যাংকগুলোর এক্সপোজার লিমিটেডের সময়সীমা বাড়ানো দরকার। শেয়ারবাজার ২০০৯ সাল থেকে এখন ভালো আছে বলে মন্তব্য করেন।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ/এএআর