আইপিও শেয়ারে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ কমছে

ipoনিজস্ব প্রতিবেদক :

শেয়ারবাজারে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের একটা বড় অংশ প্রাইমারি বা আইপিও মার্কেটে জড়িত। কিন্তু আইপিও কোম্পানি বাজারে এসে অভিহিত মূল্যের চেয়ে খুব বেশি দর বেশি না পাওয়ায় হতাশ তারা। আবার কোম্পানিগুলোর দর কম হওয়ায় এসব কোম্পানির ভিত্তি বিবেচনায় নিজেদের ব্যর্থতাকে স্বীকার করছেন তারা।

অনুমোদন পাওয়া আইসিটি কোম্পানি আগামীকাল লেনদেন হবে। ইতোমধ্যে কোম্পানিটি তাদের প্রথম প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদন জমা দিয়েছে। সেখানে লোকসান দেখিয়েছে কোম্পানিটি। এ অবস্থায় আইসিটির দর নিয়ে আশংকায় আছে বিনিয়োগকারীরা।

নতুন তালিকাভুক্ত পোশাক খাতের কোম্পানি তশরিফা ইন্ডাস্ট্রিজ ও রিজেন্ট টেক্সটাইলের ১০ টাকা অভিহিত মূল্য বা ফেসভ্যালুর সঙ্গে ১৬ টাকা অধিমূল্য বা প্রিমিয়াম যোগ করে আইপিওতে তশরিফার প্রতিটি শেয়ারের বিক্রয়মূল্য ছিল ২৬ টাকা। লেনদেন শুরুর প্রথম দিনে এটির সর্বোচ্চ দাম উঠেছিল ৩৬ টাকায়। এরপর দাম কমতে কমতে সর্বশেষ গত বৃহস্পতিবার বাজারে কোম্পানিটির প্রতিটি শেয়ার বিক্রি হয় ১৭ টাকা ৭০ পয়সায়।

রিজেন্ট টেক্সটাইলের আইপিও শেয়ার নিয়ে আরও বাজে পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয় বিনিয়োগকারীদের। লেনদেন শুরুর দ্বিতীয় দিনেই এটির শেয়ারের বাজারমূল্য আইপিও দামের নিচে নেমে যায়। ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের সঙ্গে ১৫ টাকা অধিমূল্য যোগ করে রিজেন্ট টেক্সটাইলের প্রতিটি শেয়ারের আইপিও মূল্য ছিল ২৫ টাকা। লেনদেনের প্রথম দিনে এটির সর্বোচ্চ দাম উঠেছিল ২৫ টাকা ৫০ পয়সায়। সর্বশেষ বৃহস্পতিবার কোম্পানিটির প্রতিটি শেয়ারের বাজারমূল্য ছিল প্রায় সাড়ে ১৯ টাকা।

ক্ষেত্রবিশেষে আইপিও শেয়ারেও লোকসান গুনতে হচ্ছে বিনিয়োগকারীদের। এ অবস্থায় আইপিও অনুমোদনের ক্ষেত্রে নিয়ন্ত্রক সংস্থাদের পর্যবেক্ষনকেও দায়ি করছে আইপিও ধারীরা। তাদের দাবি, কোম্পানিটির মৌল ভিত্তি আর তালিকাভুক্তির প্রস্তুতি দেখে এই সব অনুমোদন দেওয়া উচিত। তাহলে এ বাজার ধরে রাখা সম্ভব হবে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএ/এলকে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *