এমবি ফার্মার ২৬ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা

ambee..smbdস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ওষুধ ও রসায়ন খাতের কোম্পানি এমবি ফার্মাসিটিক্যালস লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদ শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ২৬ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, ৩০ জুন ২০১৬ পর্যন্ত গত ১৮ মাসের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা শেষে এই লভ্যাংশ দিয়েছে কোম্পানিটি।

এবছর কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় এসেছে ৩ টাকা ৪১ পয়সা। আর ৩০ জুন পর্যন্ত শেয়ার প্রতি সম্পদের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ২৪ টাকা ৮২ পয়সা।

আগামী ২৯ ডিসেম্বর কোম্পানির বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হবে। এ জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ১৪ ডিসেম্বর।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এস

  1. বিএটিবিসি
  2. এবি ব্যাংক
  3. বাংলাদেশ বিল্ডিং সিষ্টেমস
  4. সিএমসি কামাল
  5. গ্রামীণফোন
  6. স্কয়ার ফার্মা
  7. গোল্ডেন হার্ভেষ্ট
  8. ফরচুন সুজ
  9. ড্রাগণ সোয়েটার
  10. কাশেম ড্রাইসেল।

ডরিন পাওয়ারে উৎপাদন ক্ষমতা বেড়েছে

DOREEN-POWERস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়ার পরে ডরিন পাওয়ার জেনারেশন অ্যান্ড সিষ্টেমসের ২টি সাবসিডিয়ারি প্রতিষ্ঠান বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরু করেছে। এতে কোম্পানির সার্বিক উৎপাদন সক্ষমতা বেড়ে প্রায় ৩ গুণ হয়েছে।

উৎপাদন সক্ষমতার পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানটির মুনাফায়ও ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে। ফলে চলতি অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) ডরিন পাওয়ারের মুনাফা ৫১৭ শতাংশ বেড়েছে। তবে সাবসিডিয়ারি ঢাকা নর্দার্ন পাওয়ার এই প্রান্তিকের শুরুতে উৎপাদন শুরু করতে পারলে মুনাফা আরও বেশি হতো বলে কোম্পানির আশাবাদ।

ডরিন পাওয়ার ৬৬ মেগাওয়াট পাওয়ার প্লান্ট নিয়ে যাত্রা শুরু করলেও এরইমধ্যে ২ সাবসিডিয়ারি ঢাকা সাউদার্ন পাওয়ার ও ঢাকা নর্দান পাওয়ার উৎপাদন শুরু করেছে। এরমধ্যে ঢাকা সাউদার্ন পাওয়ার চলতি বছরের ১৭ জুন ও ঢাকা নর্দান পাওয়ার ১৭ আগষ্ট উৎপাদন শুরু করেছে। এই ২ সাবসিডিয়ারি প্রতিষ্ঠানের ১১০ উৎপাদন মেগাওয়াট পাওয়ার প্লান্ট রয়েছে। এ হিসাবে ডরিন পাওয়ারের ১৬৭ শতাংশ উৎপাদন সক্ষমতা বেড়ে প্রায় ২.৬৭ গুণ হয়েছে।

কোম্পানি সূত্রে জানা গেছে, ডরিন পাওয়ার ১১৫ মেগাওয়াট পাওয়ার প্লান্টের বিডিংয়ে অংশগ্রহন করেছে। যেখানে সর্বনিম্ন রেট দেওয়ায় তালিকার প্রথম স্থানে রয়েছে ডরিন পাওয়ার। এ অনুমোদন পেলে কোম্পানিটির উৎপাদন সক্ষমতা দাড়াবে ২৯১ মেগাওয়াটে। এতে আইপিও পূর্বের তুলনায় ডরিন পাওয়ারের উৎপাদন সক্ষমতা ৩১৪ শতাংশ বেড়ে হবে ৪.১৪ গুণে।

ডিএসই’র তথ্যমতে, শুধুমাত্র ঢাকা নর্দার্ন জেনারেশন উৎপাদনে বার্ষিক আয় হবে ৩১৩ কোটি ৭৪ লাখ টাকা। আর এ কোম্পানির ৯৮.৫২ শতাংশ শেয়ার ধারণ করে ডরিন পাওয়ার জেনারেশন। এ হিসাবে ডরিন পাওয়ারের আয় বাড়বে ৩০৯ কোটি ১০ লাখ টাকা। এছাড়া আরেক সাবসিডিয়ারি ঢাকা সাউদার্ন পাওয়ার থেকেও ডরিন পাওয়ারের প্রায় ৩০৯ কোটি টাকা আয় হবে।

দেখা গেছে, ডরিন পাওয়ার জেনারেশন অ্যান্ড সিষ্টেমস ১ম প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) প্রতিটি শেয়ারে ২.২২ টাকা মুনাফা করেছে। যা আগের বছরের একই সময়ে হয়েছিল ০.৩৬ টাকা। এ হিসাবে কোম্পানিটির ইপিএস বেড়েছে ৫১৭ শতাংশ। যদিও এরমধ্যে ঢাকা ঢাকা নর্দান পাওয়ার মাত্র ১ মাস ১৩ দিন বা অর্ধেক বাণিজ্যিক কার্যক্রম পরিচালনা করেছে।

ডরিন পাওয়ারের প্রধান অর্থ কর্মকর্তা (সিএফও) আফরোজ আলম বলেন, এরইমধ্যে আমাদের ২টি সাবসিডিয়ারি প্রতিষ্ঠান উৎপাদন শুরু করেছে। যার ইতিবাচক প্রভাব চলতি অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে পড়েছে। এ ধারাবাহিকতা আগামিতেও থাকবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। একইসঙ্গে ঢাকা নর্দান পাওয়ার এই প্রান্তিকের শুরুতে উৎপাদন শুরু করতে পারলে মুনাফা আরও বেশি হতে পারত বলে মনে করেন।

কোম্পানিটির মুনাফার এই উর্ধ্বগতিতে শেয়ার দরেও ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে। ২৩ অক্টোবর প্রথম প্রান্তিকের আর্থিক হিসাব প্রকাশের আগে কোম্পানিটির শেয়ারের সমাপনী মূল্য ছিল ৮০.৯ টাকা। যা সোমবার (২১ নভেম্বর) লেনদেন শেষে দাড়িয়েছে ১০৯.৪০ টাকায়। এ হিসাবে শেয়ার দর বেড়েছে ৩৫ শতাংশ।

এদিকে বিনিয়োগকারীদের কথা চিন্তা করে ডরিন পাওয়ারের পরিচালনা পর্ষদ রিজার্ভ থেকে লভ্যাংশ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কোম্পানিটির ২০১৫-১৬ অর্থবছরের ব্যবসায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এ সময় কোম্পানিটি ইপিএস (সমন্বিত) ০.৬৪ টাকা করলেও প্রতিটি শেয়ারে ২ টাকা (২০ শতাংশ বোনাস শেয়ার) ঘোষণা করেছে। এছাড়া উদ্যোক্তা/পরিচালক ব্যাতিত অন্যান্য শেয়ারহোল্ডারদের জন্য প্রতিটি শেয়ারে ১ টাকা (১০ শতাংশ নগদ) লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। যাতে কোম্পানির রিজার্ভ থেকে এই লভ্যাংশ প্রদান করতে হবে।

আফরোজ আলম জানান, ডরিন পাওয়ারে যথেষ্ট পরিমাণ রিজার্ভ রয়েছে। এছাড়া আগামিতে ব্যবসা ভালো হবে। এসব বিষয় চিন্তা করে রিজার্ভ থেকে লভ্যাংশ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এছাড়া লভ্যাংশের ক্ষেত্রে বিনিয়োগকারীদেরকে নিরাশ করতে চাইনি।

উল্লেখ্য ডরিন পাওয়ার ২ কোটি শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে শেয়ারবাজার থেকে ৫৮ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছে। ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের সঙ্গে ১৯ টাকা প্রিমিয়ামসহ ২৯ টাকা মূল্যে প্রতিটি শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে এ টাকা সংগ্রহ করা হয়।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এস

আইন ভঙ্গের দায়ে হ্যাক সিকিউরিটিজকে ২ লাখ টাকা জরিমানা

timthum1111স্টকমার্কেট ডেস্ক :

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের সদস্য প্রতিষ্ঠান হ্যাক সিকিউরিটিজ লিমিটেডকে আইন ভঙ্গের দায়ে ২ লাখ টাকা জরিমানা করেছে কমিশন। কতিপয় বিনিয়োগকারীর দাখিলকৃত অভিযোগের ভিত্তিতে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন এই জরিমানার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।

কমিশন সূত্রে জানা গেছে, ইক্যুইটি ও ঋণ অনুপাত ১২৫% এর ওপর থাকা সত্ত্বেও ফোর্স সেল করে গ্রাহকের ঋণ হিসাব সমন্বয় করার মাধ্যমে মার্জিন রুলস ১৯৯৯ এর রুলস ৩ এবং সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন বিধিমালা ২০০০ এর বিধি ১১ লঙ্ঘন করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

এছাড়া গ্রাহকের হিসাবের প্রি আইপিও শেয়ার কমিশন ও স্টক এক্সচেঞ্জকে অবহিত না করে বিক্রি করার মাধ্যমে কমিশনের নির্দেশনা নং- এসইসি/ সিএমআরআরসিডি/ ২০০৯-১৯৩/৪৯ /অ্যাডমিন/ ০৩-৪৮ তারিখ ১৪/০৭/২০১০ এর লঙ্ঘন করেছে হ্যাক সিকিউরিটিজ লিমিটেড।

এসব আইন ভঙ্গের কারণে কমিশন প্রতিষ্ঠানটিকে ২ লাখ টাকা জরিমানা করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এস

আইডিএলসির রাইট অনুমোদন

idlcস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারের তালিকাভুক্ত কোম্পানি আইডিএলসি ফাইন্যান্স লিমিটেডের রাইট অনুমোদন করেছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। কমিশন সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

কমিশন ২টি সাধারণ শেয়ারের বিপরীতে ১টি রাইট শেয়ার অনুমোদন করেছে।

এই রাইটের মাধ্যমে কোম্পানিটি ১২ কোটি ৫৬ লাখ ৮৩ হাজার ৫৯৩টি সাধারণ শেয়ার ২০ টাকা মূল্যে (১০ টাকা প্রিমিয়ামসহ) বাজার থেকে পুঁজি উত্তোলনের অনুমতি পেল। এর মাধ্যমে ২৫১ কোটি ৩৬ লাখ ৭১ হাজার ৮৬০ টাকা বাজার থেকে তুলে কোম্পানিটি মূলধন ভিত্তি শক্তিশালী করবে; তথা পোর্টফোলিওতে লেন্ডিং বৃদ্ধি করবে।

২০১৫ সালের নিরীক্ষিত আর্থিক বিবরণী অনুযায়ী কোম্পানির শেয়ার প্রতি এনএভি ৩০ টাকা ৯৭ পয়সা। আর শেয়ার প্রতি ইপিএস ৫ টাকা ৮১ পয়সা। এই রাইট ইস্যুর জন্য ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে রয়েছে সিটি ব্যাংক ক্যাপিটাল রিসোর্সেস লিমিটেড।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এস

ব্লক মার্কেটে ১৪ কোটি টাকার লেনদেন

blockস্টকমার্কেট ডেস্ক :

ব্লক মার্কেটে মঙ্গলবার ৮ কোম্পানি ও ১ মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার বা ইউনিট লেনদেন হয়েছে। কোম্পানি ও ফান্ড মিলে মোট ৩৪ লাখ ২৭ হাজার ২২০৩টি শেয়ার বা ইউনিট লেনদেন করেছে। যার আর্থিক মূল্য ১৪ কোটি ৫২ লাখ টাকা।ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, মঙ্গলবার ব্লক মার্কেটে সবচেয়ে বেশি শেয়ার লেনদেন করেছে সামিট পাওয়ার লিমিটেড। এই কোম্পানি ২১ কোটি ৭৪ লাখ ৫৫৮টি শেয়ার লেনদেন করেছে। যার আর্থিক মূল্য ৭ কোটি ৩৯ লাখ টাকা।

এলআর গ্লোবাল মিউচ্যুয়াল ফান্ড ৫ লাখ ইউনিট লেনদেন করে তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। যার আর্থিক মূল্য ৩৫ লাখ টাকা।

ব্রাক ব্যাংক ৩ লাখ ৫৫ হাজার শেয়ার লেনদেন করে তালিকার তৃতীয় স্থানে রয়েছে। যার আর্থিক মূল্য ২ কোটি ৩২ লাখ টাকা।

ব্লকে লেনদেন করা অন্য কোম্পানিগুলো হচ্ছে- বার্জার পেইন্টস, কনফিডেন্স সিমেন্ট, হাইডেলবার্গ সিমেন্ট, পেনিনসুলা, প্রিমিয়ার ব্যাংক ও প্রিমিয়ার সিমেন্ট।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এস

এমটিবির ৫০০ কোটি টাকার বন্ড অনুমোদন

Mutual-Trust-Bank-Limited-Logo-Qস্টকমার্কেট ডেস্ক :
শেয়ারবাজারের তালিকাভুক্ত কোম্পানি মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক (এমটিবি) লিমিটেডের ৫০০ কোটি টাকার নন কনভার্টেবল সাবওর্ডিনেটেড বন্ডের প্রস্তাব অনুমোদন করেছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

কমিশন সূত্রে জানা গেছে, এই বন্ডের বৈশিষ্ট্য হচ্ছে নন কনভার্টেবল, আনসিকিউর্ড, আনলিস্টেড, কুপন বেয়ারিং সাবওর্ডিনেটেড বন্ড। এটি ৭ বছরে সম্পূর্ণরূপে অবসায়নযোগ্য হবে। যা শুধু আর্থিক প্রতিষ্ঠান এবং উচ্চ সম্পদধারী ব্যক্তিরাই প্লেসমেন্টের মাধ্যমে কিনতে পারবেন।

উল্লেখ্য, উত্তোলন করা অর্থ দিয়ে প্রতিষ্ঠানটি টায়ার টু রেগুলেটরি ক্যাপিটালের শর্ত পূরণ করবে। বন্ডটির প্রতিটি ইউনিটের অভিহিত মুল্য ১ কোটি টাকা। এই বন্ডের ম্যানডেটেড লিড অ্যারেঞ্জার এবং ট্রাস্টি হিসেবে রয়েছে আরএসএ ক্যাপিটাল লিমিটেড এবং আইডিএলসি ফাইন্যান্স লিমিটেড।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এস

গেইনারের শীর্ষে ড্রাগণ সোয়েটার

prabhat-dairys-ipo-closes-successfullyস্টকমার্কেট ডেস্ক :

মঙ্গলবারের (২২ নভেম্বর) লেনদেনে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) টপ টেন গেইনারের শীর্ষে উঠে এসেছে ড্রাগণ সোয়েটার অ্যান্ড স্পিনিং। এদিন কোম্পানির শেয়ার দর ৯.৮৪ শতাংশ বেড়েছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সোমবার ড্রাগণ সোয়েটারের শেয়ারের সমাপনী মূল্য ছিল ১২.২ টাকা। মঙ্গলবার লেনদেন শেষে কোম্পানির শেয়ারের সমাপনী মূল্য গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১৩.৪ টাকায়। এ দিন কোম্পানির শেয়ার ১২.৩ টাকা থেকে ১৩.৪ টাকায় লেনদেন হয়।

টপ টেন গেইনারের অপর ইস্যুগুলোর মধ্যে- সিএমসি কামালের ৯.৪৬ শতাংশ, ফু-ওয়াং সিরামিকসের ৭.৯১ শতাংশ, এবি ব্যাংকের ৭.৬২ শতাংশ, সালভো কেমিক্যালের ৭.৫৮ শতাংশ, রিজেন্ট টেক্সটাইলের ৬.৩০ শতাংশ, জেএমআই সিরিঞ্জের ৬.২৬ শতাংশ, জিএসপি ফাইন্যান্সের ৫.৪৫ শতাংশ, সাফকো স্পিনিং এর ৫.৩১ শতাংশ ও আইএফআইসি ব্যাংকের ৫.২৪ শতাংশ দাম বেড়েছে।

দাম বাড়ার এ তালিকায় ‘জেড’ ক্যাটাগরিভুক্ত কোম্পানিগুলোকে বিবেচনায় নেওয়া হয়নি।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এস

