ব্রোকারেজ হাউজের জন্য পিছিয়ে নতুন ট্রেডিং

houseনিজস্ব প্রতিবেদক :

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গত ডিসেম্বরে নতুন সফটওয়্যার চালু হওয়ার পর থেকে লেনদেন কম হচ্ছে। লেনদেনে মন্দার জন্য ডিএসইর সদস্যভুক্ত ব্রোকারেজ হাউজগুলোতে ওই সফটওয়্যার অপারেটিং করার জন্য উইন্ডোজ-৮-এর লাইসেন্স কপি কম্পিউটারে ইনস্টল না করাকে দায়ী করেছেন সংশ্লিষ্টরা।

একই সঙ্গে অধিকাংশ ব্রোকারেজ হাউজ দক্ষ অনুমোদিত প্রতিনিধিকে বাদ দিয়ে কম বেতনে নতুন প্রতিনিধি নিয়োগ করছে। যার কারণে এ সফটওয়্যার অপারেটিং করার জন্য যে জ্ঞান থাকা প্রয়োজন তা নতুন প্রতিনিধিদের না থাকায় অনেক বিনিয়োগকারী কম লেনদেন করছেন।

ডিএসইতে গত ১১ ডিসেম্বর নতুন স্বয়ংক্রিয় লেনদেন ব্যবস্থার (অটোমেশন ট্রেডিং সিস্টেম) উদ্বোধন করা হয়। ওইদিন এর আগের সাড়ে ১৩ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন লেনদেন হয়। ওইদিন ডিএসইতে লেনদেন হয় মোট ১৩৬ কোটি ৮৯ লাখ টাকা। বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, গত ডিসেম্বরে ডিএসইতে নতুন সফটওয়্যার চালু হওয়ার পর লেনদেন ৫০০ কোটি টাকার নিচে নেমে গেছে।

সর্বশেষ গত বুধবার ডিএসইতে লেনদেন হয় ৩৯০ কোটি টাকা। অথচ গত অক্টোবরেও হাজার কোটি টাকা লেনদেন হতো।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ডিএসইর নতুন সফটওয়্যারটি অপারেটিং করতে প্রতিটি ব্রোকারেজ হাউজকে উইন্ডোজ-৮-এর লাইসেন্স কপি সংযোজন করতে বলা হয়। একই সঙ্গে জানানো হয় এ সফটওয়্যারটি কোনো কম্পিউটারে যদি না ইনস্টল করা হয় তবে ডিএসইর স্বয়ংক্রিয় লেনদেন ব্যবস্থার ডিএসই ডিএসই- ফ্লেক্সটিপি নতুন সফটওয়্যার কাজ করবে না।

ডিএসইর এ নির্দেশনা থাকার পরো অধিকাংশ ব্রোকারেজ হাউজ উইন্ডোজ-৮- এর লাইসেন্স কপি সংযোজন করেনি। তাই ডিএসইর নতুন সফটওয়্যারটি অপারেটিং করতে পারছেন না অনুমোদিত প্রতিনিধিরা। একই সঙ্গে অদক্ষ ট্রেডাররা সফটওয়্যারটির অনেক কমান্ড এখনো বুঝতে পারছেন না।

সরেজমিন দেখা গেছে, অধিকাংশ ব্রোকারেজ হাউজের কম্পিউটারে উইন্ডোজ-৮-এর লাইসেন্স কপি নেই। তাই ডিএসইর নতুন সফটওয়্যারটি ঠিকমতো কাজ করছে না। কারণ ডিএসই-ফ্লেক্সটিপি নতুন সফটওয়্যার একটি উন্নতমানের সফটওয়্যার। তাই এটা অপারেটিং করতে হলে উইন্ডোজ-৮-এর লাইসেন্স কপির বিকল্প নেই।

হাউজগুলোর দাবি, অধিকাংশ ব্রোকারেজ হাউজ তাদের ব্যয় কমাতে নতুন অনুমোদিত প্রতিনিধি নিয়োগ করছেন। যার কারণে তারা বাজারে এসেই নতুন একটি লেনদেন পদ্ধতির মুখোমুখি হচ্ছেন। এ কারণে সমস্যা হচ্ছে বিনিয়োগকারীদের। আর ট্রেডাররা সফটওয়্যারটির কমান্ড সম্পর্কে পুরোপুরি ধারণা না নিতে পারলে এখনই বিনিয়োগে ফিরতে চান না তারা।

ডিএসইর সাবেক প্রেসিডেন্ট ও বর্তমান পরিচালক শাকিল রিজভী বলেন, ডিএসইর নতুন সফটওয়্যারটি চালু করার জন্য উইন্ডোজ-৮-এর লাইসেন্স কপি সংযোজন করতে বলা হয়েছে। এমনকি আমরা ব্রোকারেজ হাউজগুলোকে দুটি করে সফটওয়্যার দিয়েছি। তবে ব্রোকারেজ হাউজগুলোর শাখা অফিসে এ সফটওয়্যার সংযোজন না করলে তাতে তো সমস্যা হবেই।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম/এএআর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *