সেরা কর দাতার তালিকায় রয়েছে শেয়ারবাজারের যে সব কোম্পানি…

nrbস্টকমার্কেটবিডি প্রতিবেদক :

জাতীয় ট্যাক্সকার্ড নীতিমালা, ২০১০ (সংশোধিত) অনুযায়ী গত বৃহস্পতিবার সাংবাদিকসহ সেরা করদাতা মোট ১৪১ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের নামের তালিকা উল্লেখ করে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) প্রজ্ঞাপন প্রকাশ করে। এই প্রজ্ঞাপনে এই তথ্য উঠে এসেছে।

এবছর ব্যাংকিং প্রাতিষ্ঠানিক করদাতার শ্রেণিতে রয়েছে ইসলামী ব্যাংক, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক, এইচএসবিসি, সাউথইস্ট ব্যাংক ও পূবালী ব্যাংক।

অব্যাংকিং আর্থিক খাত শ্রেণিতে রয়েছে আইডিএলসি ফাইন্যান্স, ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশ, বাংলাদেশ ইনফ্রাস্ট্রাকচার ফাইন্যান্স ফান্ড এবং উত্তরা ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট।

খাদ্য ও আনুষঙ্গিক প্রাতিষ্ঠানিক করদাতার এ শ্রেণিতে রয়েছে নেসলে বাংলাদেশ, অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ ও ট্রান্সকম বেভারেজেস।

প্রকৌশল শ্রেণিতে বিএসআরএম স্টিলস, পিএইচপি কোল্ড রোলিং মিলস এবং পিএইচপি নফ কন্টিনিউয়াস গ্যালভানাইজিং মিলস কার্ড পাচ্ছে।

তৈরি পোশাক শ্রেণিতে কার্ড পাচ্ছে রিফাত গার্মেন্টস, জিএমএস কম্পোজিট, দ্যাটস ইট স্পোর্টস ওয়্যার, ফোর এইচ ফ্যাশন, কেডিএস গার্মেন্টস ও অ্যাপেক্স লেনজারি।

এ ছাড়া টেলিযোগাযোগে গ্রামীণফোন; জ্বালানিতে তিতাস গ্যাস, সিলেট গ্যাস ও শেভরন বাংলাদেশ; পাটশিল্পে জনতা জুট, সুপার জুট ও আইয়ান জুট; আবাসনে স্পেসজিরো, বে ডেভেলপমেন্টস ও স্ট্রাকচারাল ইঞ্জিনিয়ার্স; চামড়াশিল্পে বাটা শু, অ্যাপেক্স ফুটওয়্যার ও লালমাই ফুটওয়্যার; অন্যান্য শ্রেণিতে ব্রিটিশ–আমেরিকান টোব্যাকো, মেটলাইফ, লাফার্জ হোলসিম ও নিটল মোটরস; অন্যান্য করদাতার ফার্ম পর্যায়ে ওয়ালটন মাইক্রোটেক করপোরেশন, এস এন করপোরেশন, ওয়ালটন প্লাজা ও এ এস বি এস কার্ড পাচ্ছে।

অন্যবারের মতো এবারও সিটি করপোরেশন ও জেলা পর্যায়ে সর্বোচ্চ করদাতা, দীর্ঘ সময় ধরে কর দিচ্ছেন এমন করদাতা, সর্বোচ্চ করদাতা নারী ও তরুণ করদাতার তালিকা প্রকাশ করেছে এনবিআর। ব্যক্তি পর্যায়ে ট্যাক্সকার্ড দিতে ‘বিশেষ শ্রেণি’ এবং ‘আয়ের উৎস বা পেশা’ নামের দুটি শ্রেণি করা হয়েছে প্রজ্ঞাপনে। বিশেষ শ্রেণির মধ্যে রয়েছে সিনিয়র সিটিজেন, গেজেটভুক্ত যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা, প্রতিবন্ধী, নারী এবং ৪০ বছরের কম বয়সী তরুণ।

অন্যদিকে আয়ের উৎস বা পেশার মধ্যে ১৩ ক্যাটাগরির মধ্যে রয়েছেন ব্যবসায়ী, বেতনভোগী, চিকিৎসক, সাংবাদিক, আইনজীবী, প্রকৌশলী, স্থপতি, হিসাববিদ, নতুন করদাতা, খেলোয়াড়, অভিনেতা/অভিনেত্রী, শিল্পী (গায়ক/গায়িকা) এবং অন্যান্য। আর কোম্পানি পর্যায়ে করা হয়েছে ১৪টি শ্রেণি।

এ বছরে অভিনেতা/অভিনেত্রী ক্যাটাগরিতে সেরা করদাতা হয়েছেন মাহফুজ আহমেদ, এম এ জলিল অনন্ত এবং এস এ আবুল হায়াত। শিল্পী শ্রেণিতে রয়েছেন রুনা লায়লা, তাহসান রহমান খান ও এস ডি রুবেল।

এবার অবশ্য নতুন করে কোনও পরিবারকেই কর বাহাদুর পরিবারের স্বীকৃতি দেওয়া হচ্ছে না। আলাদা শ্রেণি করে তিন বছর আগে থেকে সেরা করদাতাদের ট্যাক্স কার্ড দিয়ে আসছে এনবিআর। সেরা করদাতা হিসেবে বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে এবারও ১৪১টি ট্যাক্সকার্ড দেবে এনবিআর। এর মধ্যে ব্যক্তি রয়েছেন ৭৬ জন, বাকিগুলো প্রতিষ্ঠান।

প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে কোম্পানি পর্যায়ে ট্যাক্সকার্ড পাচ্ছে ৫৪টি কোম্পানি। কোম্পানিগুলোকে ট্যাক্সকার্ড দেওয়া হবে ১৪টি ক্যাটাগরিতে। এগুলো হচ্ছে ব্যাংকিং, অব্যাংকিং আর্থিক, টেলিযোগাযোগ, প্রকৌশল, খাদ্য ও আনুষঙ্গিক, জ্বালানি, পাটশিল্প, স্পিনিং ও টেক্সটাইল, ওষুধ ও রসায়ন, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া, আবাসন, তৈরি পোশাক, চামড়াশিল্প ও অন্যান্য।

প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে অন্যান্য করদাতা পর্যায়ে চারটি ক্যাটাগরিতে দেওয়া হবে আরও ১১টি ট্যাক্সকার্ড। ক্যাটাগরিগুলো হচ্ছে ফার্ম, স্থানীয় কর্তৃপক্ষ, ব্যক্তিসংঘ ও অন্যান্য।

যোগ্য করদাতা হিসেবে সবাইকে এই মাসেই আনুষ্ঠানিকভাবে ট্যাক্সকার্ড ও সম্মাননা দেবে সরকার। নীতিমালা অনুযায়ী, ট্যাক্স কার্ডধারীদের সরকার বিভিন্ন জাতীয় অনুষ্ঠান এবং সিটি করপোরেশন, পৌরসভাসহ স্থানীয় সরকার আয়োজিত নাগরিক সংবর্ধনায় আমন্ত্রণ জানাবে। যেকোনও ভ্রমণে সড়ক, বিমান বা জলপথে টিকিট পাওয়ার ক্ষেত্রে তারা অগ্রাধিকার পাবেন।

স্ত্রী-স্বামী, নির্ভরশীল পুত্র-কন্যা নিজেদের চিকিৎসার জন্য সরকারি হাসপাতালে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে কেবিন–সুবিধাও পাবেন তারা। এ ছাড়া বিমানবন্দরে সিআইপি লাউঞ্জ ব্যবহার এবং তারকা হোটেলসহ সব আবাসিক হোটেলে বুকিং পাওয়ার ক্ষেত্রে তারা অগ্রাধিকার পাবেন। ট্যাক্সকার্ড দেওয়ার পর থেকে এর মেয়াদ থাকবে এক বছর।

সাংবাদিক শ্রেণিতে এ বছর সেরা করদাতা প্রথম আলো সম্পাদক ও প্রকাশক মতিউর রহমান এবং ইংরেজি দৈনিক দ্য ডেইলি স্টার–এর সম্পাদক মাহ্ফুজ আনাম। করদাতার দিক থেকে সেরা পাঁচ সাংবাদিকের অন্যরা হচ্ছেন চ্যানেল আইয়ের পরিচালক (বার্তা) শাইখ সিরাজ, চট্টগ্রামের দৈনিক আজাদী–এর সম্পাদক মোহাম্মদ আবদুল মালেক এবং বাংলাদেশ প্রতিদিন–এর সম্পাদক নঈম নিজাম।

সিনিয়র সিটিজেন শ্রেণিতে ট্যাক্সকার্ড পাবেন স্যামুয়েল এস চৌধুরী, তপন চৌধুরী ও রাজশাহীর অনিতা চৌধুরী এবং গোলাম দস্তগীর গাজী ও খন্দকার বদরুল হাসান। তাদের মধ্যে সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী বৃহৎ করদাতা ইউনিটের (এলটিইউ) করদাতা। স্যামুয়েল এস চৌধুরী ও অনিতা চৌধুরী রাজশাহী কর অঞ্চল এবং খন্দকার বদরুল হাসান ঢাকা কর অঞ্চল ৩-এর করদাতা।

গেজেটভুক্ত যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা শ্রেণিতে ট্যাক্সকার্ড পাবেন ঢাকার চারটি কর অঞ্চলের লে. জেনারেল আবু সালেহ মো. নাসিম (অব.), মো. নাসির উদ্দিন মৃধা, এস এম আবদুল ওয়াহাব, মো. ইদ্রিস আলী মিয়া এবং মো. আতাউর রউফ।

নারী শ্রেণিতে ঢাকার কর অঞ্চল–৩-এর রুবাইয়াত ফারজানা হোসেন, কর অঞ্চল–৬-এর মাহমুদা আলী শিকদার ও কর অঞ্চল–৯-এর পারভীন হাসান এবং রাজশাহী কর অঞ্চলের রত্না পাত্র ও রংপুর কর অঞ্চলের নিশাত ফারজানা চৌধুরী ট্যাক্সকার্ড পাবেন।

তরুণ শ্রেণিতে রয়েছেন এলটিইউর করদাতা নাফিস সিকদার, ঢাকার কর অঞ্চল–৪-এর গাজী গোলাম মতুর্জা, কর অঞ্চল–৩-এর মো. হাসান, কর অঞ্চল–১০–এর জুলফিকার হোসেন মাসুদ রানা এবং চট্টগ্রাম কর অঞ্চল–৪-এর মো. আমজাদ খান।

প্রতিবন্ধী শ্রেণিতে ঢাকার কেউ ট্যাক্সকার্ড পাননি। পাচ্ছেন চট্টগ্রামের সুকর্ণ ঘোষ, সিলেটের মো. মামুনুর রশিদ ও খুলনার কাজী আখতার হোসেন।

ব্যবসায়ী শ্রেণিতে রয়েছেন ঢাকার কর অঞ্চল–২-এর মো. কাউছ মিয়া, কর অঞ্চল–১২-এর আব্দুল কাদির মোল্লা, কর অঞ্চল–১৫-এর কামরুল আশরাফ খান, এলটিইউর সৈয়দ আবুল হোসেন এবং কর অঞ্চল–১০-এর মো. নুরুজ্জামান খান।

চিকিৎসক শ্রেণির সেরা পাঁচ করদাতাই কর অঞ্চল–১০-এর। তারা হলেন এ কে এম ফজলুল হক, প্রাণ গোপাল দত্ত, জাহাঙ্গীর কবির, এনএএম মোমেনুজ্জামান ও মো. নুরুল ইসলাম।

আইনজীবী শ্রেণির সবাই কর অঞ্চল–৮-এর। তালিকায় রয়েছেন মাহবুবে আলম, শেখ ফজলে নূর তাপস, আহসানুল করিম, কাজী মুহাম্মদ তানজীবুল আলম ও নিহাদ কবির।

স্থপতি শ্রেণিতে এবার তিন জন ট্যাক্সকার্ড পাবেন। তারা হলেন ফয়েজ উল্লাহ, হাসান সামস উদ্দীন ও ইকবাল হাবিব।

প্রকৌশলী শ্রেণিতে ঢাকার কেউ ট্যাক্সকার্ড পাচ্ছেন না। পাচ্ছেন চট্টগ্রামের মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন, রাজশাহীর মো. হাফিজুর রহমান ও বগুড়ার মোহাম্মদ হামিদুল হক।

হিসাবরক্ষক শ্রেণিতে কার্ড পাচ্ছেন ঢাকার মো. মোক্তার হোসেন, এম বি এম লুৎফুল হাদী ও বিমলেন্দু চক্রবর্ত্তী।

নতুন করদাতা শ্রেণিতে সাত জনের মধ্যে ঢাকার মিয়া মনিকা রফিকুলোভনা, তাফিজুল ইসলাম পিয়াল ও সাইফুল ইসলাম, সিলেটের রানা মালিক, মোসাম্মাৎ সেলিনা আক্তার ও রাসেল রায় এবং রাজশাহীর মোছা. ছিয়াতুন নেছা।

অন্যান্য এলটিইউর করদাতা শ্রেণিতে পাচ্ছেন সদর উদ্দিন খান, আবু মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন খান ও নজরুল ইসলাম মজুমদার।

এ বছর সেরা করদাতা হয়েছেন জাতীয় দলের তিন ক্রিকেটার। তারা হলেন কর অঞ্চল–৭-এর সাকিব আল হাসান। কর অঞ্চল–১-এর তামিম ইকবাল ও মাশরাফি বিন মুর্তজা।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/জেড/বি

এনবিআরকে পেপারলেস করে ডিজিটাল করার লক্ষ্যে সরকার

1541362026_44স্টকমার্কেটবিডি প্রতিবেদক :

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)’কে পেপারলেস করে ডিজিটাল করার লক্ষ্য রয়েছে সরকারের। তবে, ঠিক কতদিনের মধ্যে ডিজিটাল হবে সেটি নির্ধারণ করে অন্য সরকারি প্রতিষ্ঠানকেও তা অনুসরণ করার তাগিদ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক মো. আবুল কালাম আজাদ।

রবিবার (৪ নভেম্বর) দুপুরে কাকরাইল ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স, বাংলাদেশ (আইডিইবি)’এ জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) আয়োজিত নাগরিক সেবায় উদ্ভাবন ‘ইনোভেশন শোকেসিং’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

ডিজিটাল তথ্য প্রযুক্তির আওতায় এনবিআর ও সঞ্চয় অধিদফতরের ১১ টি উদ্ভাবনকে শোকেসিং এর আওতায় আনা হয়েছে। একাধিক অ্যাপসহ ডিজিটাল সেবা এর আওতাধীন। এসব সেবা তুলে ধরতেই এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে সেবার বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরেন এনবিআর সদস্য (আয়কর) কানন কুমার রায়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক মো: আবুল কালাম আজাদ বলেন, ডিজিটাল পদ্ধতি ছাড়া আর্থিক খাতকে দুর্নীতি মুক্ত করা সম্ভব নয়। এনবিআর এর ১১ টি সেবাকে একটি অ্যাপ বা একই ছাতার তলে নিয়ে আসা উচিত।

এনবিআরের কর্মকর্তাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, পেপারলেস অফিস কতোদিনে করা যাবে? ১ বছর, ২ বছর, ৫ বছর, ১০ বছর বা ২০ বছর? অনেকেই এসময় হাত নেড়ে ২ বছরেরর কথা জানান।

পরে মূখ্য সমন্বয়ক আজাদ এনবিআর চেয়ারম্যানের উদ্দেশে বলেন, ‘স্যার, আপনি আপনার কর্মকর্তাদের নিয়ে বসুন। তাদের সাথে আলোচনা করে পেপারলেস এনবিআর করতে একটি সময় নির্ধারণ করুন। আপনি যে সময় নির্ধারণ করবেন, যে পরিকল্পনা করবেন, আমরা অন্যান্য অফিসের জন্যও সেই সময় নির্ধারণ করবো।’

মূখ্য সমন্বয়ক আরও বলেন, ‘যেভাবে আপনারা এনবিআরকে ডিজিটাল করছেন, কর আহরণ যেভাবে বাড়ছে, এই ধারা অব্যাহত থাকলে আমাদের অগ্রগতি কেউ থামাতে পারবে না।’

সভাপতির বক্তব্যে এনবিআর চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ‘আমরা পেপারলেস অফিস করার অগ্রযাত্রা যদি শুরু করতে পারি তবে অন্যান্য অফিসেও তা শুরু হবে। আজ আমাদের কর্মচারীরা উদ্বুদ্ধ হয়েছে। সবচেয়ে বৃহৎ জনবল নিয়ে আমরা কাজ করছি। আমরা যদি শুরু করতে পারি তাহলে অন্যান্য অফিসেও তা শুরু হবে।’

এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, এনবিআরে জনবল বাড়ানোর লক্ষ্য রয়েছে। প্রতিটি উপজেলায় আমরা এনবিআরের কার্যক্রম ছড়িয়ে দিতে চাই। সেবাকে ডিজিটাল করা সম্ভব হলে সহজেই তা সম্ভব।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/জেড/বি

অক্টোবর মাসে রেমিটেন্স আয় ১২৩ কোটি ডলার

dollarস্টকমার্কেটবিডি প্রতিবেদক :

চলতি অর্থবছরের প্রথম চার মাসে প্রবাসীরা ৫১০ কোটি ডলারের রেমিটেন্স দেশে পাঠিয়েছেন, যা গত বছরের একই সময়ের চেয়ে প্রায় ১২ শতাংশ বেশি। আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের দর বৃদ্ধি, স্থানীয় বাজারে ডলারের তেজিভাব এবং হুন্ডি ঠেকাতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নানা পদক্ষেপের কারণে চলতি অর্থবছরেও রেমিটেন্সে তেজিভাব অব্যাহত রয়েছে বলে মনে করছেন সংশ্লিস্টরা।

বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগদ প্রতিবেদনে দেখা যায়, চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জুলাই-অক্টোবর সময়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে প্রবাসী বাংলাদেশিরা ৫০৯ কোটি ৫৭ লাখ ডলার পাঠিয়েছেন। এর মধ্যে অক্টোবর মাসে এসেছে ১২৩ কোটি ৯১ লাখ ডলার। গত বছরেরর জুলাই-অক্টোবর সময়ে বাংলাদেশে ৪৫৫ কোটি ৩৭ লাখ ডলারের রেমিটেন্স এসেছিল। এই হিসাবে চার মাসে রেমিটেন্স বেড়েছে ১১ দশমিক ৯ শতাংশ।

আর পয়েন্ট-টু-পয়েন্ট ভিত্তিতে অর্থাৎ গত বছরের অক্টোবরের চেয়ে এই অক্টোবর রেমিটেন্স বেড়েছে ৬ দশমিক ৫৬ শতাংশ। এদিকে, রেমিটেন্স বাড়ায় বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভও রয়েছে সন্তোষজনক অবস্থায়। গত বৃহস্পতিবার দিন শেষে রিজার্ভে ছিল ৩২ দশমিক ১ বিলিয়ন ডলার।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/জেড/বি

এসএস স্টিলসের আইপিও সাবস্ক্রিপশন চলবে আরো ৩ দিন

ss still fস্টকমার্কেটবিডি প্রতিবেদক :

সদ্য অনুমোদন পাওয়া এসএস স্টিলস লিমিটেডের আইপিও সাবস্ক্রিপশন শুরু হয়েছে গত ২৮ অক্টোবর। বিনিয়োগকারীরা এই আবেদন আরো তিন দিন জমা দিতে পারবেন।

ব্যবসা সম্প্রসারণের লক্ষ্যে এসএস স্টিলস লিমিটেডকে ২৫ কোটি টাকার প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) অনুমোদন দিয়েছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। সম্প্রতি এই আইপিও সাবস্ক্রিশনের দিন নির্ধারণ করে দিয়েছে কমিশন।

কোম্পানি সূত্র জানা যায়, এসএস স্টিলস লিমিটেডের আইপিও সাবস্ক্রিপশন শুরু হবে আগামী ২৮ অক্টোবর। আর বিনিয়োগকারীরা এই আবেদন জমা দিতে পারবেন ৭ নভেম্বর পর্যন্ত।

এর আগে গত ১৭ জুলাই বিএসইসির ৬৫১তম নিয়মিত সভায় কোম্পানিটির আইপিও অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

শেয়ারবাজার থেকে উত্তোলিত ২৫ কোটি টাকা যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জাম ক্রয়, ভবন নিমার্ণ ও আইপিও খরচ নির্বাহ কাজে ব্যবহার করা হবে।

উল্লেখ্য, এসএস স্টিলস লিমিটেডের ৩০ জুন ২০১৭ সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৫.৩৫ টাকা। এ সময়ের কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ১.২০ টাকা।

কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে সিটিজেন সিকিউরিটিজ লিমিটেড ।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/

মতিন স্পিনিংয়ের ১৭ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা

motinস্টকমার্কেটবিডি ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত বস্ত্র খাতের কোম্পানি মতিন স্পিনিং মিলস লিমিটেড শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ১৭ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

রবিবার অনুষ্ঠিত ৩০ জুন ২০১৮ সালের জন্য এ লভ্যাংশ ঘোষণা করে কোম্পানিটির পরিচালনা বোর্ড।

এ বছরে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি লোকসান (ইপিএস) হয়েছে ৩.১০ টাকা। আর শেয়ার প্রতি সম্পদ দাঁড়িয়েছে ৪৩.৬৩ টাকা।

আগামী ১৩ ডিসেম্বর কোম্পানিটি বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হবে। এ জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ২৯ নভেম্বর।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এ

বিশ্বব্যাংক দুটি প্রকল্পে ২০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার দেবে

worldস্টকমার্কেটবিডি ডেস্ক :

টেকসই বন ও জীবিকায়ন এবং রোহিঙ্গা শিশুদের শিক্ষা কার্যক্রমে সহযোগিতা বিষয়ক দু’টি প্রকল্পে বাংলাদেশকে ২০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার দেবে বিশ্বব্যাংক।

এর মধ্যে ওয়াশিংটনভিত্তিক ল্যান্ডিং এজেন্সি টেকসই বন ও জীবিকায়ন প্রকল্পে ১৭৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার প্রদান করবে। যার মাধ্যমে স্থানীয় জনগোষ্ঠীর অংশগ্রহণে বন ব্যবস্থাপনার উন্নয়নে ব্যবহার করা হবে।

এছাড়া ২৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মিয়ানমারের সহিংস ঘটনায় বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা শিশু ও যুবক-যুবতীদের শিক্ষা ও মানসিক পরিস্থিতির উন্নয়নে ব্যয় করা হবে।

অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) একজন কর্মকর্তা আজ বাসসকে জানান, ‘এ ব্যাপারে আগামী ৫ নভেম্বর সোমবার সকাল ১১ টায় রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষ-২-এ সরকার ও বিশ্বব্যাংকের মধ্যে পৃথক দুটি আর্থিক চুক্তি স্বাক্ষর হবে।

কর্মকর্তারা জানান, সরকারের পক্ষে ইআরডি সচিব মনোয়ার আহমেদ এবং বিশ্বব্যাংকের পক্ষে বাংলাদেশ, ভুটান ও নেপালের কান্ট্রি ডিরেক্টর কিমিও ফান চুক্তি স্বাক্ষর করবেন।

ইআরডি ও বিশ্বব্যাংক সূত্র জানায়, টেকসই বন ও জীবিকায়ন প্রকল্পে উপকূলীয় সবুজ বেষ্টনীসহ প্রায় ৭৯ হাজার হেক্টর বনভূমিতে চারাগাছ রোপন করা হবে, যা জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায়ও কাজ করবে

এই প্রকল্পটি কক্সবাজারেও অন্তর্ভুক্ত থাকবে, যেখানে প্রায় ১০ লাখ রোহিঙ্গা আশ্রয় নিয়েছে। সুত্র : বাসস

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এ

খুলনা পাওয়ারের ১.৮০ কোটি শেয়ার বিক্রি করবে সামিট

kpplস্টকমার্কেটবিডি ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত জ্বালানী ও শক্তি খাতের কোম্পানি খুলনা পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেডের একজন উদ্যোক্তা পরিচালক ১ কোটি ৮০ লাখ শেয়ার বিক্রির ঘোষণা দিয়েছেন। রবিবার ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

সূত্র জানায়, সামিট করপোরেশন নামে এই করপোরেট উদ্যোক্তা পরিচালক প্রতিষ্ঠানটির ১ কোটি ৮০ লাখ শেয়ার বিক্রি করবে। ঘোষণার সময় তার হাতে প্রতিষ্ঠানটির ৬ কোটি ৩৭ লাখ ৩৪ হাজার ৭২৭টি শেয়ার রয়েছে।

ঘোষণার পর ৩০ দিনের মধ্যে এই উদ্যোক্তা পরিচালক উল্লেখিত পরিমাণ শেয়ার পাবলিক মার্কেটে বিক্রি করবেন।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/বি

বিডি ল্যাম্পসের ১ম প্রান্তিক বোর্ড ৮ নভেম্বর

bdlams-smbdস্টকমার্কেটবিডি ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত প্রকৌশল খাতের কোম্পানি বিডি ল্যাম্পস লিমিটেডের প্রথম প্রান্তিকের বোর্ড সভা আগামী ৮ নভেম্বর আহবান করা হয়েছে। রবিবার ডিএসই’র ওয়েবসাইটে এ তথ্য জানা গেছে।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (লিস্টিং) রেজুলেশন ২০১৫ এর ১৬(১) ধারা অনুযায়ী, এই বোর্ড সভায় কোম্পানিটির ২০১৮ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রথম প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত এই আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করা হবে।

এদিন বিকাল সাড়ে ১০টায় ঢাকার তেজগাঁয়ে অবস্থিত নিজস্ব অফিসে এই সভাটি অনুষ্ঠিত হবে।

এ সভায় কোম্পানিটির প্রথম প্রান্তিকের ইপিএস ও ন্যাভসহ অন্যান্য আর্থিক তথ্য শেয়ারহোল্ডারদের জানিয়ে দেওয়া হবে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এ

এসআলম কোল্ড রি-রোলিংয়ের ১ম প্রান্তিক বোর্ড ১০ নভেম্বর

s alomস্টকমার্কেটবিডি ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত প্রকৌশল খাতের কোম্পানি এসআলম কোল্ড রি-রোলিং স্টিলস লিমিটেডের প্রথম প্রান্তিকের বোর্ড সভা আগামী ১০ নভেম্বর আহবান করা হয়েছে। রবিবার ডিএসই’র ওয়েবসাইটে এ তথ্য জানা গেছে।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (লিস্টিং) রেজুলেশন ২০১৫ এর ১৬(১) ধারা অনুযায়ী, এই বোর্ড সভায় কোম্পানিটির ২০১৮ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রথম প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত এই আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করা হবে।

এদিন বিকাল সাড়ে ১০টায় চট্টগ্রামে অবস্থিত নিজস্ব অফিসে এই সভাটি অনুষ্ঠিত হবে।

এ সভায় কোম্পানিটির প্রথম প্রান্তিকের ইপিএস ও ন্যাভসহ অন্যান্য আর্থিক তথ্য শেয়ারহোল্ডারদের জানিয়ে দেওয়া হবে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এ

ওআইম্যাক্স ইলেক্ট্রোডের ১ম প্রান্তিক বোর্ড ১১ নভেম্বর

Oimexস্টকমার্কেটবিডি ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত প্রকৌশল খাতের কোম্পানি ওআইম্যাক্স ইলেক্ট্রোড লিমিটেডের প্রথম প্রান্তিকের বোর্ড সভা আগামী ১১ নভেম্বর আহবান করা হয়েছে। রবিবার ডিএসই’র ওয়েবসাইটে এ তথ্য জানা গেছে।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (লিস্টিং) রেজুলেশন ২০১৫ এর ১৬(১) ধারা অনুযায়ী, এই বোর্ড সভায় কোম্পানিটির ২০১৮ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রথম প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত এই আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করা হবে।

এদিন বিকাল সাড়ে ৩টায় রাজধানীর এলিফ্যান্ট রোডে অবস্থিত নিজস্ব অফিসে এই সভাটি অনুষ্ঠিত হবে।

এ সভায় কোম্পানিটির প্রথম প্রান্তিকের ইপিএস ও ন্যাভসহ অন্যান্য আর্থিক তথ্য শেয়ারহোল্ডারদের জানিয়ে দেওয়া হবে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এ