সিএন্ডএ টেক্সটাইলের কর্পোরেট অফিস পরিবর্তন

cnaস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত টেক্সটাইল খাতের কোম্পানি সিএন্ডএ টেক্সটাইল লিমিটেড কর্পোরেট অফিস পরিবর্তন করেছে। সিএসই সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়।

সূত্র জানায়, কোম্পানিটির কর্পোরেট অফিস রাজধানীর গুলশান নিকেতনের বি ব্লকের ৪ নন্বর রোডের ৯২ নন্বর বাসায় নেয়া হয়েছে।

কোম্পানি সূত্রে জানা যায়, এই অফিস রাজধানীর গুলশান নিকেতনের সি ব্লকের ১০ নন্বর রোডের ১২৭ নন্বর বাসায় ছিল। এখন থেকে সকল বিনিয়োগকারী ও স্টেক হোল্ডারদের নতুন অফিসে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএজে

ইবনে সিনার এজিএম শনিবার

ibnস্টকমার্কেট ডেস্ক:

আগামীকাল শনিবার সকালে ধানমন্ডির সীমান্ত স্কয়ারের ইমানুয়েলস কনভেনশেন সেন্টারে ইবনে সিনা লিমিটেডের বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হবে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্রে জানা যায় শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ওষুধ ও রসায়ন খাতের কোম্পানিটি ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত ২০১৪ হিসাব বছরের জন্য ৩০ শতাংশ নগদ ও ৫ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। সমাপ্ত হিসাব বছরে এ কোম্পানির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৫ টাকা ৯৫ পয়সা। শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ৩১ টাকা ৭৭ পয়সা।

২০১৩ সালে কোম্পানিটি ২০ শতাংশ নগদ ও ১০ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ দিয়েছিল। বোনাস শেয়ার সমন্বয় শেষে সে বছর এর ইপিএস দাঁড়িয়েছিল ৪ টাকা ৮ পয়সা।

এদিকে প্রথম প্রান্তিকে কোম্পানিটির মুনাফা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৪৬ শতাংশ বেড়ে ২ কোটি ৪৫ লাখ টাকায় উন্নীত হয়।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএজে

সপ্তাহের ব্যবধানে লেনদেন কমলেও বেড়েছে সূচক

dseস্টকমার্কেট ডেস্ক :

গত সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) মোট লেনদেনের পরিমাণ কমলেও বেড়েছে প্রতিদিনের গড় লেনদেন। এ সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন আগের সপ্তাহের চেয়ে ১৯ দশমিক ৩০ শতাংশ কমেছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

গত সপ্তাহে ডিএসই ব্রড ইনডেক্স বা ডিএসইএক্স সূচক ৪৬ পয়েন্ট বেড়ে ৪৫৪৪ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

এর আগের সপ্তাহের চেয়ে গত সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ৭২০ কোটি ৯৫ লাখ ১ হাজার টাকার। এ সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩ হাজার ৩ কোটি ১৫ লাখ ৫ হাজার টাকার। আর এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ১ হাজার ৭৯৫ কোটি ৬ লাখ টাকার শেয়ার।

গত সপ্তাহে ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৮৭ দশমিক ৮৫ শতাংশ। ‘বি’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ২ দশমিক ৪০ শতাংশ। ‘এন’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৭ দশমিক ৬০ শতাংশ। আর ‘জেড’ ক্যাটাগরির লেনদেন হয়েছে ২ দশমিক ১৫ শতাংশ।

সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে তালিকাভুক্ত মোট ৩২৪ টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১০৬ টির, দর কমেছে ১৮৯ টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৬ টির। আর ৩ টি কোম্পানির লেনদেন হয়নি।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএজে

সাপ্তাহিক দর বৃদ্ধির শীর্ষে সামিট পাওয়ার

dseনিজস্ব প্রতিবেদক :

সপ্তাহজুড়ে দর বাড়ায় সাপ্তাহিক দরবৃদ্ধির শীর্ষে উঠে এসেছে সামিট পাওয়ার লিমিটেড। এসময় ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) এ শেয়ারের দর বেড়েছে ২৮.৬৫ শতাংশ। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

গত সপ্তাহে কোম্পানিটি প্রতিদিন গড়ে ৪২ কোটি ১ লাখ ৮ হাজার ২৫০ টাকার শেয়ার লেনদেন করেছে। আর পুরো সপ্তাহে কোম্পানির ১৬৮ কোটি ৪ লাখ ৩৩ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার এ শেয়ারের দর আগের দিনের চেয়ে ২.৩০ টাকা বেড়ে সর্বশেষ ৪৭.৯০ টাকায় লেনদেন হয়েছে। গত সপ্তাহে লেনদেন হওয়া চার কার্যদিবসে এ শেয়ারের দর বেড়েছে ২৮.৬৫ শতাংশ।

দরবৃদ্ধির শীর্ষে অন্যান্য কোম্পানিগুলো হলো- ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেডের ১৭.৩২ শতাংশ, এ্যাপোল ইস্পাত কমপ্লেক্স লিমিটেডের ১৩.৩৩ শতাংশ, বিডিকম অনলাইন লিমিটেডের ১০.৫১ শতাংশ, অরিয়ন ফার্মা লিমিটেডের ১০৪৬ শতাংশ, আইএফআইসি ব্যাংক লিমিটেডের ৮.০৪ শতাংশ, আইসিবি এএমসিএল ফার্স্ট ও এনআরবি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ৭ দশমিক ৬১ শতাংশ, বেক্সিমকো ফার্মার ৭.৩০ শতাংশ এবং বাংলাদেশ বিল্ডিংস সিস্টেমসের ৬ দশমিক ৭২ শতাংশ দর বেড়েছে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএজে

সাপ্তাহিক লেনদেনের শীর্ষে সামিট পাওয়ার

summitনিজস্ব প্রতিবেদক :

গত সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনের শীর্ষে ছিল ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানি সামিট পাওয়ার কোম্পানি। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এছাড়া লেনদেনের শীর্ষ দশে থাকা অন্য কোম্পানিগুলো হচ্ছে- খুলনা পাওয়ার কোম্পানি, বেক্সিমকো লিমিটেড, ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড, গ্রামীনফোন লিমিটেড, সাইফ পাওয়ারটেক লিমিটেড, সামিট পূর্বাঞ্চল পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবল কোম্পানি, আরএকে সিরামিকস (বাংলাদেশ) লিমিটেড এবং বারাকা পাওয়ার লিমিটেড।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএজে

শেয়ারবাজারকে গতিশীল ও শক্তিশালী করবে এবারের বাজেট : ডিএসই

budget 2015-16নিজস্ব প্রতিবেদক:

২০১৫-২০১৬ অর্থবছরের জন্য প্রস্তাবিত বাজেট দেশের শেয়ারবাজারকে গতিশীল ও শক্তিশালী করবে বলে জানিয়েছে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) পরিচালনা পর্ষদ।

বৃহস্পতিবার ২০১৫-২০১৬ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট নিয়ে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় ডিএসই’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক অধ্যাপক ড. স্বপন কুমার বালা এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‍‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌বাজেটে বিনিয়োগ বৃদ্ধিতে শিল্পায়ন এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে যুগোপযোগী বাজেট পেশ করায় ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের পরিচালনা পর্ষদ অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এবং বাংলাদেশ সরকারকে বিশেষ সাধুবাদ জানাচ্ছে। বিশেষ করে শেয়ারবাজারকে সম্প্রসারিত ও গতিশীল করার জন্য পুঁজিবাজারের প্রতি সরকারের বিশেষ গুরুত্বারোপকে ডিএসই বিশেষভাবে অভিনন্দন জানাচ্ছে।

শেয়ারবাজারকে নিয়ে সরকারের এই ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি ও মনোভাবের কল্যাণে দেশের শিল্পায়নের গতি তরান্বিত হওয়ার মাধ্যমে শেয়ারবাজার আরও বেশি কার্যকরি ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে বলে স্বপন কুমার আশা প্রকাশ করেন।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ আশা করে যে, সরকারের ২০১৫-১৬ অর্থ বছরের বাজেটে শেয়ারবাজারের জন্য যে সমস্ত  প্রস্তাবাদি রাখা হয়েছে তাতে বাজারে অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি হবে এবং জাতীয় অর্থনীতি আরও গতিশীল হবে। বেসরকারিখাতের শিল্পোদ্যোক্তারা তাদের কোম্পানির জন্য শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্তিতে আগ্রহী হবে, এতে শিল্পখাত আরো শক্তিশালী ও বিকশিত হয়ে দেশে বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি হবে, যা দেশি-বিদেশি বিনিয়োগকারীদের আরো বেশি আকৃষ্ট করবে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএজে