ঋণখেলাপি ট্যানারি মালিকদের বাংলাদেশ ব্যাংকের বিশেষ সুবিধা

স্টকমার্কেটবিডি প্রতিবেদক :

ঋণখেলাপি ট্যানারি মালিকদের বাংলাদেশ ব্যাংকের বিশেষ সুবিধা দিয়েছে। আগামী ৩১ মার্চের মধ্যে আগ্রহীকে ব্যাংকে আবদেন করতে হবে। আবেদন পাওয়ার তিন মাস, অর্থাৎ আগামী জুনের মধ্যে ব্যাংক তার গ্রাহককে আবেদনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানাবে।

বুধবার এ সংক্রান্ত সার্কুলার ইস্যু করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ব্যাংকিং রেগুলেশন অ্যান্ড পলিসি ডিপার্টমেন্ট (বিআরপিডি)।

সার্কুলারে বলা হয়, সাভারের চামড়া শিল্পনগরীতে স্থানান্তরিত ট্যানারি মালিকরা নানা কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় অনেকে নিয়মিত ঋণ পরিশোধিত করতে পারছেন না। এসব ঋণ মন্দ ঋণে (ব্যাড লোন) শ্রেণিকৃত (ক্লাসিফাইড) হয়ে পড়েছে। এর ফলে চামড়া শিল্পখাতে স্বাভাবিক ঋণপ্রবাহ বজায় রাখা অনেক ক্ষেত্রে সম্ভব হচ্ছে না।

ব্যবসা অব্যাহত রাখতে পারবেন না, এমন কারখানা মালিকদের ক্ষেত্রে সার্কুলারে বলা হয়েছে, ২০২০ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত যাদের ঋণস্থিতি ৫ কোটি টাকা ছিল, তারা নগদ ২ শতাংশ ডাউনপেমেন্টে দিয়ে ৩ বছরের মধ্যে মূল ঋণ পরিশোধ করতে পারবেন।

একই সময়ে যাদের ঋণস্থিতি ৫ কোটি টাকার বেশি, তারা একই পরিমাণ ডাউনপেমেন্ট দিয়ে মূল ঋণ পরিশোধের জন্য ৫ বছর সময় পাবেন।

ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদ সুদ মওকুফ না করলে, ঋণ পরিশোধের ক্ষেত্রে এই সময়সীমা সুদ ও আসল মিলিয়ে হবে।

ব্যবসা থেকে যারা এক্সিট নিতে চান, জামানত হিসেবে ব্যাংকে রাখা তাদের সম্পত্তি গ্রাহকের সম্মতি সাপেক্ষে বিক্রি করতে পারবে ব্যাংক।

যেসব ট্যানারি মালিক সাভারে তাদের ব্যবসা অব্যাহত রাখতে পারবেন, তারা ৩১ ডিসেম্বর ২০২০ পর্যন্ত ঋণস্থিতির ২ শতাংশ নগদে ডাউনপেমেন্ট দিয়ে ১ বছরের গ্রেস পিরিয়ডসহ সর্বোচ্চ ১০ বছরের জন্য ঋণ পুনঃতফসিল/পুনর্গঠন সুবিধা পাবেন। এই সুবিধা নেওয়ার পর ঋণের সুদহার হবে ৯ শতাংশ।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *