আর্থিক বিষয়ক জ্ঞান সম্প্রসারণে বিএসইসির উদ্যোগ

bsecনিজস্ব প্রতিবেদক :

তৃণমূল পর্যায়ে আর্থিক সংক্রান্ত জ্ঞান সম্প্রসারণে উদ্যোগ নিয়েছে শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। লক্ষ্যে দুই স্তর বিশিষ্ট কমিটি গঠন করেছে সংস্থাটি। বিএসইসি সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানিয়েছে, কমিশনের চেয়ারম্যানকে আহ্বায়ক করে ১০ সদস্যের স্টিয়ারিং কমিটি এবং নির্বাহী পরিচালক মো. মাহবুবুল আলমকে আহ্বায়ক করে ১৫ সদস্যের টেকনিক্যাল কমিটি গঠন করা হয়েছে।

আর্থিক জ্ঞান সংক্রান্ত কর্মসূচি বাস্তবায়নে ১০ সদস্যের স্টিয়ারিং কমিটির আহ্বায়কের দায়িত্ব পালন করবেন বিএসইসির চেয়ারম্যান। কমিটির সদস্য হিসেবে থাকবেন বিএসইসির ৪ কমিশনার, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ লিমিটেডের চেয়ারম্যান, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের চেয়ারম্যান, সেন্ট্রাল ডিপেজটরি বাংলাদেশ লিমিটেডের চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব পাবলিকলি লিস্টেড কোম্পানিজের প্রেসিডেন্ট। কমিটিতে সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক সাইফুর রহমান। কমিশন প্রয়োজনে স্টিয়ারিং কমিটিতে অতিরিক্ত সদস্য অন্তর্ভুক্ত করতে পারবে।

অপরদিকে ১৫ সদস্যের টেকনিক্যাল কমিটির আহ্বায়ক হিসেবে রয়েছেন বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক মাহবুবুল আলম। কমিটির সদস্য হিসাবে রয়েছেন— ডিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক, সিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক, সিডিবিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, ডিএসইর ব্রোকার ডিলার অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট বা সেক্রেটারি, আইসিএবির প্রেসিডেন্ট বা সেক্রেটারি, আইসিএমএবির প্রেসিডেন্ট বা সেক্রেটারি, সিএফএ সোসাইটি বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট বা সেক্রেটারি, বিএমবিএ’র প্রেসিডেন্ট, অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানিজ অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট, বিএসইসির পরিচালক রিপন কুমার দেবনাথ, বিএসইসির পরিচালক আবুল কালাম, বিএসইসির পরিচালক ফারহানা ফারুকী। টেকনিক্যাল কমিটির সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন বিএসইসির উপ-পরিচালক ওহিদুল ইসলাম। তবে কমিশন প্রয়োজনে টেকনিক্যাল কমিটিতে অতিরিক্ত সদস্য অন্তর্ভুক্ত করতে পারবে।

টেকনিক্যাল কমিটির কার্যপরিধির বিষয়ে বলা হয়েছে, এ কমিটি বিশেষায়িত কমিটি হিসেবে স্টিয়ারিং কমিটির তত্ত্বাবধানে কাজ করবে। আর্থিক জ্ঞান কর্মসূচি (ফাইন্যান্সিয়াল লিটারেসি প্রোগ্রাম) সম্পর্কিত যাবতীয় কার্যক্রম সম্পাদন, কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন, গবেষণা পরিচালন, অংশগ্রহণকারীদের শ্রেণীকরণ, পাঠ্যসূচি প্রণয়ন, ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠন, প্রয়োজনীয় লোকবল চিহ্নিতকরণ ও তাদের যথাযথ শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ প্রদান করবে টেকনিক্যাল কমিটি। নির্ধারিত সময়ে স্টিয়ারিং কমিটির নিকট প্রতিবেদন দাখিল করবে এ কমিটি।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএ

বিএসআরএমের মূল্য সংবেদনশীল তথ্য নেই

bsrmস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত প্রকৌশল খাতের কোম্পানি বিএসআরএম লিমিটেডের সাম্প্রতিক সময়ে অস্বাভাবিক দর বাড়ার পেছনে কোনো মূল্য সংবেদনশীল তথ্য নেই। শেয়ারটির দর বাড়ার কারণ জানতে চাইলে কোম্পানির পক্ষ থেকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জকে (সিএসই) এ কথা জানানো হয়।

কোম্পানিটির শেয়ারের সাম্প্রতিক এই দর বাড়াকে অস্বাভাবিক বলে মনে করছে সিএসই। দর বাড়ার পেছনে মূল্য সংবেদনশীল কোন তথ্য আছে কি না – তা জানতে চায় সিএসই। এ সময় বিএসআরএম লিমিটেডের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, দর বৃদ্ধির পেছনে মূল্যসংবেদনশীল অপ্রকাশিত কোন তথ্য কোম্পানির কাছে নেই।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএ

বাংলাদেশ ল্যাম্পসের বোর্ড সভা আহ্বান

bdlams-smbdস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত প্রকৌশল খাতের কোম্পানি বাংলাদেশ ল্যাম্পস লিমিটেডের বোর্ড সভা আহ্বান করা হয়েছে। আগামী ৮ মার্চ বেলা ৩টায় এ বোর্ড সভা অনুষ্ঠিত হবে। সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এ বোর্ড সভায় ২০১৫ সালের ৩১ ডিসেম্বর শেষ হওয়া অর্থবছরের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনাপূর্বক বিনিয়োগকারীদের জন্য লভ্যাংশ ঘোষণা করা হবে।

এছাড়া বার্ষিক সাধারণ সভার (এজিএম) তারিখ নির্ধারণ ও রেকর্ড ডেট ঘোষণা করা হতে পারে বলে কোম্পানির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএ

  1. লংকাবাংলা ফিন্যান্স
  2. ওরিয়ন ইনফিউশন
  3. ইফাদ অটোস
  4. সিঙ্গার বিডি
  5. বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং
  6. সিএমসি কামাল
  7. লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট
  8. বেক্সিমকো ফার্মা
  9. জাহিন স্পিনিং
  10. কাশেম ড্রাইসেলস।

শেয়ারবাজারে সূচক কমলেও লেনদেন বৃদ্ধি

DSE_CSE-smbdনিজস্ব প্রতিবেদক :

দেশের উভয় শেয়ারবাজারে সোমবার মূল্য সূচকের বড় ধরণের পতন হলেও লেনদেন বৃদ্ধি পেয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সপ্তাহের ২য দিনে সূচকের পতন হয়েছে। চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) লেনদেনে হয়েছে ৫১ কোটি টাকার উপরে । ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

দিনশেষে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ২৪.৮৭ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৪৫১১ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৮.৪৬ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১০৯৯ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১৪.০৭ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৭২২ পয়েন্টে।

এদিন দিনভর লেনদেন হওয়া ৩১৮টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৯৭টির, কমেছে ১৭৩টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৮টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার দর।

এদিন লেনদেন হয়েছে ৪৬২ কোটি ৯২ লাখ টাকার শেয়ার। গতকাল রবিবার এ লেনদেন ছিল ৪২৪ কোটি ৩৩ লাখ টাকা।

ডিএসইতে টাকার অঙ্কে লেনদেনে শীর্ষ কোম্পানিগুলো হচ্ছে- লংকাবাংলা ফিন্যান্স লিমিটেড, ওরিয়ন ইনফিউশন, ইফাদ অটোস, সিঙ্গার বিডি, বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেড, সিএমসি কামাল, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, বেক্সিমকো ফার্মা, জাহিন স্পিনিং লিমিটেড এবং কাশেম ড্রাইসেলস।

এদিকে রবিবার দিনশেষে সিএসই সার্বিক সূচক ৭৬ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৩ হাজার ৯২১ পয়েন্টে।

সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৪০টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৬১টির, কমেছে ১৫২টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৭টির। এদিন টাকার অংকে লেনদেন হয়েছে ৫১ কোটি টাকা। গতকাল রবিবার লেনদেন হয় ২৮ কোটি ৮৩ লাখ টাকা।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএ/এলকে

কেপিপিএলের লভ্যাংশ বিনিয়োকারীদের ব্যাংকে

KPPL1স্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে প্রকৌশল খাতের কোম্পানি খুলনা প্রিন্টিং এণ্ড প্যাকেজিং লিমিটেড সমাপ্ত হিসাব বছরের ঘোষিত নগদ লভ্যাংশ বিনিয়োগকারীদের ব্যাংক হিসাবে পাঠিয়েছে। সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, বাংলাদেশ ইলেক্ট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার নেটওয়ার্কের (বিএফটিএন) মাধ্যমে এই লভ্যাংশ পাঠিয়েছে কোম্পানিটি।

প্রসঙ্গত, গত ২০১৫ বছরে খুলনা প্রিন্টিং এণ্ড প্যাকেজিং শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে।

সে বছর কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.৫১ টাকা। শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৭.৩৯ টাকা।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ

আনোয়ার গ্যালভানাইজিংয়ের লভ্যাংশ ব্যাংক হিসাবে

Anwar-Galva-smbdস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে প্রকৌশল খাতের কোম্পানি আনোয়ার গ্যালভানাইজিং লিমিটেড সমাপ্ত হিসাব বছরের ঘোষিত নগদ লভ্যাংশ বিনিয়োগকারীদের ব্যাংক হিসাবে পাঠিয়েছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, বাংলাদেশ ইলেক্ট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার নেটওয়ার্কের (বিএফটিএন) মাধ্যমে এই লভ্যাংশ পাঠিয়েছে কোম্পানিটি।

প্রসঙ্গত, গত ২০১৫ বছরে আনোয়ার গ্যালভানাইজিং শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ৯ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে।

সে বছর কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৬৪ পয়সা। শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ৮ টাকা ২৮ পয়সা।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ

সায়হাম কটনের তৃতীয় প্রান্তিকের ইপিএস ২৬ পয়সা

saiham-smbdস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত বস্ত্র খাতের কোম্পানি সায়হাম কটন মিল লিমিটিডের তৃতীয় প্রান্তিকে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) এসেছে ২৬ পয়সা। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

কোম্পানিটির চলতি বছরের ৩য় প্রান্তিকের (নভেম্বর-জানু) আর্থিক প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়।

এই প্রান্তিকে কোম্পানিটির ন্যাভ দাঁড়িয়েছে ২২.৯১ টাকা।

এ সময় ইপিএস হয়েছে ২৬ পয়সা। গত বছরের একই সময় শেয়ার প্রতি আয় ছিল ২১ পয়সা।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