1. লাফার্জ সুরমা
  2. তিতাস গ্যাস
  3. সাপোর্ট
  4. অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ
  5. খান ব্রাদার্স
  6. স্কয়ার ফার্মা
  7. ডরিন পাওয়ার
  8. শাহজিবাজার পাওয়ার
  9. সাইফ পাওয়ার
  10. ইবনে সিনা।

ডিএসইতে কমলেও সিএসইতে বেড়েছে সূচক

DSE_CSE-smbdনিজস্ব প্রতিবেদক :

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) প্রধান মূল্য সূচকের সামান্য পতন হয়েছে। অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) বেড়েছে সব থরণের সূচক।

মঙ্গলবার দিনশেষে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) লেনদেন হয়েছে ৪২৪ কোটি ২৩ লাখ টাকার শেয়ার। যা গতকাল সোমবার ছিল ৪৬৩ কোটি ৭০ লাখ টাকা। এহিসাবে এদিন লেনদেন প্রায় ৩৯ কোটি টাকা কমেছে।

এদিন ডিএসইতে ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৩.৬১ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৪৪১৯ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ২.১৭ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১০৯১ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১২.০৩ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৭৪৫ পয়েন্টে।

এদিন দিনভর লেনদেন হওয়া ৩১৬টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৮৯ টির, কমেছে ১৮৩ টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৪টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার দর।

ডিএসইতে টাকার অঙ্কে লেনদেনে শীর্ষ কোম্পানিগুলো হচ্ছে- লাফার্জ সুরমা, তিতাস গ্যাস, সাপোর্ট, অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ, খান ব্রাদার্স, স্কয়ার ফার্মা, ডরিন পাওয়ার, শাহজিবাজার পাওয়ার, সাইফ পাওয়ার ও ইবনে সিনা।

এদিকে অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ২৪ কোটি ৮৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। সোমবার সেখানে ২৮ কোটি ৮৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

এদিন সিএসই সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১০ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩ হাজার ৬২৩ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৩৪টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৬৮টির, কমেছে ১২৩ টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪০ টির।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম/এলকে

সুপ্রিম কোর্টে এইমস ফার্স্ট এবং গ্রামীণের ওয়ানের রিট খারিজ

courtনিজস্ব প্রতিকেদক :

এইমস ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড এবং গ্রামীণ মিউচুয়াল ফান্ড : স্কিম ওয়ান অবসায়ন সংক্রান্ত দায়ের করা সব রিট খারিজ করে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। এর ফলে ফান্ড দুটির সম্পদ ইউনিটধারীদের মাঝে বিতরণে আর কোন বাধা নেই। আজ মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতির সমন্বয়ে গঠিত সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী ও মির্জা হোসেন হায়দার সমন্বিত পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ এই রায় দেন।

এর আগে ফান্ড দুটির সম্পদ ইউনিটধারীদের মাঝে বিতরণের জন্য ৭ কার্যদিবস সময় বেঁধে দেয় বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। যা বিতরণের জন্য সর্বশেষ সময় দেওয়া হয় ৪ মে। তবে রিটের চূড়ান্ত শুনানির আগেই অবসায়ন প্রক্রিয়া শেষ করার উদ্যোগ নেওয়ায় আদালতের নির্দেশে অর্থ বিতরণ প্রক্রিয়া স্থগিত হয়ে যায়। যে স্থগিতাদেশ মঙ্গলবারের রায়ের মাধ্যমে প্রত্যাহার হয়েছে।

মিউচুয়াল ফান্ডের রূপান্তর-অবসায়ন ইস্যুতে নিয়ন্ত্রক সংস্থার প্রজ্ঞাপনকে অবৈধ ঘোষণা করে হাইকোর্ট। যা গত ১১ ফেব্রুয়ারি স্থগিত করে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। ওই দিন মিউচুয়াল ফান্ডগুলোর রূপান্তর-অবসায়নে বাধা নেই বলে জানিয়েছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

উল্লেখ্য, আপিল বিভাগের মাধ্যমে হাইকোর্টের রায় স্থগিতের পরিপ্রেক্ষিতে ফান্ড দুটিকে অবসায়নের নির্দেশ দেয় বিএসইসি। নির্দেশনা অনুযায়ী, ২ মার্চের পর স্টক এক্সচেঞ্জে ফান্ড দুটির লেনদেনও বন্ধ হয়ে যায়।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম

প্রিমিয়ার সিমেন্টের ঋণমাণ ‘এএ-’ ও ‘এসটি-৩’

primiur-Logoস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত সিমেন্ট শিল্প খাতের কোম্পানি প্রিমিয়ার সিমেন্ট লিমিটেডের দীর্ঘমেয়াদি ঋণমান ‘এএ-’ এবং স্বল্পমেয়াদের ঋণমাণ ‘এসটি-৩’। সম্প্রতি এই রেটিং প্রকাশ করেছে ক্রেডিট রেটিং ইনফরমেশন এণ্ড সার্ভিস লিমিটেড(ক্রিসল)। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

২০১৫ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন এবং ২০১৬ সালের মার্চ মাসের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন ও হালনাগাদ অন্যান্য আর্থিক উপাত্তের ভিত্তিতে এ সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছে ক্রেডিট রেটিং এজেন্সি।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/বিএ

হাইকোর্টের আদেশক্রমে সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজের সভার দিন নির্ধারণ

courtস্টকমার্কেট ডেস্ক :

হাইকোর্টের অন্তর্বর্তী আদেশক্রমে বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) ও বিশেষ সাধারণ সভা (ইজিএম) স্থগিত করেছিল সুহূদ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। প্রকৌশল খাতের কোম্পানিটি গত ১৯ মার্চ এসব সভা আহ্বান করেছিল। গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে জানা গেছে, আদালতের অনুমোদনসাপেক্ষে আগামী ২৩ জুন ১১তম এজিএম ও পঞ্চম ইজিএম আয়োজন করবে তারা।

কোম্পানি সূত্রে জানা গেছে, নির্ধারিত সময়ের পর এজিএম আয়োজনের অনুমতি চেয়ে আদালতের কাছে আবেদন করে সুহূদ ইন্ডাস্ট্রিজ। তবে আদালত এজন্য ২২ মার্চ শুনানির দিন নির্ধারণ করেন। এ কারণে ১৯ মার্চ তাদের এজিএম-ইজিএম অনুষ্ঠিত হয়নি।

শেয়ারপ্রতি ৩ পয়সা লোকসানের কারণে ২০১৫ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য কোনো লভ্যাংশ সুপারিশ করেনি সুহূদের পরিচালনা পর্ষদ। এছাড়া প্রায় ৩ কোটি টাকার পুরনো জেনারেটর বিক্রির পরিকল্পনায় শেয়ারহোল্ডারদের সম্মতির জন্য ইজিএমও আহ্বান করা হয়।

সর্বশেষ এজিএমে ২০১৪ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের দেয়া ১৫ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ অনুমোদন হওয়ায় গত নভেম্বরে স্টক এক্সচেঞ্জে ‘এন’ থেকে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে উন্নীত হয় সুহূদ ইন্ডাস্ট্রিজ। তখন কোম্পানির নিট মুনাফা ছিল ৫ কোটি ১৫ লাখ ২০ হাজার টাকা, ২০১৫ সালে যেখানে ১৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা লোকসান হয়। লভ্যাংশ না দেয়ার ঘোষণায় কোম্পানিটিকে জানুয়ারিতে ‘জেড’ ক্যাটাগরিতে নামিয়ে আনে স্টক এক্সচেঞ্জ কর্তৃপক্ষ।

সর্বশেষ অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুসারে, চলতি হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে সুহূদ ইন্ডাস্ট্রিজ শেয়ারপ্রতি ৩ পয়সা লোকসান করেছে, আগের বছর একই সময়ে যেখানে শেয়ারপ্রতি আয় ছিল ৪০ পয়সা।

২০১৪ সালে শেয়ারবাজারে আসার পর কোম্পানিটির এজিএম নিয়ে অস্পষ্টতা ছিল। পরিচালকদের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ আদালত পর্যন্ত গড়ায়। আদালতের নির্দেশে এসব সমস্যা কাটিয়ে উঠে গত বছরের শেষ দিকে এজিএম সম্পন্ন করে তারা।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ/জেড

পপুলার লাইফের বোর্ড সভা ৯ জুন

popular-smbdস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত বিমা খাতের প্রতিষ্ঠান পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের বোর্ড সভা আহ্বান করা হয়েছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

আগামী ৯ জুন বেলা ২ টায় নিজেদের প্রধান কার্যালয়ে এ বোর্ড সভা অনুষ্ঠিত হবে।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (লিস্টিং)আইন-২০১৫ অনুযায়ী, এ বোর্ড সভায় ২০১৫ অর্থবছরের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করা হবে। এ সভায় শেয়ারহোল্ডারদের জন্য লভ্যাংশ আসতে পারে।

এছাড়া এজিএম ও রেকর্ড ডেট জানানো হবে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ/জেড

বিএসইসির সাথে বৈঠকে শেয়ারবাজারের উন্নয়ন চায় ডিএসই

dse bsecনিজস্ব প্রতিবেদক :

শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) সাথে বৈঠক করেছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)। বৈঠকে শেয়ারবাজারের সমসাময়ীক অবস্থা ও বাজার উন্নয়নে ১০ ইস্যু নিয়ে আলোচনা করেছে ডিএসই কর্তৃপক্ষ। ডিএসই’র পক্ষ থেকে বলা হয়, বর্তমান পরিস্থিতি এ বিষয়গুলোতে পদক্ষপ গ্রহণ করা হলে বাজারেরে প্রতি বিনিয়োগকারীদের আস্থা বাড়বে।

ডিএসই সূত্রে জানা যায়, বৈঠকে বর্তমান বাজার পরিস্থিতিতে সিডিবিএল এর বিভিন্ন ফি-যেমন সেটেলমেন্ট, লেনদেন, স্থানান্তর ও প্রেরণ, ডিমেট ও রিমেট, কর্পোরেট এ্যাকশন ইস্যুতে কথা বলে ডিএসই।
ডিএসই’র পক্ষ থেকে বলা হয়, বাজারের বর্তমান অবস্থায় সিডিবিএলের চার্জ কমানো জরুরি।

এদিকে, শেয়ারবাজারের পরিধিকে বিস্তৃত করার উদ্দেশ্যে সরকারি ট্রেজারি বন্ড কিভাবে লেনদেন করা যায় সে বিষয়ে প্রতিবন্ধকতা দূর করা। ডিএসই’ সূত্র বলছে, শেয়ারবাজারে বর্তমানে ২২১টি ট্রেজারি বন্ড রয়েছে কিন্তু বাংলাদেশ ব্যাংকের কিছু বাধ্যবাধকতার কারণে ট্রেজারি বন্ডগুলো নন-ট্রেডাবল অবস্থানে রয়েছে।

আজ বিএসইসির সাথে আলোচনায় ডিএসই’র পক্ষ থেকে আসন্ন ২০১৬-২০১৭ জাতীয় বাজেটে ডিএসই’র প্রস্তাবনাসমূহ বাস্তবায়নের উদ্যোগ গ্রহনের কথা বলা হয়।
সূত্র বলছে, নিয়ন্ত্রক সংস্থার সক্রিয়তা অব্যাহত থাকলে বাজাটে ডিএসই’র প্রস্তাবিত ইস্যুগুলো যথাযথভাবে গ্রহীত হবে। এতে করে পুঁজিবাজারে ইতিবাচক প্রভাব পড়বে।

এদিকে, মার্কেট মেকার রুল প্রণয়ন কথা বলে ডিএসই। সূত্র জানায়, মার্কেট মেকার রুল প্রণয়ন করা হলে বিনিয়োগকারীরা বাজারের প্রতি আরো আস্থা ফিরে পাবে। যা পুঁজিবাজারের স্থিতিশীলতা ফিরাতে সাহায্য করবে।

এছাড়াও ডিএসই’র স্টেটেজিক পার্টনার বিষয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়। ডিএসই’র পক্ষ থেকে চলতি বছরেই স্টেটেজিক পার্টনার খুজে বের করা হবে বলে জানানো হয়।

এদিকে, স্বল্পমূলধনী কোম্পানিগুলো নিয়ে পৃথক মার্কেট, ইএফটি ফান্ড দ্রুত গঠন, বিনিয়োগকারীগনের সচেতনা বৃদ্ধিতে দ্রুত ফিন্যান্সশিয়াল লিটেরাজি প্রো্গ্রাম, নতুন ব্রোকারেজ হাউজের মোবাইল বুথ/সার্ভিস সেন্টার চালু , কোম্পানি সম্পর্কে সহজে তথ্য প্রাপ্তির লক্ষ্যে প্রত্যেকটি তালিকাভুক্ত কোম্পানিসমূহের কাস্টমার সার্ভিস সাপোর্ট ডেস্ক চালু এবং ফ্রি মার্জিন লিমিট ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়।

শেয়ারবাজারের স্বার্থে ডিএসই দেওয়া এসব প্রস্তাবনা বাস্তবায়নের আশ্বাস প্রদান করে বিএসইসি। এছাড়াও শিগগিরই ক্লিয়ারিং ও সেটেলমেন্ট কোম্পানি গঠন এবং এ সংক্রান্ত আইনের খসড়া প্রণয়ন করার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে বলে বিএসইসি’র পক্ষ থেকে জানানো হয়। শেয়ারবাজারে স্বল্প মূলধনের প্রতিষ্ঠান সমূহে অর্থায়ন ও তালিকাভুক্তির জন্য একটি পৃথক বোর্ড অর্থাৎ স্মল ক্যাপ বোর্ড গঠন এবং শেয়ারবাজারে নতুন পণ্য এক্সচেঞ্জ ট্রেডেড ফান্ড (ইটিএফ) চালুর বিষয়ে উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে।

ডিএসই’র পক্ষ থেকে জানানো হয়, বিএসসি’র পক্ষ থেকে ডিএসই’র আলোচিত ইস্যুগুলো নিয়ে দ্রুত প্রদক্ষপ নেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।
বিএসইসি’র পক্ষ থেকে জানানো হয়, ইটিএফ চালুর ব্যাপারে পত্রিকার মাধ্যমে জনমত আহ্বান করা হয়েছে। যা বাস্তবায়িত হলে বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগের ক্ষেত্রে নতুন মাত্রা যোগ করবে। এছাড়াও খুব শীঘ্রই মার্কেট মেকার রুল প্রণয়ন করা হবে। বিনিয়োগকারীদের সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে দেশব্যাপি ফিনান্সিয়াল লিটারেসি প্রোগ্রাম চালু করা হবে।

ডিএসই’র প্রতিনিধিদলে চেয়ারম্যানসহ নয়জন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে বিএসইসি’র তিন কমিশনার হেলাল উদ্দিন নিজামী, আমজাদ হোসেন ও ড.স্বপন কুমার বালা কমিশনের প্রতিনিধিত্ব করেন।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএ

কন্টিনেন্টাল ইন্স্যুরেন্স পরিচালকের শেয়ার হস্তান্তর

continental-smbdস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত বিমা খাতের কোম্পানি কন্টিনেন্টাল ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের একজন পরিচালক হাতে থাকা সব শেয়ার হস্তান্তরের ঘোষণা দিয়েছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র থেকে জানা যায়, মোহাম্মদ ইকবাল নামের এই স্পন্সর পরিচালক সব শেয়ার তার স্ত্রী ডলি ইকবালকে হস্তান্তর করবেন।

তার হাতে মোট ৬ লাখ ২৭ হাজার ৮৮০ টি শেয়ার রয়েছে। এসব শেয়ার হাতবদল করবেন তিনি।

সিএসই জানায়, তারা ঘোষণার ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে এই হাতবদল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করবেন।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএ

মার্কেন্টাইল ব্যাংক পরিচালকের শেয়ার ক্রয়

mercantilস্টকমার্কেট ডেস্ক:

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংকিং খাতের কোম্পানি মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেডের এক জন উদ্দোক্তা শেয়ার ক্রয়ের ঘোষণা দিয়েছেন। টাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

মো: নাসির উদ্দিন চৌধুরী নামে ব্যাংকের এই উদ্যোক্তা ৫ লাখ শেয়ার বাজার দরে ক্রয় করবেন।

তিনি এই ঘোষণার ৩০ কার্য দিনের মধ্যে উল্লেখিত পরিমাণ শেয়ার ক্রয় করবেন বলে ব্যাংকটির পক্ষ থেকে জানানো হয়।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমআর