তালিকাভুক্ত কোম্পানির পর্ষদে ১৭% পরিচালক নারী

DSC_0নিজস্ব প্রতিবেদক :

দেশের শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোতে ১৭ শতাংশ নারী পরিচালক রয়েছে। তবে তাদের পদায়ন বেশির ভাগই পারিবারিক ভাবে। ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্স করপোরেশনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

মঙ্গলবার বিশ্ব নারী দিবস উপলক্ষ্যে করপোরেট সোশ্যাল রেসপনসিভিলিটি (সিএসআর) সেন্টার, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্স করপোরেশনের (আইএফসি) যৌথ উদ্যোগে ‘রিং দ্য বেল ফর জেন্ডার ইক্যুয়িটি শীর্ষক’ আলোচনা সভায় শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বাংলাদেশে কোম্পানিগুলো ১৭ শতাংশ পরিচালক নারী। যা অন্যান্য দেশের চেয়ে তুলনামূলকভাবে ভালো। তবে বেশিরভাগই পারিবারিক ভাবে দায়িত্বপ্রাপ্ত। তারা দক্ষতা ও যোগ্যতার উপর ভিত্তি করে ওই পদে আসেনি।

তবে ইউরোপের অনেক দেশ থেকে নারীর পদায়নে যোগ্যতা ও দক্ষতার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ অনেকটা পিছিয়ে আছে।

শিক্ষিত, দক্ষ যোগ্য নারী কর্মী নিয়োগের আহ্বান জানান তারা বলেন, নারীদের প্রশিক্ষণ প্রয়োজন।এক্ষেত্রে সরকাররের পাশাপাশি বেসরকারি খাতের দায়িত্বশীল ব্যাক্তিদের এগিয়ে আসতে হবে।

তাদের মতে, কোটা ভিত্তি ও পারিবারিকভাবে নিয়োগ না দিয়ে দক্ষ কর্মী হিসেবে নারীদের নিয়োগ দেয়া উচিত। পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে কোনো কোম্পানির বোর্ডে একজন পরিচালক নারী থাকা বাধ্যতামূলক। বাংলাদেশেও প্রাইভেট সেক্টরে ৫ শতাংশ দক্ষ নারীকে কোম্পানির বোর্ডে রাখার পরামর্শ দেন তারা।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে নারী ব্যবসায়ি থাকলেও বাংলাদেশে নারী ব্যবসায়ি খুব নগন্য। আর যারা ব্যবসায় আসছে তারাও পরিবারের উত্তোরাধীকার সূত্রে আসছে। স্ব ইচ্ছায় ব্যবসা খাতে নারীদের আনার উদ্যোগ নেয়ার জন্য সংশ্লিষ্টদের পরামর্শ দেন তারা।

সঠিক প্রশিক্ষণ ও পরামর্শ এবং সুযোগ সুবিধা নিশ্চিতে এদেশের নারীরাও অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে এগিয়ে যেতে পারবে বলে মনে করেন তারা।

সংবাদ সম্মেলনে সিএসআর সেন্টারের সিইও শাহামিন এ জামান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগি অধ্যাপক রাশেদুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *