‘আমরা টেকনোলজিসের টার্নওভার কমলেও লাভের পরিমাণ বেড়েছে’

amratecনিজস্ব প্রতিবেদক:

আমরা টেকনোলজিসের পণ্য বিক্রির পরিমাণ গত বছরের তুলনায় টার্নওভার কমলেও লাভের পরিমাণ বেড়েছে। ২০১৬ সালে কোম্পানি মোট লাভ করেছে ১৯ কোটি ৩৩ লাখ টাকা। এ বছর কর পূর্ববর্তী মুনাফা করেছে ৯ কোটি ২০ লাখ টাকা। আর কর পরবর্তী মুনাফা করেছে ৮ কোটি ২০ মিলিয়ন টাকা।

মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর গুলশানে স্পেক্ট্রা কনভেনশন সেন্টারে কোম্পানির ২৭তম বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএম) কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ ফারহাদ আহমেদ এসব তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ব্যবসা সম্প্রসারণের লক্ষ্যে যশোরের হাইটেক পার্কে আইটি ফার্ম স্থাপনের জন্য জায়গা বরাদ্দ নেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী আমাদের যথেষ্ট সহযোগিতা করেছেন। আশা করছি কোম্পানি বর্তমান সময়ের চেয়ে ভবিষ্যতে আরও বেশি লাভজনক অবস্থানে পৌঁছাতে পারবে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের লক্ষ্য দেশের প্রতিটি মানুষের কাছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি পৌঁছে দেয়া। সে লক্ষ্যেই আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আর এ ব্যাপারে সরকার আমাদের যথেষ্ট সহযোগিতা করছে।

তিনি আরো বলেন, আমরা টেকনোলজিস লিমিটেড দেশের আইটি খাতের উন্নয়নে অবদান রেখে চলেছে। শেয়ারহোল্ডাররা আমাদের পাশে থাকায় তাদের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ। আশা করছি আগামী দিনগুলোতেও তারা আমাদের পাশে থাকবেন।

সভায় উপস্থিত শেয়ারহোল্ডারদের সম্মতিতে ৩০ জুন,২০১৬ অর্থবছরে শেয়ারহোল্ডারদের ১০ শতাংশ নগদ ডিভিডেন্ডের সুপারিশ।

সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন কোম্পানির চেয়ারম্যান সৈয়দ ফারুক আহমেদ, পরিচালক সৈয়দ ফাহমিদা আহমেদ, পরিচালক সৈয়দা মুনিয়া আহমেদ, স্বাধীন পরিচালক কে.এম হাসান। এছাড়া কোম্পানি সচিব মোঃ এনামুল হক, শেয়ার বিভাগের দায়িত্বে থাকা সুরভী পারভীনসহ সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তা।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এসএম

প্যাসিফিক ডেনিমস’র আইপিও আবেদনের ড্র ১০ জানুয়ারি

pacific_coverনিজস্ব প্রতিবেদক:

প্যাসিফিক ডেনিমস লিমিটেডের জমা পড়া প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) আবেদনের লটারি ড্র আগামী ১০ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে। এ বিষয়টি স্টকমার্কেটবিডি.কমকে নিশ্চিত করেছেন কোম্পানিটির কোম্পানি সচিব সোহরাব হোসেন।

এদিন সকাল সাড়ে ১০ টায় রাজধানীর রমনা ইন্জিনিয়ারিং ইনিষ্টিটিউট মিলনায়তনে এই অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে।

সদ্য অনুমোদন পাওয়া কোম্পানি প্যাসিফিক ডেনিমস লিমিটেডের প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) আবেদন জমা দেওয়ার শেষদিন ছিল গত সোমবার।

এর আগে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন-বিএসইসি ৫৮২তম সভায় আইপিও’র মাধ্যমে অর্থ সংগ্রহের জন্য প্রতিষ্ঠানটিকে অনুমোদন দেয়। কোম্পানটি এই অর্থ দিয়ে ব্যবসা সম্প্রসারণ, যন্ত্রপাতি কেনা, অবকাঠামো উন্নয়ন, ঋণ পরিশোধ ও আইপিও খাতে ব্যয় করবে। কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনা করবে এএফসি ক্যাপিটাল লিমিটেড।

প্যাসিফিক ডেনিমস শেয়ারবাজারে সাত কোটি ৫০ লাখ সাধারণ শেয়ার ছেড়ে ৭৫ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। প্রতিটি শেয়ার অভিহিত মূল্য ১০ টাকা করে ৭ কোটি ৫০ লাখ শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে এ টাকা সংগ্রহ করা হবে।

শতভাগ রপ্তানিকারক প্যাসিফিক সর্বশেষ ২০১৫ সালে ১৬৮ কোটি ২৫ লাখ টাকার বিক্রয় করে। এক্ষেত্রে কোম্পানিটি কর পরবর্তী প্রায় ১০ কোটি টাকা নীট মুনাফা বা শেয়ার প্রতি ২.৬৩ টাকা আয় করে। এ সময় কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি নীট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো হয় ২ টাকা। ৩৮ কোটি টাকা পরিশোধিত মূলধনের কোম্পানিটিতে ২০১৫ সালের ৩১ ডিসেম্বরে শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) দাড়িয়েছে ২৬.৪৩ টাকায়।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এসএম

‘ব্যাংক ঋণ না নিয়েই ৩২ কোটি বিনিয়োগ করে জাহিন স্পিনিং’

jaনিজস্ব প্রতিবেদক :

আইপিওর মাধ্যমে শেয়ারবাজার থেকে ১২ কোটি টাকা নিয়েছে বস্ত্র খাতের কোম্পানি জাহিন স্পিনিং লিমিটেড। এর পর কোম্পানিটি ৩২ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে। বিনিয়োগকৃত বাকি অর্থ কোনো ব্যাংক ঋণ ছাড়াই নিজস্ব অর্থায়নে এসেছে। এসব তথ্য জানিয়েছেন কোম্পানিটির ব্যবস্তাপনা পরিচালক এ এম বদরুজ্জামান খসরু।

মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর ধানমন্ডিতে সুগন্ধা কমিউনিটি সেন্টারে আয়োজিত কোম্পানির বার্ষিক সাধারণ সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, কোম্পানিটি কারখানার মেশিন ও যন্ত্রপাতি ক্রয় বাবদ এ অর্থ ব্যয় করেছে। কারখানায় বিদ্যুৎ ও গ্যাস সংকট রয়েছে। এজন্য আমরা জেনারেটরবাবদ একটি বড় বিনিয়োগ করেছি।

তিনি বলেন, শেয়ারবাজার থেকে আমরা মাত্র ১২ কোটি টাকা নিয়েছি। অথচ এখন পর্যন্ত আমরা ৩২ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছি। যা কোনো ধরণের ঋণ না করে নিজেদের অর্থ দিয়ে করেছি।

তিনি জানান, জাহিন স্পিনিংকে ভবিষৎএ আরো সম্প্রসারণ করার পরিকল্পনা রয়েছে। এ জন্য শেয়ারহোল্ডারদের সহযোগিতা আশা করছি।

এ সময় কোম্পানিটির চেয়ারম্যান ফরিদা আক্তার খানম, পরিচালক মাহমুদুর রহমান, পরিচালক নুশরাত জাহান ও স্বাধীন পরিচালক মো: আব্বাম আলী খান। এছাড়া সিএফও মো: ফারুখ হোসেন, কোম্পানি সচিব মো: মহিন উদ্দিনসহ কোম্পানিটির আর্থিক ও শেয়ার বিভাগের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
স্টকমার্কেটবিডি.কম/এসএম

ব্লক মার্কেটে ৫ কোম্পানির শীর্ষে অলিম্পিক

olimpic ...smbdস্টকমার্কেট ডেস্ক:

ব্লক মার্কেটে মঙ্গলবার সবচেয়ে বেশি শেয়ার লেনদেন করেছে অলিম্পিক এক্সেসরিজ লিমিটেড। এই কোম্পানি ৮৩ হাজার ৭০০ শেয়ার লেনদেন করেছে। যার আর্থিক মূল্য ২০ লাখ টাকা।

মঙ্গলবার ডিএসই’র ওয়েবসাইটই দেখা যায়, ব্লক মার্কেটে মোট ৫ কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিগুলো মোট ১ লাখ ৬৩ হাজার ৩৮৯টি শেয়ার লেনদেন করেছে। যার আর্থিক মূল্য ১ কোটি ৭৫ লাখ টাকা।

