বিএসইসির সাথে বৈঠকে শেয়ারবাজারের উন্নয়ন চায় ডিএসই

dse bsecনিজস্ব প্রতিবেদক :

শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) সাথে বৈঠক করেছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)। বৈঠকে শেয়ারবাজারের সমসাময়ীক অবস্থা ও বাজার উন্নয়নে ১০ ইস্যু নিয়ে আলোচনা করেছে ডিএসই কর্তৃপক্ষ। ডিএসই’র পক্ষ থেকে বলা হয়, বর্তমান পরিস্থিতি এ বিষয়গুলোতে পদক্ষপ গ্রহণ করা হলে বাজারেরে প্রতি বিনিয়োগকারীদের আস্থা বাড়বে।

ডিএসই সূত্রে জানা যায়, বৈঠকে বর্তমান বাজার পরিস্থিতিতে সিডিবিএল এর বিভিন্ন ফি-যেমন সেটেলমেন্ট, লেনদেন, স্থানান্তর ও প্রেরণ, ডিমেট ও রিমেট, কর্পোরেট এ্যাকশন ইস্যুতে কথা বলে ডিএসই।
ডিএসই’র পক্ষ থেকে বলা হয়, বাজারের বর্তমান অবস্থায় সিডিবিএলের চার্জ কমানো জরুরি।

এদিকে, শেয়ারবাজারের পরিধিকে বিস্তৃত করার উদ্দেশ্যে সরকারি ট্রেজারি বন্ড কিভাবে লেনদেন করা যায় সে বিষয়ে প্রতিবন্ধকতা দূর করা। ডিএসই’ সূত্র বলছে, শেয়ারবাজারে বর্তমানে ২২১টি ট্রেজারি বন্ড রয়েছে কিন্তু বাংলাদেশ ব্যাংকের কিছু বাধ্যবাধকতার কারণে ট্রেজারি বন্ডগুলো নন-ট্রেডাবল অবস্থানে রয়েছে।

আজ বিএসইসির সাথে আলোচনায় ডিএসই’র পক্ষ থেকে আসন্ন ২০১৬-২০১৭ জাতীয় বাজেটে ডিএসই’র প্রস্তাবনাসমূহ বাস্তবায়নের উদ্যোগ গ্রহনের কথা বলা হয়।
সূত্র বলছে, নিয়ন্ত্রক সংস্থার সক্রিয়তা অব্যাহত থাকলে বাজাটে ডিএসই’র প্রস্তাবিত ইস্যুগুলো যথাযথভাবে গ্রহীত হবে। এতে করে পুঁজিবাজারে ইতিবাচক প্রভাব পড়বে।

এদিকে, মার্কেট মেকার রুল প্রণয়ন কথা বলে ডিএসই। সূত্র জানায়, মার্কেট মেকার রুল প্রণয়ন করা হলে বিনিয়োগকারীরা বাজারের প্রতি আরো আস্থা ফিরে পাবে। যা পুঁজিবাজারের স্থিতিশীলতা ফিরাতে সাহায্য করবে।

এছাড়াও ডিএসই’র স্টেটেজিক পার্টনার বিষয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়। ডিএসই’র পক্ষ থেকে চলতি বছরেই স্টেটেজিক পার্টনার খুজে বের করা হবে বলে জানানো হয়।

এদিকে, স্বল্পমূলধনী কোম্পানিগুলো নিয়ে পৃথক মার্কেট, ইএফটি ফান্ড দ্রুত গঠন, বিনিয়োগকারীগনের সচেতনা বৃদ্ধিতে দ্রুত ফিন্যান্সশিয়াল লিটেরাজি প্রো্গ্রাম, নতুন ব্রোকারেজ হাউজের মোবাইল বুথ/সার্ভিস সেন্টার চালু , কোম্পানি সম্পর্কে সহজে তথ্য প্রাপ্তির লক্ষ্যে প্রত্যেকটি তালিকাভুক্ত কোম্পানিসমূহের কাস্টমার সার্ভিস সাপোর্ট ডেস্ক চালু এবং ফ্রি মার্জিন লিমিট ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়।

শেয়ারবাজারের স্বার্থে ডিএসই দেওয়া এসব প্রস্তাবনা বাস্তবায়নের আশ্বাস প্রদান করে বিএসইসি। এছাড়াও শিগগিরই ক্লিয়ারিং ও সেটেলমেন্ট কোম্পানি গঠন এবং এ সংক্রান্ত আইনের খসড়া প্রণয়ন করার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে বলে বিএসইসি’র পক্ষ থেকে জানানো হয়। শেয়ারবাজারে স্বল্প মূলধনের প্রতিষ্ঠান সমূহে অর্থায়ন ও তালিকাভুক্তির জন্য একটি পৃথক বোর্ড অর্থাৎ স্মল ক্যাপ বোর্ড গঠন এবং শেয়ারবাজারে নতুন পণ্য এক্সচেঞ্জ ট্রেডেড ফান্ড (ইটিএফ) চালুর বিষয়ে উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে।

ডিএসই’র পক্ষ থেকে জানানো হয়, বিএসসি’র পক্ষ থেকে ডিএসই’র আলোচিত ইস্যুগুলো নিয়ে দ্রুত প্রদক্ষপ নেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।
বিএসইসি’র পক্ষ থেকে জানানো হয়, ইটিএফ চালুর ব্যাপারে পত্রিকার মাধ্যমে জনমত আহ্বান করা হয়েছে। যা বাস্তবায়িত হলে বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগের ক্ষেত্রে নতুন মাত্রা যোগ করবে। এছাড়াও খুব শীঘ্রই মার্কেট মেকার রুল প্রণয়ন করা হবে। বিনিয়োগকারীদের সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে দেশব্যাপি ফিনান্সিয়াল লিটারেসি প্রোগ্রাম চালু করা হবে।

ডিএসই’র প্রতিনিধিদলে চেয়ারম্যানসহ নয়জন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে বিএসইসি’র তিন কমিশনার হেলাল উদ্দিন নিজামী, আমজাদ হোসেন ও ড.স্বপন কুমার বালা কমিশনের প্রতিনিধিত্ব করেন।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএ

কন্টিনেন্টাল ইন্স্যুরেন্স পরিচালকের শেয়ার হস্তান্তর

continental-smbdস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত বিমা খাতের কোম্পানি কন্টিনেন্টাল ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের একজন পরিচালক হাতে থাকা সব শেয়ার হস্তান্তরের ঘোষণা দিয়েছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র থেকে জানা যায়, মোহাম্মদ ইকবাল নামের এই স্পন্সর পরিচালক সব শেয়ার তার স্ত্রী ডলি ইকবালকে হস্তান্তর করবেন।

তার হাতে মোট ৬ লাখ ২৭ হাজার ৮৮০ টি শেয়ার রয়েছে। এসব শেয়ার হাতবদল করবেন তিনি।

সিএসই জানায়, তারা ঘোষণার ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে এই হাতবদল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করবেন।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএ

মার্কেন্টাইল ব্যাংক পরিচালকের শেয়ার ক্রয়

mercantilস্টকমার্কেট ডেস্ক:

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংকিং খাতের কোম্পানি মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেডের এক জন উদ্দোক্তা শেয়ার ক্রয়ের ঘোষণা দিয়েছেন। টাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

মো: নাসির উদ্দিন চৌধুরী নামে ব্যাংকের এই উদ্যোক্তা ৫ লাখ শেয়ার বাজার দরে ক্রয় করবেন।

তিনি এই ঘোষণার ৩০ কার্য দিনের মধ্যে উল্লেখিত পরিমাণ শেয়ার ক্রয় করবেন বলে ব্যাংকটির পক্ষ থেকে জানানো হয়।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমআর

ডিএসইতে ৪৬৩ কোটি টাকার লেনদেন

DSE_CSE-smbdনিজস্ব প্রতিবেদক :

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) দিনশেষে লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৪৬৩ কোটি টাকা। তবে এদিন সব ধরণের মূল্য সূচকের বড় ধরণের উত্থান হয়েছে। অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) লেনদেন হয়েছে প্রায় ৩০ কোটি টাকা।

সোমবার দিনশেষে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) লেনদেন হয়েছে ৪৬৩ কোটি ৭০ লাখ টাকার শেয়ার। যা গতকাল রবিবার ছিল ৪২৭ কোটি ৯৬ লাখ টাকা। এহিসাবে এদিন লেনদেন প্রায় ৩৬ কোটি টাকা বেড়েছে।

এদিন ডিএসইতে ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৩.৭৭ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৪৪২৩ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ১.৯৫ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১০৮৯ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ০.৯৭ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৭৩৩ পয়েন্টে।

এদিন দিনভর লেনদেন হওয়া ৩১৭টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১০৭ টির, কমেছে ১৫৭ টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৩টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার দর।

ডিএসইতে টাকার অঙ্কে লেনদেনে শীর্ষ কোম্পানিগুলো হচ্ছে- তিতাস গ্যাস, লাফার্জ সুরমা, সাইফ পাওয়ার, এমজেএল বিডি, শাহজিবাজার পাওয়ার, লিন্ডে বিডি, বিএসআরএম লি., সাপোর্ট, ইউনাইটেড এয়ার ও ইসলামী ব্যাংক।

এদিকে অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ২৮ কোটি ৮৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। রবিবার সেখানে ২৯ কোটি ৭৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

এদিন সিএসই সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ২৩ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৩ হাজার ৬০৮ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৩৪টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৮৪টির, কমেছে ১১৬ টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৪ টির।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম/এলকে

সাউথইস্ট ব্যাংক ৭.৭০ লাখ শেয়ার ক্রয় করবে

southest-smbdস্টকমার্কেট ডেস্ক:

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংকিং খাতের কোম্পানি সাউথইস্ট ব্যাংক লিমিটেডের দুই জন উদ্দোক্তা শেয়ার ক্রয়ের ঘোষণা দিয়েছেন। টাকা স্টক একচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

