এসডিজি অর্জনে সম্মিলিত পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে : বাণিজ্যমন্ত্রী

tofailবিশেষ প্রতিবেদক :

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জনে সম্মিলিত পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ সফল ভাবে এমডিজি অর্জন করে পুরষ্কৃত হয়েছে। এসডিজি অর্জনে সফল ভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। ২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশ এসডিজি অর্জন করতে সক্ষম হবে।

মন্ত্রী আজ জেনেভায় অনুষ্ঠিতব্য ৬ষ্ঠ গ্লোবাল রিভিউ অফ এইড ফর ট্রেড-২০১৭ এর “এইড এন্ড ইনক্লুসিভ ট্রেড : ফাইনেন্সিং ট্রেড কানেকটিভিটি এন্ড দি এসডিজি’স শীর্ষক হাই লেভেল বিষয় ভিত্তিক সেশনে বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

আজ বুধবার ঢাকায় প্রাপ্ত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা বলা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, বিশ্ববাণিজ্য প্রতিবন্ধকতা দূর এবং এলডিসি ভুক্ত দেশগুলোর বাণিজ্য সমক্ষমতা বৃদ্ধি করতে বানিজ্য সম্পর্কিত সকল সংস্থাকে একত্রিত করে পদক্ষেপ গ্রহন করতে হবে।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়ে শুণ্য হাতে যাত্রা শুরু করে। স্বাধীনতার পর ১৯৭৪ সাল থেকে ১৯৯০ সালে গড়ে বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি ছিল ৪ শতাংশের কম, ২০১০ থেকে ২০১৪ সালে তা বেড়ে দাঁড়ায় ৬.৪ শতাংশে। চলতি অর্থ বছরে এ প্রবৃদ্ধি হবে ৭.২৪ ভাগ।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ সরকার গৃহীত ৭ম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা সফল বাস্তবায়নের মধ্যদিয়ে বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৮ শতাংশের কাছাকাছি থাকবে।

২০১৬ থেকে ২০২০ সালের এ পরিকল্পনা বাস্তবায়নের মধ্যদিয়ে এসডিজি অর্জনের পথ সুগম হবে। এতে বাংলাদেশের দারিদ্র বিমোচন, নারী-পুরুষের সমতা, কর্মসংস্থান সৃষ্টিসহ এসডিজি অর্জনের খাত গুলো দ্রুত এগিয়ে যাবে। আরো দুইটি অর্থাৎ ৮ম এবং ৯ম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা সফল বাস্তবায়নের মধ্যদিয়ে ২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশ এসডিজি অর্জন করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করবে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ চাহিদার ৬ ভাগের বেশি তৈরী পোশাক রপ্তানি করে বিশ্বের মধ্যে দ্বিতীয় বৃহত্তম পোশাক রপ্তানি কারক দেশের স্থান দখল করে আছে। রপ্তানির অন্যান্য সম্ভাবনাময় সেক্টরগুলো হলো তথ্য প্রযুক্তি, জাহাজ নির্মাণ, ঔষধ, সিরামিক, ফার্নিচার ও ইলেক্ট্রনিক্স। কৃষি খাতেও বিপুল সম্ভবনা রয়েছে।
হিমায়িত ও সামদ্রিক মাছ রপ্তানিতে এখন বাংলাদেশের অবস্থান ৫ম। সেবা খাতেও বাংলাদেশ বিদেশে শক্ত অবস্থান গড়ে তুলেছে, বর্তমানে রেমিটেন্সের পরিমাণ ১৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

কেদ্রীয় ব্যাংকে বৈদেশিক মূদ্রার রিজার্ভ প্রায় ৩৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। গত বছর রপ্তানি আয় হয়েছে ৩৪.৮৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। বাংলাদেশ এখন দেশের বড় বড় প্রকল্প নিজ অর্থায়নে বাস্তবায়নে সক্ষম।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএ

নিরাপদ মোবাইল ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনায় ডিএমপি’র ৬ পরামর্শ

dmpবিশেষ প্রতিবেদক :

মোবাইল ব্যাংকিং কার্যক্রমের সাথে সংশ্লিষ্ট কতিপয় এজেন্ট/ডিস্ট্রিবিউটরগণ টাকা লেনদেনের নীতিমালা ও নির্দেশনাসমূহ যথাযথ পালন না করার কারণে এ কার্যক্রমকে ব্যবহার করে বিভিন্ন অপরাধী চক্র দেশের ভিতরে ও বাইরে থেকে চাঁদাবাজির ঘটনা সংঘটিত করছে। শুধু তাই নয় অনেক সময় অপরাধীচক্র প্রতারণার মাধ্যমে বিকাশসহ অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং পদ্ধতি ব্যবহার করে টাকা হাতিয়ে নেয়ার ঘটনা ঘটছে মর্মে প্রায়ই অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। এ অবস্থা থেকে উত্তরণের উপায় ভাবা এখন সময়ের দাবী। নিঃসন্দেহে অপিরিচিত কারো সাথে এই মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে অর্থ লেনদেনের ক্ষেত্রে সতর্কতা গুরুত্বপূর্ণ। একই সাথে এ ব্যাংকিং ব্যবস্থা পরিচালনার দায়িত্বে যারা আছেন তাদেরও উচিত এ ব্যবস্থাতে যেন কোন দুর্বলতা বা নিরাপত্তার ঘাটতি না থাকে সে ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া। এ বিষয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কিছু পরামর্শ কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারে।

পরামর্শ :

১। এজেন্ট/ডিস্ট্রিবিউটর নিয়োগের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ব্যাংকের নীতিমালা অনুসরণ করে এজেন্টদের নাম ও ঠিকানা, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সঠিকভাবে যাচাই-বাছাই করা,

২। ঢাকা মহানগরী এলাকায় যে সকল বিকাশ/ইউ ক্যাশ/মোবি ক্যাশসহ অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং এর এজেন্ট বা ডিস্ট্রিবিউটর আছে সে সকল প্রতিষ্ঠানে উন্নতমানের সিসি ক্যামেরা স্থাপন করার (রাত্রিকালীন ছবি ধারণক্ষমতা সম্পন্ন) ব্যবস্থা করা,

৩। স্থায়ী কোন দোকান বা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান না থাকলে এজেন্ট নিয়োগ না করা এবং ব্যাঙের ছাতার মতো রাস্তাঘাটে, ফুটপাতে, গাছের নীচে অস্থায়ীভাবে চেয়ার টেবিল বসিয়ে যত্রতত্র মোবাইল ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনা না করা,

৪। এজেন্ট/ডিস্ট্রিবিউটর নিয়োগের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ব্যাংকের নীতিমালা অনুসরণ করে এজেন্টদের নাম ও ঠিকানা, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সঠিকভাবে যাচাই-বাছাই করা এবং আবেদনকারীদের নাম, ঠিকানা, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ইত্যাদি সংক্রান্তে তথ্যসমূহ স্পেশাল ব্রাঞ্চ, বাংলাদেশ পুলিশ কর্তৃক ভেটিং করানো,

৫। মোবাইল ব্যাংকিং-এ গ্রাহকের হিসাব খোলার আবেদনের ক্ষেত্রে Know your Customers (KYC) Form যথাযথভাবে পূরণ বাধ্যতামূলক করা এবং সরবরাহকৃত তথ্যসমূহ ব্যাংক কর্তৃক সঠিকভাবে যাচাই বাছাই সম্পন্ন না করে মোবাইল ব্যাংকিং কার্যক্রমের অনুমোদন প্রদান না করা,

৬। ক্যাশ আউটের ক্ষেত্রে মোবাইল ব্যাংকিং সেন্টার থেকে যারা ক্যাশ আউট করবে (টাকা উঠাবে) তাদের ছবি, নাম-ঠিকানা, জাতীয় পরিচয়পত্র, ফোন নম্বর গ্রহণ করে প্রয়োজনীয় তথ্য রেজিস্টারে সংরক্ষণের ব্যবস্থা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে এবং এ ব্যাপারে সকল এজেন্টদেরকে যথাযথ প্রশিক্ষণ প্রদান ও সচেতনতমূলক নির্দেশনা প্রদান করা।

এছাড়া মোবাইল ব্যাংকিং (বিকাশ/ইউ ক্যাশ/মোবি ক্যাশ/ডিবিবিএল ক্যাশ ইত্যাদি) এর মাধ্যমে লেনদেনকৃত নগদ টাকা পরিবহনকারীরা সন্ত্রাসীদের সফট টার্গেটে পরিণত হয়েছে এবং টাকা এক স্থান থেকে অন্য স্থানে বহন করাটা ক্রমশ ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠছে। এ ধরণের দুর্ঘটনা ও ঝুঁকি এড়াতে সংশ্লিষ্ট সকল কর্তৃপক্ষকে বেসরকারী নিরাপত্তা সংস্থার আর্মড ভেহিকেল ও নিরাপত্তা রক্ষীদের প্রহরায় টাকা পরিবহনের (মোবাইল ব্যাংকিং) ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য অনুরোধ করছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ। প্রয়োজনে ডিএমপি’র ‘মানি এস্কর্ট’ সার্ভিসও নেয়া যেতে পারে।

