শেয়ারবাজারের টাকা অর্থনীতিতে ভালো ভূমিকা রেখেছে: অর্থমন্ত্রী

Muhit2-SM20160602163058স্টকমার্কেট ডিস্ক :

গত বছর শেয়ারবাজার থেকে প্রায় ১৪ হাজার কোটি টাকা উত্তোলিত হয়ে নানা খাতে ব্যবহৃত হচ্ছে, যা অর্থনীতিতে ভালো ভূমিকা রেখেছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত।

আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে ২০১৬-১৭ সালের প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপনের সময় বাজেট বক্তৃতায় অর্থমন্ত্রী এ কথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন সংস্থাসমূহের ফাইন্যান্সিয়াল রিপোর্টিংকে একটি সুনিয়ন্ত্রিত কাঠামোর আওতায় আনয়ন, হিসাব ও নিরীক্ষা পেশার প্রমিতমান প্রণয়ন, প্রতিপালন, বাস্তবায়ন ও তদারকির জন্য ফাইন্যান্সিয়াল রিপোর্টিং কাউন্সিল গঠনের বিষয়ে অনেকদিন ধরে কাজ করছিলাম। এ কাউন্সিল গঠনে আমরা ফাইন্যান্সিয়াল রিপোর্টিং আইন, ২০১৫ পাশ করেছি। কিন্তু কাউন্সিলটি এখনও প্রতিষ্ঠা করা হয়নি। এ কাজটি ২০১৬-১৭ অর্থবছরের মধ্যেই সম্পন্ন হবে।

তিনি বলেন, শেয়ারবাজারের শৃঙ্খলা বজায় রাখা, বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ রক্ষা, সিকিউরিটিজ আইন প্রতিপালন ও প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বিভিন্ন সংস্কার কার্যক্রম অব্যাহত আছে। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (পাবলিক ইস্যু) রুলস, ২০১৫ প্রণীত হয়েছে। এতে অভিহিত মূল্যে আইপিও’র জন্য ফিক্সড প্রাইস পদ্ধতি এবং প্রিমিয়ামসহ আইপিও’র জন্য বুক বিল্ডিং পদ্ধতির বাধ্যবাধকতা আরোপ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, আগামী ২০১৬-১৭ অর্থবছরের মধ্যেই ফাইন্যান্সিয়াল রিপোর্টিং কাউন্সিল গঠন করা হবে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম

মার্কেন্টাইল ব্যাংকের ৭ লাখ শেয়ার কিনবে

mercantilস্টকমার্কেট ডেস্ক:

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংকিং খাতের কোম্পানি মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেডের একজন উদ্দোক্তা পরিচালক ব্যাংকটির ৭ লাখ শেয়ার ক্রয়ের ঘোষণা দিয়েছেন। ঢাকা স্টক একচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

মো: আনোয়ারুল হক নামে ব্যাংকের এই উদ্যোক্তা ৭ লাখ শেয়ার বাজার দরে ক্রয় করবেন।

আর এই ঘোষণার ৩০ কার্য দিনের মধ্যে উল্লেখিত পরিমাণ শেয়ার বর্তমান বাজার দরে ক্রয় করবেন বলে ব্যাংকটির পক্ষ থেকে জানানো হয়।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমআর

সাফকো স্পিনিং ‘এ’ থেকে ‘বি’ ক্যাটাগরিতে

safko-smbdস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত বস্ত্র খাতের প্রতিষ্ঠান সাফকো স্পিনিং মিলস লিমিটেডের ক্যাটাগরি পরিবর্তন করেছে ডিএসই। এই কোম্পানি ৩১ ডিসেম্বর ২০১৫ সালের সমাপ্ত অর্থবছরে ৩ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দেওয়ায় ‘এ’ থেকে ‘বি’ ক্যাটাগরিতে আনা হয়েছে। সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

সিএসই জানায়, আগামী ৫ জুন রবিবার থেকে কোম্পানিটি ‘বি’ ক্যাটাগরিতে লেনদেন করবে শেয়ারবাজারে।

গত বছর কোম্পানিটি ৩১ ডিসেম্বর ২০১৫ সালের সমাপ্ত অর্থ বছরে সাধারণ শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ৩ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ দেয়।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমআর

  1. শাহজিবাজার পাওয়ার
  2. বেক্সিমকো লি.
  3. ইউনাইটেড এয়ার
  4. লাফার্জ সুরমা
  5. তিতাস গ্যাস
  6. বেক্স ফার্মা
  7. বাংলাদেশ সাবমেরিন
  8. ইউনাইটেড পাওয়ার
  9. ডরিন পাওয়ার
  10. স্কয়ার ফার্মা।

ডিএসইতে ৪৯৩ ও সিএসইতে ৩৮ কোটি টাকার লেনদেন

index upনিজস্ব প্রতিবেদক :

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) দিনের লেনদেন ৪৯৩ কোটি টাকা হয়েছে। অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) লেনদেন ৩৮ কোটি টাকা ছাড়িয়েছে। আর দুই শেয়ারবাজারেই মূল্য সূচক আগের দিনের দিনের চেয়ে বেড়েছে।

বৃহস্পতিবার দিনশেষে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) লেনদেন হয়েছে ৪৯৩ কোটি ৫২ লাখ টাকার শেয়ার। যা গতকাল বুধবার ছিল ৩৫৮ কোটি ৭ লাখ টাকা। এহিসাবে এদিন লেনদেন প্রায় ১৩৫ কোটি টাকা বেড়েছে।

এদিন ডিএসইতে ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ২৪.২৯ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৪৪৪৬ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৫.৪৩০ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১০৯৬ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১৫.০৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৭৬১ পয়েন্টে।

এদিন দিনভর লেনদেন হওয়া ৩০৮টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৬৭ টির, কমেছে ৯৬ টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৫টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার দর।

ডিএসইতে টাকার অঙ্কে লেনদেনে শীর্ষ কোম্পানিগুলো হচ্ছে- শাহজিবাজার পাওয়ার, বেক্সিমকো লি., ইউনাইটেড এয়ার, লাফার্জ সুরমা, তিতাস গ্যাস, বেক্স ফার্মা, বাংলাদেশ সাবমেরিন, ইউনাইটেড পাওয়ার, ডরিন পাওয়ার ও স্কয়ার ফার্মা।

এদিকে বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ৩৮ কোটি ৭২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। বুধবার সেখানে ২৫ কোটি ৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

এদিন সিএসই সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৮০ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩ হাজার ৬৯৭ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৩০টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১১৬টির, কমেছে ৭২ টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪২ টির।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম/এলকে

ইভেন্সি টেক্সটাইলের লটারি ফল প্রকাশ

EVANCETEX_bg20160602072324স্টকমার্কেট ডেস্ক :

ইভেন্সি টেক্সটাইল লিমিটেডের লটারির ড্র বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হয়েছে। রাজধানীতে সকালে লটারির ড্র অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন ইভিন্স টেক্সটাইল লিমিটেডের চেয়ারম্যান আনোয়ারুল আলম চৌধুরী।

মহাখালীর রাওয়া কনভেনশন সেন্টারে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু কাউসার মজুমদার, ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে লংকাবাংলা ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডের খন্দকার কায়েস হাসান ও সেটকম লিমিটেডের চেয়ারম্যান মো. ওয়ালীওল্লাহসহ অনেক বিনিয়োগকারী।

এ কোম্পানির আইপিওতে ৩৩ গুণ আবেদন জমা পড়ে। শেয়ারবাজার থেকে ১৭ কোটি টাকা সংগ্রহ করবে ইভেন্স টেক্সটাইল। কোম্পানিটি ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে শেয়ার ইস্যু করার অনুমোদন পায়।

২০১৫ সালের ডিসেম্বরে শেষ হওয়া হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) করেছে ১ টাকা ৬২ পয়সা। আর শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৭ টাকা ৬২ পয়সা।

তালিকাভুক্তির পর এটি হবে শেয়ারবাজারে ইভেন্সি গ্রুপের দ্বিতীয় কোম্পানি। এর আগে ২০১৩ সালে একই গ্রুপের আর্গন ডেনিমস লিমিটেড দেশের দুই স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত হয়।

স্টকমার্কেটবিডি.কমএম

 

লটারি ফল :

 

Stock Broker / Merchant Bank Code

General Public

Non-Residence Bangladeshi (NRB)

Affected Small Investors

Mutual Fund

Eligible Investors (Other than Mutual Fund)

উভয় এক্সচেঞ্জেই একমি ল্যাবরেটরিজ তালিকাভুক্ত

acmeeস্টকমার্কেট ডেস্ক :

দেশের উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্তির অনুমোদন পেয়েছে একমি ল্যাবরেটরিজ। আগামী জুন মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে এ কোম্পানির শেয়ার লেনদেন শুরু হতে পারে বলে কোম্পানি সূত্রে জানা গেছে।

সূত্রটি জানায়, কোম্পানিটি ডিএসই এবং সিএইতে তালিকাভুক্তির অনুমোদন পেয়েছে। তবে আমরা এখনো স্টক এক্সচেঞ্জ থেকে কাগজপত্র পাইনি। এছাড়া আগামী সপ্তাহে কোম্পানির শেয়ার লেনদেন শুরু হতে পারে বলে তিনি জানান।

গত ১৫ মে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে হলে এ ড্র অনুষ্ঠান হয়।

এর আগে একমি ল্যাবরেটরিজের প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) আবেদন গ্রহণ ১১ এপ্রিল হতে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত চলে।

গত ২৩ ফেব্রুয়ারি শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) একমি ল্যাবরেটরিজের আইপিও অনুমোদন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। বুক বিল্ডিং পদ্ধতির পুরনো বিধি অনুযায়ী, ইলেট্রনিক বিডিং প্রক্রিয়ায় এর শেয়ারদর নির্ধারিত হয়েছে ৮৫ টাকা ২০ পয়সা। নতুন বিধি অনুযায়ী ১০ শতাংশ কম দামে সাধারণ বিনিয়োগকারী ও প্রবাসীদের কাছে শেয়ার বিক্রির নির্দেশ দিয়েছে বিএসইসি। এতে কোম্পানিটির শেয়ারদর নির্ধারিত হয়েছে ৭৭ টাকা।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম/এ