ফারইস্ট ফিন্যান্স ৫ লাখ ৫০ হাজার টাকায় ৫০ হাজার শেয়ার লেনদেন করে তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে।তৃতীয় স্থানে রয়েছে ডিবিএইচ ১৭ হাজার ৬৮৯টি শেয়ার লেনদেন করে তালিকার । যার আর্থিক মূল্য ১৭ লাখ টাকা।

এছাড়া বাটা সু ১০ হাজার ও ন্যাশনাল টি ২ হাজার শেয়ার লেনদেন করেছে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/ডিএইচ

ন্যাশনাল ফিড ৫ লাখ শেয়ার বিক্রির ঘোষণা

natinalস্টকমার্কেট ডেস্ক:

শেয়ারবাজারে প্রকৌশল খাতের কোম্পানি ন্যাশনাল ফিড মিলের কর্পোরেট উদ্যোক্তা ন্যাশনাল হ্যাচারি প্রাইভেট লিমিটেড শেয়ার বিক্রি করবে। মঙ্গলবার ডিএসই’র ওয়েবসাইট থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

ন্যাশনাল হ্যাচারির কাছে ন্যাশনাল ফিডের ৩১ লাখ ২৭ হাজার ৮০টি বোনাস শেয়ার আছে। এর মধ্যে থেকে কোম্পানিটি ৫ লাখ ৩০ হাজার শেয়ার বিক্রি করবে।

উল্লেখ্য, এই কর্পোরেট উদ্যোক্তা আগামী ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে বর্তমান বাজার দরে উল্লেখিত পরিমাণ শেয়ার বেচতে পারবে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/ডিএইচ

“শেয়ারবাজারে ইফাদ অটোস সাফল্য অর্জনে সক্ষম হয়েছে”

ifad-picনিজস্ব প্রতিবেদক :

শেয়ারবাজারে ইফাদ অটোস কোম্পানি লিমিটেড তাদের সাফল্য অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে বলে জানিয়েছেন কোম্পানিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাসকিন আহমেদ।

মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর সামুরাই কনভেনশন সেন্টারে কোম্পানির ৪র্থ বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএম) এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, ইফাদ অটোস কোম্পানি লিমিটেড ব্যবসায়িক সাফল্য অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। দেশের দুই শেয়ারবাজারেই ইফাদ অটোসের ভাল অবস্থান রয়েছে। শেয়ারবাজারে ইফাদ অটোস টার্ন ওভার অনেক ভাল পজিশনে রয়েছে।

এছাড়াও তিনি বলেন, গত বছর ইফাদ অটোস আশানুরূপ বাস, ট্রাক দেশের বাজারে এনেছে। ইফাদ অটোসের উৎপাদন দিন দিন বেড়েই চলছে। সেই সাথে বাজারে ইফাদ গাড়ীর অবস্থান আগের তুলনায় অনেক ভাল এবং আগামীতেও ভাল অবস্থানে থাকার জন্য চেষ্টা রয়েছে।

এজিএম অনুষ্ঠানে কোম্পানিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাসকিন আহমেদ, পরিচালক তানভির আহমেদ, পরিচালক তাসফিন আহমেদ, স্বাধীন পরিচালক রাকিবুল ইসলাম ও স্বাধীন পরিচালক রেজওয়ান আলী উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া ইফাদ অটোসের আর্থিক বিভাগের প্রধান মিসেস ফাতেমা আকতার, কোম্পানি সচিব সিরাজুল ইসলাম, হেড অব ইন্টারনাল অডিট হেমায়ত হোসেন, মিডিয়া এ্যাডভাইজার রফিকুল ইসলামসহ ইফাদ অটোসের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএস

  1. বেক্সিমকো লিমিটেড
  2. বিবিএস
  3. স্কয়ার ফার্মা
  4. অলিম্পিক এক্সেসরিজ
  5. ইফাদ অটোস
  6. কেয়া কসমেটিকস
  7. সামিট এ্যালায়েন্স
  8. লাফার্জ সুরমা
  9. এ্যাপোলো ইস্পাত
  10. সিএমসি কামাল।

ডিএসইতে লেনদেন কমলেও বেড়েছে সিএসইতে

DSE_CSE-smbdনিজস্ব প্রতিবেদক :

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) দিনশেষে মূল্য সূচক ও লেনদেনের পতন হয়েছে। এদিন চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) লেনদেন আগের দিনের চেয়ে বেড়েছে। ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

মঙ্গলবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৯৩২ কোটি ৬৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। গতকাল সোমবার সেখানে ১১২০ কোটি ১৫ লাখ টাকার লেনদেন হয়।

এদিন ডিএসইতে ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ১০.৪৮ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৪৯৩১ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ০.০৮ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১১৬৭ পয়েন্টে। ডিএসই-৩০ সূচক ০.৩৫ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৭৯৭ পয়েন্টে।

এদিন দিনভর লেনদেন হওয়া ৩২৪ টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৯৯ টির, কমেছে ১৭৫ টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৫০ টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার দর।

এদিন ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষ কোম্পানির মধ্যে রয়েছে – বেক্সিমকো লিমিটেড, বিবিএস, স্কয়ার ফার্মা, অলিম্পিক এক্সেসরিজ, ইফাদ অটোস, কেয়া কসমেটিকস, সামিট এ্যালায়েন্স, লাফার্জ সুরমা, এ্যাপোলো ইস্পাত ও সিএমসি কামাল।

এদিকে মঙ্গলবার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ৬২ কোটি ২৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। গতকাল সোমবার সেখানে ৫২ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

এদিন সিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে ছিল ডেল্টা ব্র্যাক হাউজিং ও বিএসআরএম লিমিটেড।

এদিন সিএসই সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৩ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৫ হাজার ১৭৫ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৫১ টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১০৬ টির, কমেছে ১১৪ টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩১টির।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এসএম

৮ দিনে ১৬ টাকার শেয়ার বেড়ে ২১ টাকা

cmcস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত বস্ত্র খাতের কোম্পানি সিএমসি কামাল লিমিটেডের সাম্প্রতিক সময়ে শেয়ার দর বাড়ার পেছনে কোনো মূল্য সংবেদনশীল তথ্য নেই বলে জানিয়েছে। দর বাড়ার কারণ জানতে চাইলে কোম্পানিটির পক্ষ থেকে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জকে (ডিএসই) এ কথা জানানো হয়েছে।

জানা যায়, গত ৬ ডিসেম্বর শেয়ার দর ছিল ১৬.৩০ টাকা। গতকাল ১৯ ডিসেম্বর সর্বশেষ তা ২১.৪০ টাকায় লেনদেন হয়েছে। উক্ত ৮ দিনে শেয়ারটির দর বেড়ে ১৬ টাকা থেকে বেড়ে ২১ টাকা হয়েছে।

কোম্পানিটির শেয়ারের এ দর বাড়াকে অস্বাভাবিক বলে মনে করছে ডিএসই। তবে দর বাড়ার পেছনে মূল্য সংবেদনশীল কোন তথ্য কি তা জানতে চায় ডিএসই।

এ সময় সিএমসি কামাল লিমিটেডের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, সম্প্রতি শেয়ারটির দর বৃদ্ধির পেছনে মূল্যসংবেদনশীল অপ্রকাশিত কোন তথ্য তাদের কাছে নেই।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম/বি

সূচকের উত্থান অব্যহত রয়েছে

h indexনিজস্ব প্রতিবেদক :

সূচকের উত্থান অব্যহত রয়েছে দেশের দুই স্টক এক্সচেঞ্জে। গেল দিনের মতো মঙ্গলবারও উত্থানের মধ্যদিয়ে লেনদেন চলছে। সেই সাথে বেশিরভাগ শেয়ারের দর বেড়েছে।

মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৩০২ কোটি ৪৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।
বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, এই সময়ে ডিএসইতে মোট লেনদেনে অংশ নেয় ২৯৮টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৭৬, কমেছে ৮১ এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪১টির শেয়ার দর।

এদিকে ডিএসইএক্স বা প্রধান মূল্য সূচক ২৪ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৪ হাজার ৯৬৬ পয়েন্টে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ৬ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ১৭৩ পয়েন্টে। আর ডিএস৩০ সূচক ১০ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে এক হাজার ৮০৭ পয়েন্টে। দেশের অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) সূচকের উত্থানে লেনদেন চলছে। লেনদেনের প্রথম ঘণ্টায় সিএসইতে ২৮ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

সিএসই সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৭৫ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫ হাজার ২৫৪ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ১৬৭টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১০০, কমেছে ৪৪ এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৩টির।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম/বি