সূত্র : ডিএমপি নিউজ

পেনিনসুলা সাধারণ বিমা ফান্ডের সাবস্ক্রিপশন শুরু বৃহস্পতিবার

peni MFস্টকমার্কেট ডেস্ক :

সদ্য অনুমোদন পাওয়া পেনিনসুলা সাধারণ বিমা করপোরেশন ফান্ড ওয়ানের পাবলিক সাবস্ক্রিপশন আগামী ১৩ জুলাই বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হবে। ফান্ড ব্যবস্থাপক সূত্রে এ তথ্য জানায়।

মিউচ্যুয়াল ফান্ডটির উদ্দ্যোক্তা হিসেবে থাকবে সাধারণ বিমা করপোরেশন। আর ট্রাস্ট্রি হিসাবে ইনভেষ্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (আইসিবি)।

পেনিনসুলা সাধারণ বিমা করপোরেশন ফান্ড ওয়ানের সম্পদ ব্যবস্থাপক হিসাবে পেনিনসুলা এসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি লিমিটেড কাজ করবে।

এছাড়া কাস্টোডিয়ান হিসাবে রয়েছে ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড।

২০ কোটি টাকার এই মিউচ্যুয়াল ফান্ডটির বিক্রয় এজেন্টস সাধারণ বিমা করপোরেশন, ইনভেষ্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (আইসিবি), ড্রাগন সিকিউরিটিজ লি., আলফা ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড ও এনএলআই সিকিউরিটিজ লিমিটেড।

সম্প্রতি পাবলিক সাবস্ক্রিপশনের সংক্ষিপ্ত বিবরণী গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/মোদক.

ম্যারিকো বিডির ১ম প্রান্তিকের বোর্ড সভা আহবান

maricoস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ওষুধ ও রসায়ন খাতের কোম্পানি ম্যারিকো বাংলাদেশ লিমিটেডের প্রথম প্রান্তিকের বোর্ড সভা আগামী ১৭ জুলাই আহবান করা হয়েছে। মঙ্গলবার ডিএসই’র ওয়েবসাইটে এ তথ্য জানা গেছে।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (লিস্টিং) রেজুলেশন ২০১৫ এর ১৬(১) ধারা অনুযায়ী, এই বোর্ড সভায় কোম্পানিটির চলতি অর্থ বছরের প্রথম প্রান্তিক ৩০ জুন ২০১৬ পর্যন্ত অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করা হবে।

বিমা খাতের এই কোম্পানিটির বোর্ড সভা এদিন বেলা ২টা ৪৫ মিনিটে নিজস্ব করপোরেট  কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হবে।

সভায় শেয়ারহোল্ডারদের জন্য চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকের ইপিএস ও ন্যাভসহ অন্যান্য আর্থিক তথ্য শেয়ারহোল্ডারদের জানিয়ে দেওয়া হবে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/মোদক.

৫০ হাজার শেয়ার বিক্রয় করবেন ব্যাংক উদ্দ্যোক্তা

al-arafah_110114স্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংক খাতের কোম্পানি আল-আরাফাহ‌ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের একজন উদ্দ্যোক্তা ৫০ হাজার শেয়ার বিক্রয়ের ঘোষণা দিয়েছেন। মঙ্গলবার ডিএসই’র ওয়েবসাইটে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ড. বাহাউদ্দিন মোহাম্মদ ইউসুফ নামে ব্যাংকটির এই উদ্দ্যোক্তার হাতে থাকা ৯ লাখ ৮৪২টি শেয়ারের মধ্যে ৫০ হাজার শেয়ার বিক্রয় করবেন।

এই উদ্দ্যোক্তা এসব শেয়ার চলমান বাজার দরে পাবলিক মার্কেটে বিক্রয় করবে।

ঘোষণার পর ৩০ দিনের মধ্যে উল্লেখিত পরিমাণ শেয়ার বিক্রয় করা হবে বলে ব্যাংকটির পক্ষ থেকে জানানো হয়।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/মোদক

১১ মাসে বাণিজ্য ঘাটতি ৯০০ কোটি ডলার ছাড়াল

dollarবিশেষ প্রতিবেদক :

পণ্য বাণিজ্যে ঘাটতি অনেক বেশি হারে বাড়ছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ পরিসংখ্যান বলছে, গত অর্থবছরের প্রথম ১১ মাসে বাণিজ্য ঘাটতি ৯শ’ কোটি ডলার ছাড়িয়ে গেছে। আগের অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় বেড়েছে ৩০ শতাংশ। বাণিজ্য ঘাটতির পাশাপাশি প্রবাসী বাংলাদেশিদের পাঠানো রেমিট্যান্স ব্যাপক হারে কমেছে। এ কারণে বিদেশের সঙ্গে চলতি হিসাবে বড় অঙ্কের ঘাটতি তৈরি হয়েছে। অবশ্য সমাগ্রিক লেনদেন ভারসাম্যে ( ব্যালেন্স অব পেমেন্ট) এখনও উদ্বৃত্ত রয়েছে।

২০১৫-১৬ অর্থবছরে জ্বালানি তেল ও অন্যান্য পণ্যের দাম কম ছিল। আমদানি ব্যয় বৃদ্ধির হার ছিল মাত্র ৫ দশমিক ৪৫ শতাংশ। অন্যদিকে রফতানি বেড়েছিল প্রায় ৯ শতাংশ। ফলে ওই অর্থবছরে বাণিজ্য ঘাটতি এর আগের অর্থবছরের চেয়ে কম ছিল। ২০১৬-১৭ অর্থবছরে এ অবস্থার পরিবর্তন হয়েছে। কয়েক মাস ধরে তেলের দাম ঊর্ধ্বমুখী। অন্যান্য পণ্যের দামও বাড়ছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, গত অর্থবছরের জুলাই থেকে মে পর্যন্ত ১১ মাসে বাংলাদেশ ৪ হাজার ২৫ কোটি ডলারের পণ্য আমদানি করেছে। আগের অর্থবছরের একই সময়ের চেয়ে যা ১০ দশমিক ৬৮ শতাংশ বেশি। এ সময়ে রফতানি ৩ দশমিক ৮০ শতাংশ বেড়ে আয় হয়েছে ৩ হাজার ১০৫ কোটি ডলার। আমদানি ও রফতানির পার্থক্য অর্থাৎ বাণিজ্য ঘাটতির পরিমাণ ৯১৯ কোটি ৮০ লাখ ডলার। পণ্যের পাশাপাশি সেবা বাণিজ্যেও বাংলাদেশের ঘাটতি বেড়েছে।

আলোচ্য সময়ে এখানে বাংলাদেশ ৩১০ কোটি ডলারের ঘাটতিতে রয়েছে। ২০১৫-১৬ অর্থবছরের প্রথম ১১ মাসে এ খাতে ২৪৩ কোটি ডলারের ঘাটতি ছিল। পণ্য ও সেবা বাণিজ্যে ঘাটতি এবং রেমিট্যান্স কমে যাওয়ায় চলতি হিসাবে ঘাটতি বেড়েছে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএ

  1. বেক্সিমকো ফার্মাসিটিক্যালস
  2. কেয়া কসমেটিক্স লি.
  3. ইসলামী ব্যাংক লি.
  4. অগ্নি সিস্টেমস লি.
  5. সিটি ব্যাংক
  6. মার্কেন্টাইল ব্যাংক
  7. প্রাইম ব্যাংক
  8. সাইফ পাওয়ার
  9. ফুয়াং ফুডস
  10. কনফিডেন্স সিমেন্ট।

সূচকের সামান্য উত্থানে বেড়েছে লেনদেন

DSE_CSE-smbdনিজস্ব প্রতিবেদক :

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের  সামান্য উত্থান হয়েছে। এদিন সেখানে বেড়েছে লেনদেন ও কমেছে অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ারের দর। আর চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) সব ধরণের মূল্য সূচকের সাথে বেড়েছে দিনের লেনদেন। তবে কমেছে শেয়ারের দর। ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

ডিএসই সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার দিনের শেষে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ১৩২০ টাকার লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিনের চেয়ে ৫৬ কোটি টাকা বেশি। গতকাল সোমবার সেখানে ১২৬৪ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

এদিন ডিএসইতে ডিএসইএক্স সূচক আগের দিনের চেয়ে ৩.৫৮ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৫৮৩০ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ২.১৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৩২১ পয়েন্টে। ডিএসই-৩০ সূচক ৪.৪৫ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ২১২৬ পয়েন্টে।

এদিন দিনভর লেনদেন হওয়া মোট ৩৩১টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১০৭টির, কমেছে ১৯৫টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ২৯টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার দর।

এদিন ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষ ১০ কোম্পানির মধ্যে রয়েছে– বেক্সিমকো ফার্মাসিটিক্যালস, কেয়া কসমেটিক্স লি., ইসলামী ব্যাংক লি., অগ্নি সিস্টেমস লি., সিটি ব্যাংক, মার্কেন্টাইল ব্যাংক, প্রাইম ব্যাংক, সাইফ পাওয়ার, ফুয়াং ফুডস ও কনফিডেন্স সিমেন্ট।

এদিকে, মঙ্গলবার দিনশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ৭৬ কোটি ৭০ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। গতকাল সোমবার এই লেনদেন ৮১ কোটি ৩২ লাখ টাকা ছিল। আজ দিনশেষে লেনদেন আগের দিনের চেয়ে ৪ কোটি ৬২ লাখ টাকা কমেছে।

এদিন সিএসই সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৫৩.৩১পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৮ হাজার ১১ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৬০টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৯৪টির, কমেছে ১৪৫টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২১টির।

এদিন সিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে ছিল ব্যাংক কেয়া কসমেটিকস ও বেক্সিমকো ফার্মাসিটিক্যালস ।

স্টকমার্কেটকবিডি.কম/এমএ/মোদক.

৬৩৯৩ কোটি টাকা ব্যয়ে ৯ প্রকল্পের অনুমোদন

ecnec-smbdবিশেষ প্রতিবেদক :

৬৩৯৩ কোটি টাকা ব্যয়ে ৯ প্রকল্পের চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)। আজ মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলানগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত বৈঠকে প্রকল্পগুলোর অনুমোদন দেওয়া হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনা।

সভায় মোট ১০টি প্রকল্প উপস্থাপন করা হয়। এর মধ্যে ৯টি প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হলেও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) বহুদিনের প্রত্যাশিত ২৮৭ কোটি ১৩ লাখ ৮৯ হাজার টাকার অধিকতর উন্নয়ন মেগা প্রকল্পটি অনুমোদন দেয়নি একনেক সভা।

জবির ওই প্রকল্পের প্রধান উদ্দেশ্য ছিলো কেরানীগঞ্জে জবির নিজস্ব সাড়ে সাত একর জমির ওপর একটি ২০তলা একাডেমিক ভবন নির্মাণ ও এক হাজার আসন বিশিষ্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে ছেলেদের আবাসিক হল নির্মাণ।

অনুমোদন না দেওয়া প্রসঙ্গে একনেক সভা জানায়, কেরানীগঞ্জে একাডেমিক ভবন ও হল নির্মাণ না করে মাস্টার প্ল্যানের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে অবকাঠামো নির্মাণ করতে হবে। প্রকল্পটি পুনর্গঠন করে আনার জন্য কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেয় একনেক সভা।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএ

বুধবার থেকে স্পট মার্কেটে যাচ্ছে বিআইএফসি

bifcস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত আর্থিক প্রতিষ্ঠান খাতের কোম্পানি বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স কোম্পানি লিমিটেড (বিআইএফসি) বুধবার থেকে মোট ১২ দিনের জন্য স্পট মার্কেটে যাচ্ছে। মঙ্গলবার ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ডিএসই সূত্রে জানা যায়, আগামী ১২ (১২.০৭.২০১৭) জুলাই থেকে ২৪ জুলাই (২৪.০৭.২০১৭) পর্যন্ত স্পট মার্কেটে লেনদেন করবে বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স কোম্পানি লিমিটেড। কোম্পানিটির রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২৫ জুলাই। এদিন কোম্পানির লেনদেন বন্ধ থাকবে।

২০১৩ সাল ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত কোম্পানিটি ৫ শতাংশ বোনাস শেয়ার দেয়। এরপর কোম্পানিটি গত ২ বছরে কোনো লভ্যাংশ দিতে পারেনি।

আগামী ২০ সেপ্টেম্বর কোম্পানির বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হবে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/বি