বিআইএফসির ১৯তম ও ২০তম এজিএম অনুষ্ঠিত

ipdcনিজস্ব প্রতিবেদক :

শেয়ারবাজারে তালিকা ভুক্ত বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স কোম্পানি লিমিটেডের (বিআইএফসি) ১৯তম ও ২০তম বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার সকালে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউট অফ বাংলাদেশ কোম্পানির ১৯তম ও ২০তম বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএম) এসব কথা বলেন তিনি।

এজিএম অনুষ্ঠানে কোম্পানিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক দেলোয়ার হোসেন ভুঞয়া, পরিচালক মিস তাজরিনা মান্নান, পরিচালক এএনএম জাহাঙ্গীর আলম, পরিচালক গোলাম ছরোয়ার চৌধূরী, পরিচালক মিসেস বাদরুন নেছা, স্বাধীন পরিচালক ইনায়েত উল্লাহ উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স কোম্পানি লিমিটেডের আর্থিক বিভাগের সকল উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএস

‘দুই বছরের মধ্যে খাঁন ব্রাদার্সের ২০০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হবে’

kanনিজস্ব প্রতিবেদক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত খান ব্রাদার্স পিপি ওভেন ব্যাগ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড বর্তমানে আমাদের দেশে ওভেন ব্যাগের চাহিদা বৃদ্ধি পেয়েছে। গত বছর কোম্পানির প্রবৃদ্ধি ছিল ১৮৭ শতাংশ। আগামী দুই বছরের মধ্যে এটা ২০০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন হবে বলে মনে করেন কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক তোফায়েল কাবির খান।

বুধবার সকালে রাজধানীর কেবিজি টাওয়ার মালিবাগ চৌধুরীপাড়াই কোম্পানির ১০তম বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএম) এসব কথা বলেন তিনি।

তোফায়েল কবির বলেন, খান ব্রাদার্স পিপি ওভেন ব্যাগের বিশ্বব্যাপী চাহিদা রয়েছে। এই চাহিদাকে পুজি করে আগামী বছরের মার্চ মাস থেকে এফআইবিসি ব্যাগ প্রোডাকশন শুরু করবে।

তিনি বলেন, নেদারল্যান্ড থেকে প্রকৃতিক সম্পদ ও কাঁচামাল আমদানি করে তা রপ্তানী করবে চীন ও তুরস্কে।

তিনি বলেন, আমরা বিভিন্ন ধরনের উন্নতমানের মেশিন আমদানি করেছি। প্রয়োজনে আরও মেশিন আমদানি করার পরিকল্পনা রয়েছে।আমরা ইতোমধ্যে ২ লাখ ২০ হাজার ডলারে এফআইবিসি ব্যাগ তৈরির মেশিন আমদানি করেছি।

তিনি আরও বলেন, প্রতিষ্ঠানের উন্নতির জন্য পরিশ্রম করে যাচ্ছি। স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা আমাদের বড় সম্পদ এটা নিয়েই আমরা সামনে এগিয়ে যাব।

তিনি বলেন, বিশ্বব্যাপি পিপিওভেন ব্যাগের বাজার ১ দশমিক ৮৯ শতাংশ। বিশ্বব্যাপি এ খাত থেকে যদি ৫ শতাংশ শেয়ার ব্যবহার করা যায় তাহলে আগামী বছর ১ বিলিয়ন ডলার রপ্তানি করা সম্ভব হবে।

এজিএম অনুষ্ঠানে কোম্পানির চেয়ারম্যান মুহাম্মদ এনামূল কবির খান ।কোম্পানিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক তোফায়েল কবির খান, পরিচালক রুহুল কবির খান, পরিচালক হযরত আলী, মখলেছুর রাহমান, পরিচালক জাকিরুল কবির, স্বাধীন পরিচালকমুহাম্মদ লোকমান, জাকির হোসাইন ও সেক্রেটারি তপন কুমার খান উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া খান ব্রাদার্স পিপি ওভেন ব্যাগ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের আর্থিক বিভাগের সকল উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএস

ইউনাইটেড এয়ারকে প্লেসমেন্ট শেয়ার ইস্যুর অনুমোদন দিল বিএসইসি

unitedনিজস্ব প্রতিবেদক:

প্রাইভেট প্লেসমেন্ট শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে ৩১২ কোটি ৮০ লাখ ৮৮ হাজার টাকা উত্তোলনের অনুমোদন পেয়েছে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ভ্রমণ ও অবকাশ খাতের কোম্পানি ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের (বিডি) লিমিটেড।

বুধবার বিএসইসির ৫৯৪তম কমিশন সভায় এই অনুমোদন দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক এম সাইফুর রহমান স্বাক্ষরিত এক বিঞ্জপ্তিতে এ তথ্য জানানাে হয়।

৬ প্রতিষ্ঠানের কাছে ৩১ কোটি ২৮ লাখ ৮৮ হাজার শেয়ার ইস্যু করবে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ। এর মাধ্যমে ৩১২ কোটি ৮০ লাখ ৮৮ হাজার টাকা পাবে কোম্পানিটি। এ টাকা দিয়ে কোম্পানিটি ৭টি বিমান কিনবে।

৬ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সুইফট এয়ার কার্গো পিটিই লিমিটেড কিনবে ৫ কোটি ২৮ লাখ ৮ হাজার ৮শ শেয়ার, স্টারলিংক অ্যারোস্পিট লিমিটেড ৫ কোটি ২০ লাখ, এ-সোনিক এভিয়েশন সুলোয়েশনস পিটিই লিমিটেড ৫ কোটি ২০ লাখ, এ্যারিকটিক টার্ন এভিয়েশন পিটিই লিমিটেড ৫ কোটি ২০ লাখ, ফনিক্স এয়ারক্রাফ্ট ইনভেস্টমেন্ট ৫ কোটি ২০ লাখ এবং ব্লাক টার্নসটোন এভিয়েশন পিটিই লিমেটেড কিনবে ৫ কোটি ২০ লাখ শেয়ার।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম

৫০০ কোটি টাকার বন্ড ছাড়বে ব্যাংক এশিয়া

bank_asia_logoনিজস্ব প্রতিবেদক:

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ব্যাংক এশিয়া লিমিটেডের ৫০০ কোটি টাকার সাব-অর্ডিনেটেড বন্ড ছাড়ার অনুমোদন দিয়েছে। বুধবার বিএসইসির ৫৯৪তম কমিশন সভায় এই  অনুমোদন দিয়েছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক এম সাইফুর রহমান স্বাক্ষরিত এক বিঞ্জপ্তিতে এ তথ্য জানানাে হয়।

জানা যায়, বন্ডটি নন-কনভারটেবল, অনিরাপদ ও সম্পূর্ণ অবসানযুক্ত। সাত বছর পরে বন্ডটির বিলুপ্ত ঘটবে। সাড়ে ১১ শতাংশ থেকে ১৪ শতাংশ হারে সুদ দেবে বন্ডটি। শুধুমাত্র স্থানীয় আর্থিক প্রতিষ্ঠান, বিমা কোম্পানি, মিউচ্যুয়াল ফান্ড, কর্পোরেট বডি ও বৈধ বিনিয়োগকারীরা প্রাইভেট প্লেসমেন্টের মাধ্যমে বন্ডটি ক্রয় করতে পারবে।

উল্লেখ্য, এই বন্ড ইস্যুর মাধ্যমে টাকা সংগ্রহ করে ব্যাংকটি মূলধন বৃদ্ধি কাজে ব্যয় করবে।

ব্যাংক এশিয়ার সাব-অর্ডিনেটেড এই বন্ডের প্রতি ইউনিটের অভিহিত মূল্যে হবে ১ কোটি টাকা।

এই বন্ডটির ম্যান্ডেটেড লিড এ্যারেন্জার হিসাবে স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক লিমিটেড ও ট্রাস্টি হিসেবে কাজ করবে গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম

প্রিমিয়ার ব্যাংকের ৫০০ কোটি টাকার বন্ড অনুমোদন

primiarনিজস্ব প্রতিবেদক:

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেডের ৫০০ কোটি টাকার সাব-অর্ডিনেটেড বন্ড ছাড়ার অনুমোদন দিয়েছে। বুধবার বিএসইসির ৫৯৪তম কমিশন সভায়  এই  অনুমোদন দিয়েছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক এম সাইফুর রহমান স্বাক্ষরিত এক বিঞ্জপ্তিতে এ তথ্য জানানাে হয়।

জানা যায়, বন্ডটি নন-কনভারটেবল, অনিরাপদ ও সম্পূর্ণ অবসানযুক্ত। সাত বছর পরে বন্ডটির বিলুপ্ত ঘটবে। সাড়ে ১১ শতাংশ থেকে ১৪ শতাংশ হারে সুদ দেবে বন্ডটি। শুধুমাত্র স্থানীয় আর্থিক প্রতিষ্ঠান, বিমা কোম্পানি, মিউচ্যুয়াল ফান্ড, কর্পোরেট বডি ও বৈধ বিনিয়োগকারীরা প্রাইভেট প্লেসমেন্টের মাধ্যমে বন্ডটি ক্রয় করতে পারবে।

উল্লেখ্য, এই বন্ড ইস্যুর মাধ্যমে টাকা সংগ্রহ করে ব্যাংকটি মূলধন বৃদ্ধি কাজে ব্যয় করবে।

প্রিমিয়ার ব্যাংকের সাব-অর্ডিনেটেড এই বন্ডের প্রতি ইউনিটের অভিহিত মূল্যে হবে ১ কোটি টাকা।

এই বন্ডটির ম্যান্ডেটেড লিড এ্যারেন্জার হিসাবে স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক লিমিটেড ও ট্রাস্টি হিসেবে কাজ করবে গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম

আইপিওতে আমরা নেটওয়ার্কসের কাট অফ প্রাইস নির্ধারণের অনুমোদন

aamra-technology-limitedনিজস্ব প্রতিবেদক:

শেয়ারবাজার থেকে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে অর্থ সংগ্রহের জন্য কাট অফ প্রাইস নির্ধারণ করার অনুমোদন পেয়েছে আমরা নেটওয়ার্কস লিমিটেড। বুধবার বিএসইসির ৫৯৪তম কমিশন সভায় নতুন আইনে এই কাট অফ প্রাইস নির্ধারণের অনুমোদন দিয়েছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক এম সাইফুর রহমান স্বাক্ষরিত এক বিঞ্জপ্তিতে এ তথ্য জানানাে হয়।

জানা গেছে, কোম্পানিটি শেয়ারবাজারে ৫৬ কোটি ২৫ লাখ টাকা সংগ্রহ করবে। প্রতিটি শেয়ারের মূল্য নির্ধারণ করা হবে কাট অফ প্রাইসের মাধ্যমে।

শেয়ারবাজার থেকে অর্থ উত্তোলনের মাধ্যমে কোম্পানিটি বিএমআরই, ডাটা সেন্টার প্রতিষ্ঠা, সারা দেশে ওয়াই ফাই হট স্পট স্থাপন, ঋণ পরিশোধ এবং আইপিও আনুষাঙ্গিক খরচ খাতে ব্যয় করবে।

কোম্পানিটি ৩১ ডিসেম্বর ২০১৫ সালের আর্থিক বিবরণী অনুযায়ী কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় ( ইপিএস) হয়েছে ২ টাকা ৫২ পয়সা এবং নেট অ্যাসেট ভ্যালু (এনএভি) দাড়িয়েছে ২১ টাকা ৯৮ পয়সা।

কোম্পানিটির ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে থাকবে লংকাবাংলা ইনভেষ্টমেন্ট লিমিটেড।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম

‘প্লাই সিমেন্ট ব্যাগ উৎপাদন শুরু হলে দেশবন্ধু পলিমারের মুনাফা বাড়বে’

deshbondhu-polimer-10th-agm-1নিজস্ব প্রতিবেদক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত প্রকৌশল খাতের কোম্পানি দেশবন্ধু পলিমার লিমিটেড প্লাই সিমেন্ট ব্যাগ উৎপাদনের পদক্ষেপ নিয়েছে। আর এ পদক্ষেপ বাস্তবায়ন হলে নতুন ইউনিটে পিপি সিমেন্ট ব্যাগ উৎপাদন করা সম্ভব হবে। আর এতে কোম্পানির বিক্রয় বৃদ্ধির পাশাপাশি মুনাফাও বৃদ্ধি পাবে।

আজ (বুধবার) সকাল ৯টায় নরসিংদীর চরসিন্দুর কারাখানা প্রাঙ্গনে দেশবন্ধু পলিমার লিমিটেডের ১০ম বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএম) এসব কথা জানান কোম্পানিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক গোলাম রহমান।

কোম্পানির ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে তিনি বলেন, দেশবন্ধু পলিমার প্লাই সিমেন্ট ব্যাগ উৎপাদনের লক্ষে খুব শিগগিরই ১৩ কোটি ৮৬ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা মূল্যের মূলধনী যন্ত্রপাতি আমদানী করার পদক্ষেপ নিচ্ছে। আর এ পদক্ষেপ বাস্তবায়ন হলে নতুন ইউনিটে বর্তমানের উৎপাদিত পিপি ওভেন ব্যাগের পাশাপাশি আরও বার্ষিক আরো আড়াই কোটি পিস পিপি সিমেন্ট ব্যাগ উৎপাদন করা সম্ভব হবে। আর এতে কোম্পানির বিক্রয় বৃদ্ধির পাশাপাশি মুনাফাও বৃদ্ধি পাবে। যা কোম্পানির পাশাপাশি ভবিষ্যতে কোম্পানির শেয়ার হোল্ডারগণও লাভবান হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

তিনি বলেন, এ বছর মোট উৎপাদন ক্ষমতা ছিল ৩ কোটি ৬০ লাখ পিস পি.পি ওভেন ব্যাগ। এর মধ্যে আমরা দুই কোটি ১৩ লাখ ১৮ হাজার ৪৮৫ পিস পি.পি ওভেন ব্যাগ উৎপাদন করতে সক্ষম হয়েছি। চলতি অর্থবছরে কোম্পানির গ্রস মুনাফা হয়েছে ৭ কোটি ৮৩ লাখ ৯২ হাজার ২২২ টাকা এবং নীট মুনাফা হয়েছে এক কোটি ৪ লাখ ৯ হাজার ৯৯৫ টাকা। যা গত অর্থবছরের চেয়ে ১ কোটি ২৬ লাখ ৩৩ হাজার ২০০ টাকা কম।

মুনাফা কমার কারণ হিসেবে গোলাম রহমান বলেন, বর্তমানে বিদ্যুৎ, গ্যাস, ব্যাংক সুদের হার ও অন্যান্য আনুসঙ্গিক ব্যয় বৃদ্ধির কারণে অভ্যন্তরীন এবং আমদানি সংশ্লিষ্ট সব ব্যয় উল্লেখযোগ্য পরিমান বেড়েছে। তাছাড়া চলতি অর্থবছর পিপি ব্যাগের উপর সরকারি বিধি নিষেধের কারণে বর্তমান বাজারে পিপি ব্যাগের চাহিদা কমে যায়। ফলে অধিক বিক্রয় লক্ষে মুনাফা কম নিয়ে বিক্রয় করতে হয়েছে।

সভায় শেয়ার হোল্ডারদের উপস্থিতিতে ২০১৫-১৬ অর্থবছরের হিসাব, পরিচালক মন্ডলী ও নিরীক্ষকদের প্রতিবেদন গ্রহণ ও অনুমোদন করা হয়। একই সঙ্গে শেয়ার হোল্ডারদের সর্ব সম্মতিতে সবগুলো এজেন্ডা অনুমোদন করা হয়।

দেশবন্ধু পলিমারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক গোলাম রহমানের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন কোম্পানির স্বতন্ত্র পরিচালক সৈয়দ আনিসুল হক, কোম্পানির পরিচালক মো. মাইনুল ইসলাম লাল প্রমুখ। সভা পরিচালনা করেন কোম্পানি সচিব মো. লিয়াকত আলী খান।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম/বি

তুং হাইয়ের আর্থিক অসঙ্গতি তুলে ধরলো ডিএসই

Tung haiস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে বস্ত্র খাতের কোম্পানি তুং হাই নিটিং অ্যান্ড ডাইংয়ের সমাপ্ত হিসাব বছরের আর্থিক প্রতিবেদনে অসঙ্গতি তুলে ধরেছে ডিএসই। কোম্পানিটির নিরীক্ষক প্রতিষ্ঠান ৩০ জুন, ২০১৬ সমাপ্ত হিসাব বছরের আর্থিক প্রতিবেদন মূল্যায়নের ভিত্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে। বুধবার ডিএসই’র ওয়েবসাইটে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সূত্র জানায়, তুং হাই নিটিংয়ের আর্থিক বিবরণীতে সমাপ্ত হিসাব বছরে তুংহাই সোয়েটারস লিমিটেডের কাছে ৪৪ কোটি ৮ লাখ ৬৮ হাজার ৫৯ টাকা পাওনা দেখানো হয়েছে। আগের বছরে কোম্পানিটির পাওনা দেখানো হয়েছে ৪১ কোটি ২৯ লাখ ১৬ হাজার ৫ টাকা।

যদিও কোম্পানিটির ব্যাংক ঋণ দেখানো হয়েছে ৫৭ কোটি ৬৮ লাখ ৪৬ হাজার ২৯৩ টাকা। সে অনুযায়ী কোম্পানির আর্থিক বিবরণীতে লাভ-ক্ষতি ও অন্যান্য আয়ের বিবরনীতে ১০ কোটি ৯৯ লাখ ৭৯ হাজার ২৮৩ টাকা ব্যয় দেখানো হয়েছে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম/বি

সিভিও পেট্রোকে কাঁচামাল সরবরাহ বন্ধ করেছে সিলেট গ্যাস ফিল্ড

CVO_logo2স্টকমার্কেট ডেস্ক :

জ্বালানি-বিদ্যুৎ খাতের কোম্পানি সিভিও পেট্রোকেমিক্যাল রিফাইনারিকে পূর্বঘোষণা ছাড়া কাঁচামাল সরবরাহ বন্ধ করে দিয়েছে সিলেট গ্যাস ফিল্ড। এতে সিলেট গ্যাস ফিল্ড সিভিওর সাথে চুক্তি লঙ্ঘন করেছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

কোম্পানির নিরীক্ষক প্রতিষ্ঠান ৩০ জুন,২০১৬ সমাপ্ত হিসাব বছরের আর্থিক প্রতিবেদন মূল্যায়নের ভিত্তিতে এ তথ্য জানায়।

নিরীক্ষক প্রতিষ্ঠানের মতে, কোম্পানির আর্থিক প্রতিবেদনের ৩৩.৩ নং অনুচ্ছেদে বর্ণনা করা হয়েছে, সিলেট গ্যাস ফিল্ড কাঁচামাল সরবরাহ বন্ধের কারণে সিভিওর উৎপাদন বন্ধ রয়েছে। বিষয়টি এখনও মামলাধীন। সিলেট গ্যাস ফিল্ড একমাত্র প্রাকৃতিক গ্যাসের কাঁচামাল সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান। গত ১৭ জুলাই কোম্পানিটি কোনো পূর্বঘোষণা ছাড়াই কাঁচামাল সরবরাহ বন্ধ করে দেয়। এতে সিলেট গ্যাস ফিল্ড চুক্তি লঙ্ঘন করেছে বলে মনে করছে নিরীক্ষক প্রতিষ্ঠান।

এই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে কোম্পানিটি উচ্চ আদালতে একটি রীট করে। আদালত সিভিওর নামে গত বছরের ১০ জুন বরাদ্দ কনডেনসেটের বাকী অংশ সরবরাহ করার নির্দেশ দেন সিলেট গ্যাস ফিল্ড কোম্পানিকে। আদেশ জারীর পরবর্তী সাত কার্যদিবসের মধ্যে এই সরবরাহ শুরু করার কথা বলা হয় আদালতের নির্দেশনায়।

কিন্তু সিলেট গ্যাস ফিল্ড আদালতে একটি সিভিল পিটিশন দায়ের করে এবং উচ্চ আদালত কিছু দিনের জন্য বিষয়টি স্থগিত করে। হাইকোর্টের আরেকটি বিভাগ গত ৮ সেপ্টেম্বর অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বিষয়টি নিষ্পত্তি করে। এই সময়ের মধ্যে হাইকোর্টে ছুটি ছিল।

সিলেট গ্যাস ফিল্ডের কনডেনসেট সরবরাহ বন্ধের কারণে গত ১৭ জুলাই থেকে সিভিওর উৎপাদন বন্ধ রয়েছে। কোম্পানিটি আশা করছে আইনি লড়াইয়ের মধ্যে দিয়ে খুব দ্রুত আবার উৎপাদন শুরু করবে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম/বি

  1. বিবিএস
  2. স্কয়ার ফার্মা
  3. সিএমসি কামাল
  4. এমারেল্ড ওয়েল
  5. গোল্ডেন হার্ভেষ্ট
  6. কেয়া কসমেটিকস
  7. সামিট এ্যালায়েন্স
  8. শাশা ডেনিমস
  9. এ্যাপোলো ইস্পাত
  10. ইফাদ অটোস।