রেহানা রহমান নামে ব্যাংকের এক উদ্যোক্তা ৫ লাখ এবং সিলভানা মাসুদ আকবানী ২ লাখ ৭০ হাজার শেয়ার বাজারদরে ক্রয় করবেন।

তিনি এই ঘোষণার ৩০ কার্য দিনের মধ্যে উল্লেখিত পরিমাণ শেয়ার ক্রয় করবেন বলে ব্যাংকটির পক্ষ থেকে জানানো হয়।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমআর

মার্জিনধারীদের তথ্য চায় ইউনাইটেড পাওয়ার

unitedস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত বিদ্যুৎ ও জ্বালানী খাতের কোম্পানি ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড ব্রোকারেজ হাউজগুলোর কাছ থেকে মার্জিন ঋণধারীদের তথ্য চেয়েছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

কোম্পানিটি ব্রোকারেজ হাউজগুলোর কাছে মার্জিন ঋণধারীদের নাম, বিও হিসাবের তথ্য, ইটিএন এবং শেয়ারহোল্ডিং পজিশন নম্বর চেয়েছে। এছাড়া সংশ্লিষ্ট ব্রোকারেজ হাউজগুলোকে লভ্যাংশ পাওয়ার জন্য বেনিফিসিয়ারি নাম (ডিপি) ব্যাংক হিসাবের নাম, নম্বর ও রাউটিং নম্বর patoary@united.com.bd অথবা atiq@united.com.bd মেইল করতে বলা হয়েছে।

হাউজগুলোকে এই সব তথ্য আগামী ২ জুনের মধ্যে পাঠাতে অনুরোধ করেছে কোম্পানিটি।
স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএ

২R:১ হারে রাইট ছাড়াবে সাইফ পাওয়ারটেক

SAIF powerস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত প্রকৌশল খাতের তালিকাভুক্ত সেবা ও আবাসন খাতের সাইফ পাওয়ারটেক লিমিটেড রাইট শেয়ার ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

সূত্র জানায়, কোম্পানিটি ২R:১ অনুপাতে (১টি সাধারণ শেয়ারের বিপরীতে দুটি রাইট শেয়ার) প্রতিটি ২০ টাকা দরে (১০ টাকা প্রিমিয়াম) রাইট শেয়ার ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

জানা যায়, কোম্পানিটি রাইট শেয়ারের মাধ্যমে উত্তোলিত অর্থ দিয়ে ব্যাটারি প্রজেক্ট বর্ধিত করবে। এছাড়া কোম্পানিটির তাদের প্রয়োজনীয় চলতি মূলধনের যোগান দেয়ার পাশাপাশি ঋণ পরিশোধের কাজে রাইটের অর্থ ব্যবহার করবে। এ সংক্রান্ত রেকর্ড ডেট ১৯ জুন নির্ধারণ করা হয়েছে।

রাইট শেয়ার ছাড়ার বিষয়ে শেয়ারহোল্ডারদের অনুমোদনের জন্য কোম্পানির বিশেষ সাধারণ সভা (ইজিএম) আগামী ১৭ জুলাই বিকাল সাড়ে ৩ টায় আর্মি গলফ ক্লাব, ঢাকা ক্যাণ্টনমেন্ট,ঢাকায় অনুষ্ঠিত হবে।

ইজিএমে বিনিয়োগকারীদের সম্মতি মিললে সাইফ পাওয়ারটেক রাইট ইস্যুর পরবর্তী কার্যক্রম সম্পন্ন করবে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএ

সহযোগী প্রতিষ্ঠানের মূলধন বাড়াবে এবি ব্যাংক

ab-smbdস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত এবি ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদ সহযোগী প্রতিষ্ঠান এবি ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডের পরিশোধিত মূলধন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, এবি ব্যাংক সহযোগী প্রতিষ্ঠানের মূলধন ২৯৮ কোটি টাকা থেকে ৬০০ কোটি টাকা পর্যন্ত বাড়াবে। এবি ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডের ব্যবসা সম্প্রসারণের জন্য এই মূলধন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ব্যাংকটি।

উল্লেখ্য, এবি ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডের ৯৯ ভাগ মালিকানা রয়েছে এবি ব্যাংকের। নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) অনুমোদন পেলেই মূলধন বাড়াবে ব্যাংকটি।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএ

সিনো-বাংলার দ্বিতীয় প্রান্তিকের ইপিএস

sinoস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত প্রকৌশল খাতের কোম্পানি সিনো-বাংলা লিমিটেডের চলতি হিসাব বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে শেয়ার প্রতি আয় বা ইপিএস বেড়েছে। এসময় ইপিএস এসেছে ৩৪ পয়সা। আগের বছর একই সময় কোম্পানিটির ইপিএস ছিল ৮ পয়সা। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

কোম্পানিটির প্রথম প্রান্তিকের (ফেব্রু, ১৬ – এপ্রিল, ১৬) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদনে এ তথ্য বেরিয়ে আসে।

এ সময় পর্যন্ত কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি মোট সম্পদ দাঁড়িয়েছে ২৫.৫৮ টাকা। আগের প্রান্তিকে এই সম্পদ ছিল ২৪.৬৫ টাকা।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএ