বিশ্বের মধ্যে বাংলাদেশ এখন বিনিয়োগের জন্য চমৎকার স্থান : বাণিজ্যমন্ত্রী

tofail Ministerস্টকমার্কেট প্রতিবেদক :

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, সৌদি ব্যবসায়ীরা বাংলাদেশে বিনিয়োগ করলে লাভবান হবেন। বিশ্বের মধ্যে বাংলাদেশ এখন বিনিয়োগের জন্য চমৎকার স্থান। এখানে অতি অল্প খরচে বিশ্বমানের পণ্য উৎপাদন করা সম্ভব।

আজ বুধবার ঢাকার গুলশানে হোটেল আমরিতে এফবিসিসিআই আয়োজিত বাংলাদেশে সফররত সৌদি আরবের উচ্চ পর্যায়ের ২১ সদস্য বিশিষ্ট ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দলের সাথে ব্যাবসা-বাণিজ্য সংক্রান্ত এক বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে দেশে বিনিয়োগের সুযোগ সৃষ্টির জন্য সুবিধা জনক বিভিন্ন স্থানে ১০০টি স্পেশাল ইকোনমিক জোন গড়ে তোলার কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। দেশী-বিদেশী বিনিয়োগকারীদের জন্য বিশেষ সুযোগ-সুবিধা প্রদান করা হচ্ছে। সৌদি বিনিয়োগকারীরা একটি স্পেশাল ইকোনমিক জোনে বিনিয়োগ করতে পারেন।

এফবিসিসিআই-এর প্রেসিডেন্ট মো. শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিনের সভাপতিত্বে বৈঠকে সৌদি আরবের ইন্টারন্যাশনাল মার্কেটিং ইনভেস্টমেন্ট কোম্পানি গ্রুপ লিমিটেডের এক্সিকিউটিভ প্রেসিডেন্ট মোশাবাব আব্দুল্লা আলখাহতানি, সৌদিআরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মশি, বাংলাদেশ ইনভেষ্টমেন্ট ডেভেলপমেন্ট অতরিটির নির্বাহী চেয়ারম্যান কাজী এম আমিনুল ইসলাম এবং এফবিসিসিআই-এর প্রথম ভাইস প্রেসিডেন্ট শেখ ফজলে ফাহীম বক্তব্য রাখেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে বিনিয়োগকারীরা এখন শতভাগ বিনিয়োগের সুযোগ পাচ্ছেন। কোন ধরনের বাধা ছাড়াই যে কোন সময় লাভসহ পুরো বিনিয়োগকৃত অর্থ ফিরিয়ে নিতে পারবেন। বাংলাদেশে উৎপাদিত পণ্য রপ্তানি ক্ষেত্রে দ্বৈত শুল্কনীতি প্রত্যাহার করা হয়েছে। বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ রক্ষার জন্য আইন পাস করা হয়েছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ এলডিসিভুক্ত দেশ হিসেবে উন্নত বিশ^ থেকে ডিউটি ও কোটা ফ্রি সুবিধা পাচ্ছে। বাংলাদেশে বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানগুলো উৎপাদিত পণ্য রপ্তানির ক্ষেত্রে সে সুবিধাও ভোগ করতে পারবে। সৌদি ব্যবসায়ীগণ বাংলাদেশে বিনিয়োগ করে এ সুবিধা গ্রহণ করতে পারেন। বাংলাদেশ সরকার বিনিয়োগকারীদের চাহিদা মোতাবেক প্রয়োজনীয় সবধরনের সহযোগিতা প্রদান করছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান শূন্য হাতে দেশ পরিচালনার দায়িত্ব ভার প্রহণ করেছিলেন। বঙ্গবন্ধ বাংলাদেশ স্বাধীন করে গেছেন, আজ তাঁরই কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য সফল ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, ১৯৭২-৭৩ সালে বাংলাদেশ শুধু পাট, চা ও চামড়াসহ মাত্র ২৫টি পণ্য রপ্তানি করে আয় করতো ৩৪৮.৪২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। আজ সেই বাংলাদেশ সাড়ে সাত শত পণ্য বিশে^র প্রায় সকল দেশে রপ্তানি করে সার্ভিস সেক্টরসহ আয় করছে ৩৮.৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। বাংলাদেশ এখন তৈরী পোশাক রপ্তানিতে বিশে^র মধ্যে দ্বিতীয় বৃহত্তম দেশ।

তিনি বলেন, সৌদি আরবের সাথে বাংলাদেশের বাণিজ্য বৃদ্ধির প্রচুর সুযোগ রয়েছে। বর্তমানে উভয় দেশের বাণিজ্য ৮০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের মধ্যে সীমাবন্ধ। উভয় দেশের ব্যবসায়ীগণ এগিয়ে এলে এ বাণিজ্য অনেক বৃদ্ধি করা সম্ভব।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএ

এসডিজি বাস্তবায়নে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে সম্পৃক্ত করার পরামর্শ

piiস্টকমার্কেট প্রতিবেদক :

টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) বাস্তবায়নে আদিবাসী, শিশু, নারী, দলিত, বৃদ্ধ, প্রতিবন্ধী, বৃহন্নলা তথা পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে সম্পৃক্ত করার পরামর্শ দিয়েছে নাগরিক প্ল্যাটফর্ম। বুধবার (৬ ডিসেম্বর) রাজধানীর খামারবাড়ি কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে এই প্ল্যাটফর্মের এক অনুষ্ঠানে একথা বলেন সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা।

মানবাধিকার কর্মী অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল বলেছেন, ‘এসডিজির মাধ্যমে সবাইকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার সুযোগ এসেছে। কাউকে পেছনে রাখা যাবে না। এসডিজির মাধ্যমে আমরা যে প্রতিজ্ঞা করেছি, তার মাধ্যমে প্রতিটি নাগরিকের জীবনে একটা পরিবর্তন নিয়ে আসা যাবে। ফলে প্রত্যেক মানুষের জীবন সাফল্যের সঙ্গে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে পারে।’

ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান বলেছেন, ‘দেশে যেন সুশাসন প্রতিষ্ঠিত হয় সেজন্য সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তি পরস্পর হাত রেখে এগিয়ে যেতে হবে। মানুষের মর্যাদা যেন প্রত্যেক মানুষ পায় তা নিশ্চিত করতে হবে।’

অনুষ্ঠানে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন অর্থনীতিবিদ রেহমান সোবহান, রাশেদা কে. চৌধুরী, অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমান ও আসিফ ইব্রাহীম।
দিনব্যাপী সম্মেলনে চারটি ইস্যুতে পৃথক সেশন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এগুলো হলো— অর্থনৈতিক, সামাজিক, জলবায়ু ও পরিবেশ প্রসঙ্গ এবং সুশাসন। ‘বাংলাদেশে রূপান্তরমুখী অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়ন অন্বেষণে: তাদেরকে পেছনে রাখা যাবে না’ শীর্ষক গবেষণা প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি) রিসার্চ ফেলো তৌফিকুল ইসলাম খান।

নাগরিক প্ল্যাটফর্মের আহ্বায়ক ও সিপিডির ফেলো ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্যের সমাপনী বক্তব্যের মধ্য দিয়ে বিকাল ৫টায় সম্মেলন শেষ হবে। এর আগে বিকাল ৪টায় নাগরিক সমাজের পক্ষ থেকে পাঠ করা হয় ঘোষণাপত্র।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএ

নভেম্বর মাসে ডিএসইতে বিদেশীদের লেনদেন বেড়েছে দ্বিগুণ

dseস্টকমার্কেট প্রতিবেদক :

একমাস পর শেয়ারবাজারে বিদেশি ও প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের শেয়ার কেনা-বেচা বেড়েছে দ্বিগুণ। ফলে অক্টোবর মাসের তুলনায় নভেম্বর মাসে ডিএসইতে লেনদেনও বেড়েছে প্রায় দ্বিগুণ। তবে কমেছে প্রকৃত বিনিয়োগ।

বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, যৌক্তিমূল্যের চেয়ে কম দাম থাকা বহুজাতিক কোম্পানি, ব্যাংক এবং আর্থিক খাতসহ বেশকিছু খাতের শেয়ার কিনছেন বিদেশিরা। অন্যদিকে যৌক্তিমূল্যের চেয়ে বেশি দাম বাড়ায় দ্বিগুণ মুনাফায় শেয়ার বিক্রি করে দিচ্ছেন তারা। ফলে অক্টোবর মাসের চেয়ে নভেম্বর ‍মাসে বিদেশি বিনিয়োগকারীদের লেনদেন বেড়েছে।