ডিএসইতে ১৩ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ সূচক

DSE-UP-4400-728x387স্টকমার্কেট ডেস্ক :
গত ১৩ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ অবস্থানে উঠে এসেছে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) মূল্যসূচক। এছাড়া ২ মাসের মধ্যে সবেচেয়ে বেশি আর্থিক লেনদেন হয়েছে। মঙ্গলবারের (২২ নভেম্বর) লেনদেনে ডিএসই’র প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স ও আর্থিক লেনদেন এ অবস্থানে উঠে এসেছে। ডিএসই’র ওয়েবসাইট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এদিন ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স ২৮.৮১ পয়েন্ট বেড়ে ৪৭৫০.২১ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। যা গত ১৩ মাস বা ২০১৫ সালের ১৪ অক্টোবরের মধ্যে সর্বোচ্চ।

মঙ্গলবার ডিএসইতে ৬৫৫ কোটি ৯৬ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা চলতি বছরের ২ অক্টোবরের মধ্যে বা গত ২ মাসের মধ্যে সবচেয়ে বেশি হয়েছে।

এদিন ডিএসইতে ৩১৯টি কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিটের লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে ১৭৬টি কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিটের দর বেড়েছে, ৯৭টি কোম্পানির দর কমেছে এবং ৪৬টি কোম্পানির দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

আগের দিনের ন্যায় মঙ্গলবারও টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে বিএটিবিসি’র শেয়ার। এদিন কোম্পানিটির ২৫ কোটি ৯০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা এবি ব্যাংকের ১৮ কোটি ৫১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ১৮ কোটি ১৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে বাংলাদেশ বিল্ডিং সিষ্টেমস।

লেনদেনে এরপর রয়েছে- সিএমসি কামাল, গ্রামীণফোন, স্কয়ার ফার্মাসিটিক্যালস, গোল্ডেন হার্ভেষ্ট অ্যাগ্রো ইন্ডাষ্ট্রিজ, ফরচুন সুজ, ড্রাগণ সোয়েটার অ্যান্ড স্পিনিং ও কাশেম ড্রাইসেল।

এদিকে মঙ্গলবার সিএসই’র সিএসসিএক্স সূচক ৪৩.৯৬ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৮৯৩.২২ পয়েন্টে। যা সোমবার ৬.৮৩ পয়েন্ট, রবিবার ৫১.৮৭ পয়েন্ট এবং আগের সপ্তাহের বৃহস্পতিবার ৪৫.৬৪ পয়েন্ট, বুধবার ৩৪.৩৩ পয়েন্ট ও মঙ্গলবার ২৪.৬৭ পয়েন্ট বেড়েছিল।

এদিন সিএসইতে ৩৬ কোটি ৭৮ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যার পরিমাণ আগের দিন ছিল ৪২ কোটি ৬৯ লাখ টাকা। সিএসইতে লেনদেন হওয়া ২৪৯টি ইস্যুর মধ্যে দর বেড়েছে ১২৯টি’র, কমেছে ৮৮টি’র এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩২ টি’র।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এস

প্রথম প্রান্তিকে লোকসানে বিডি ওয়েল্ডিং

bdweldinস্টকমার্কেট ডেস্ক :

প্রথম প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) প্রতিটি শেয়ারে (০.২৯) টাকা লোকসান করেছে বাংলাদেশ ওয়েল্ডিং ইলেকট্রোডস (বিডি ওয়েল্ডিং)। আগের বছরের একই সময়ে লোকসানের পরিমাণ ছিল (০.৩০) টাকা। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ওয়েবসাইট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

চলতি বছরের ৩০ সেপ্টেম্বরে কোম্পানির প্রতিটি শেয়ারে সম্পদ (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ১২.৫৯ টাকা।

১৯৯৯ সালে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়া বিডি ওয়েল্ডিং ২০১৫ সালে লোকসানের কবলে পড়ে। কোম্পানি ১৮ মাসের (জানুয়ারি ২০১৫-জুন ২০১৬) ব্যবসায় প্রতিটি শেয়ারে (৩.৫০) টাকা লোকসান করে। যাতে কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদ এই সময়ের ব্যবসায় শেয়ারহোল্ডারদের কোন ধরনের লভ্যাংশ না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

‘জেড’ ক্যাটাগরির কোম্পানিটির শেয়ার এরইমধ্যে অভিহিত মূল্যের নিচে নেমে এসেছে। গত ২৬ অক্টোবর থেকে এ অবস্থানে রয়েছে। আর সর্বশেষ সোমবার (২১ নভেম্বর) লেনদেন শেষে ৯ টাকায় দাঁড়িয়েছে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এস