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই)র তথ্য মতে, নভেম্বর মাসে বিদেশি লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ২৫৩ কোটি ৪৩ লাখ ২৬ হাজার ৬৯ টাকার। এর আগের মাস অক্টোবরে লেনদেন হয়েছিলো ৬৪২ কোটি ২ হাজার ৭৩২ টাকার। যা আগের মাসের চেয়েছে ৬১১ কোটি ৩৪ লাখ ২৩ হাজার ৩৩৭ টাকা বেশি। তার আগের দুই মাস আগস্ট ও সেপ্টেম্বরেও লেনদেন বেড়েছে তারও আগের মাসের চেয়ে।

লেনদেনের বৃদ্ধির পাশাপাশি বিদায়ী এই মাসে নিট বিনিয়োগ হয়েছে ১৮ কোটি ৯৪ লাখ ৯৯ হাজার ১৫৯ টাকা। এর আগের মাসে নিট বিনিয়োগ হয়েছিলো ১৫১ কোটি ৭২ লাখ ৭৩ হাজার ৪৭৫ টাকার।

নভেম্বর মাসের ১ হাজার ২৫৩ কোটি টাকার লেনদেনের মধ্যে বিদেশিরা নতুন করে শেয়ার কিনেছেন ৬৩৬ কোটি ১৯ লাখ ১২ হাজার ৬১৪ টাকার। তার বিপরীতে বিদেশিরা শেয়ার বিক্রি করেছেন ৬১৭ কোটি ২৪ লাখ ১৩ হাজার ৪৫৫ টাকার। অর্থাৎ এই মাসে ডিএসইতে নিট বিনিয়োগ হয়েছে ১৮ কোটি ৯৪ লাখ ৯৯ হাজার ১৫৯ টাকা।

শেয়ার কেনা-বেচা বাবদ অক্টোবর মাসে বিদেশি লেনদেন হয়েছিলো ৬৪২ কোটি ২ হাজার ৭৩২ টাকার। এর মধ্যে বিদেশিরা শেয়ার বিক্রি করেছেন ৩৯৬ কোটি টাকার। তার বিপরীতে ২৪৫ কোটি ১৩ লাখ ৬৪ হাজার ৬২৮ টাকার শেয়ার কিনেছিলেন। অর্থাৎ সেই মাসে ডিএসইতে নিট বিনিয়োগ হয়েছিলো ১৫১ কোটি ৭২ লাখ ৭৩

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএইচ

প্রাইম টেক্সটাইলের এজিএমের সময় পরিবর্তন

primস্টকমার্কেট ডেস্ক:

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত বস্ত্র খাতের কোম্পানি প্রাইম টেক্সটাইল স্পিনিং কোম্পানি লিমিটেডের ২৯ তম বার্ষিক সাধারণ সভার (এজিএম) সময় পরিবর্তন হয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

আগামী ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য এজিএমটি সকাল ১১ টার পরিবর্তে ১০ টায় অনুষ্ঠিত হবে বলে কোম্পানিটি জানায়। অনিবার্য কারনবশত সময়ের এই পরিবর্তন হলেও অন্যান্য সব বিষয় অপরিবর্তিত রয়েছে।

এজিএমটি নারায়নগঞ্জের পাগলায় অবস্থিত নিজস্ব কারখানায় অনুষ্ঠিত হবে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএ

  1. স্কয়ার ফার্মা
  2. গোল্ডন হার্ভেষ্ট
  3. বিডি থাই
  4. প্রিমিয়াম সিমেন্ট
  5. গ্রামীনফোন
  6. প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল
  7. সিটি ব্যাংক
  8. জাহিন স্পিনিং
  9. কনফিডেন্স সিমেন্ট
  10. লংকা-বাংলা ফাইন্যান্স।

ডিএসই ও সিএসইতে কমেছে লেনদেন ও সূচক

DSE_CSE-smbdস্টকমার্কেট প্রতিবেদক :

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) দিনশেষে টাকার অংকে লেনদেনের পরিমাণ আগের দিনের চেয়ে কমেছে। এদিন ডিএসইতে ও সিএসইতে কমেছে মূল্য সূচক। ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

বুধবার লেনদেন শেষে ডিএসইতে প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২০.৪৫ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৬২৬৬ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ০.০৬ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৩৯০ পয়েন্টে এবং ডিএস-৩০ সূচক ৬.৫৮ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ২২৭১ পয়েন্টে।

এদিন লেনদেন হয়েছে ৫৮৪ কোটি ৮০ লাখ টাকা। গতকাল মঙ্গলবার লেনদেনের পরিমাণ ছিল ৬৪৮ কোটি ৫০ লাখ টাকা।

ডিএসইতে আজ ৩৩৩টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ারের লেনদেন হয়। এর মধ্যে ১১৩টির শেয়ারের দর বেড়েছে, কমেছে ১৭২টির। আর দর অপরিবর্তিত আছে ৪৮টির।

এদিন ডিএসইতে লেনদেনে এগিয়ে থাকা ১০টি কোম্পানি হলো – স্কয়ার ফার্মা, গোল্ডন হার্ভেষ্ট, বিডি থাই, প্রিমিয়াম সিমেন্ট, গ্রামীনফোন, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল, সিটি ব্যাংক, জাহিন স্পিনিং, কনফিডেন্স সিমেন্ট ও লংকা-বাংলা ফাইন্যান্স।

এদিকে দিনশেষে দেশের অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) ব্রড ইনডেক্স ৫১.২৯ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১১ হাজার ৭২৫ পয়েন্টে।

দিনভর লেনদেন হওয়া ২৪৮টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৭৫টির, কমেছে ১৪৪টির ও দর অপরিবর্তিত রয়েছে ২৯টির।

এদিন টাকায় লেনদেন হয়েছে ২৭ কোটি ৪৬ লাখ টাকা। গতকাল মঙ্গলবার ছিল ৩২ কোটি ৩২ লাখ টাকা। এ হিসাবে লেনদেন আগের দিনের চেয়ে বেড়েছে।

দিনশেষে সিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে রয়েছে প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল ও স্কয়ার ফার্মা।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএইচ

এনআরবি কমার্শিয়ালের এমডি অপসারিত

nrbস্টকমার্কেট প্রতিবেদক :

অনিয়ম ও দুর্নীতির প্রমাণ নিশ্চিত হওয়ায় এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের (এনআরবিসি) ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) দেওয়ান মুজিবর রহমানকে অপসারণ করেছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির। আগামী দুই বছর তাঁর কোনো ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানে যোগদানের ওপরও নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। আজ বুধবার সকালে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে ব্যাংকটিতে পাঠানো এক নির্দেশনায় এ নির্দেশ দেওয়া হয়।
এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র শুভঙ্কর সাহা।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তদন্তে ২০১৬ সালেই এনআরবিসির ৭০১ কোটি টাকা ঋণে গুরুতর অনিয়মের তথ্য বেরিয়ে আসে। এর পরিপ্রেক্ষিতে ব্যাংকটিতে পর্যবেক্ষক নিয়োগ দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। চলতি বছরের ২০ মার্চ ব্যাংকটির চেয়ারম্যান ও এমডির কাছে পাঠানো পৃথক নোটিশে বাংলাদেশ ব্যাংক জানায়, আমানতকারীদের স্বার্থে ও জনস্বার্থে এনআরবিসি ব্যাংক চালাতে ব্যর্থ হয়েছে ফরাছত আলীর নেতৃত্বাধীন পরিচালনা পর্ষদ। আর এমডি ব্যর্থ হয়েছেন ব্যাংকটিতে যথাযথ ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করতে। এমনকি তাঁরা গুরুতর প্রতারণা ও জালিয়াতি করেছেন, যা ফৌজদারি আইন অনুযায়ী দণ্ডনীয়।

এমডিকে এসব কথা জানিয়ে ব্যাংক কোম্পানি আইনের ৪৬ ধারা অনুযায়ী কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে কেন আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে না এবং এমডিকে কেন অপসারণ করা হবে না, নোটিশে তা জানতে চাওয়া হয়েছে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএইচ

জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুদকে বেসিকের সাবেক চেয়ারম্যান

dudokস্টকমার্কেট প্রতিবেদক :

আবদুল হাই বাচ্চুবেসিক ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল হাই বাচ্চুকে দ্বিতীয় দিনের মতো জিজ্ঞাসাবাদ করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। আজ বুধবার সকাল ১০টার দিকে তিনি সেগুনবাগিচায় দুদক কার্যালয়ে যান। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সেখানে তার জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

দুদকের উপ-পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য জানিয়েছেন, দুদকের পরিচালক জায়েদ হোসেন খান ও সৈয়দ ইকবাল হোসেনের নেতৃত্বে ৯ কর্মকর্তার একটি কমিটি তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। তদন্ত কর্মকর্তারা আলাদা আলাদা মামলায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছেন।

তারা জানান, প্রথমদিন ৯ জন কর্মকর্তা সম্মিলিতভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করলেও আজকে মামলা অনুসারে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

এর আগে গত সোমবার (৪ ডিসেম্বর) বেসিক ব্যাংকের সাবেক এই চেয়ারম্যানকে জিজ্ঞাসাবাদ করে দুদক। এরই মধ্যে ব্যাংকের সাবেক পরিচালনা পর্ষদের ১০ সদস্যকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দুদক।

প্রসঙ্গত, বেসিক ব্যাংকের জালিয়াতিতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তদন্তে বেসিক ব্যাংকের তিনটি শাখায় প্রায় সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকা জালিয়াতির বিষয় ধরা পড়ে। এর মধ্যে গুলশান শাখায় এক হাজার ৩০০ কোটি টাকা, শান্তিনগর শাখার ৩৮৭ কোটি টাকা, প্রধান শাখায় প্রায় ২৪৮ কোটি টাকা ও দিলকুশা শাখায় ১৩০ কোটি টাকার ঋণ বিতরণ শনাক্ত করা হয়। এছাড়া বেসিক ব্যাংকের নিজেদের তদন্তে আরও এক হাজার কোটি টাকার জালিয়াতি প্রকাশ পায়। বেসিক ব্যাংকে এখন পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ৫ হাজার কোটি টাকার জালিয়াতির ঘটনা ধরা পড়েছে। বেসিক ব্যাংক কেলেঙ্কারির ঘটনায় ৫৬টি মামলা করেছে দুদক।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএইচ

দ্যা পেনিনসুলার উদ্দ্যোক্তার ৪ লাখ শেয়ার কেনা সম্পন্ন

the-peninsula-chittagongস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত সেবা ও আবাসন খাতের কোম্পানি দ্যা পেনিনসুলা চিটাগাং লিমিটেডের একজন উদ্দ্যোক্তা পরিচালক ৪ লাখ শেয়ার কেনা সম্পন্ন করেছেন। বুধবার ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, মিসেস আয়েশা সুলতানা নামে এই পরিচালক কোম্পানিটির ৪ লাখ শেয়ার কিনলেন।

ঘোষণার পর ৩০ দিনের মধ্যে এই উদ্যোক্তা পরিচালক চলমান বাজার দরে (পাবলিক মার্কেট/ব্লক মার্কেট) হতে উল্লেখিত পরিমাণ শেয়ার কিনবেন।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/

ওয়াটা কেমিক্যালসের মূল্য সংবেদনশীল তথ্য নেই

wata-smbdস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে রসায়ন ও ঔষধ খাতের কোম্পানি ওয়াটা কেমিক্যালস লিমিটেডের সম্প্রতি শেয়ার দর বাড়ার পিছনে কোনো মূল্য সংবেদনশীল তথ্য অপ্রকাশিত নেই। বুধবার ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

সম্প্রতি শেয়ারটির দর বাড়ার কারণ জানতে চাইলে কোম্পানিটির পক্ষ থেকে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জকে (ডিএসই) এ কথা জানানো হয়।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত ৭ নভেম্বর কোম্পানিটির শেয়ারের দর ছিল ২০৬ টাকা। গতকাল ৫ ডিসেম্বর কোম্পানির শেয়ারের দর বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২২৩ টাকায়। এ সময় কোম্পানিটির দর ১৭ টাকা বেড়েছে।

কোম্পানিটির শেয়ারের এ দর বাড়াকে অস্বাভাবিক বলে মনে করছে ডিএসই। দর বাড়ার পেছনে মূল্য সংবেদনশীল কোনো তথ্য কিনা… তা জানতে চায় ডিএসই। এ সময় ওয়াটা কেমিক্যালস লিমিটেডের পক্ষ থেকে জানানো হয়, শেয়ারের দর বৃদ্ধির পেছনে মূল্য সংবেদনশীল অপ্রকাশিত কোনো তথ্য কোম্পানিটির নিকট নেই।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম/বি