মন্দা বাজারে দাপুটে বিএসআরএম : স্থিতিশীল স্টিল লিমিটেড

bsrmনিজস্ব প্রতিবেদক :

গত পাঁচ দিন ধরেই দেশের দুই শেয়ারবাজারে মন্দার রাজত্ব। প্রধান বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে এই চার দিনে সূচক কমেছে ৮৭ পয়েন্ট। কিন্তু এই পড়তি বাজারেও চলছে বিএসআরএম লিমিটেডের দাপট। এই সময়ের মধ্যেই কোম্পানিটির দাম বেড়েছে ২২ টাকা। দাম বৃদ্ধির হার ১২ শতাংশ।

যদিও এই বিএসআরএম রাজত্ব চলছে সেই ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে। ৭ ফেব্রুয়ারি চলতি মাসের সবচেয়ে কম দামে লেনদেন হয়েছিল শেয়ারটি। ওই দিন বিএসআরএম লিমিটেডের প্রতিটি শেয়ারদর ছিল ১১৩ টাকা ৮০ পয়সা। আর ১৬ কার্যদিবসের ব্যবধানে মঙ্গলবার এই শেয়ারটি লেনদেন হয়েছে সর্বোচ্চ ২০৫ টাকায়। এসময় শেয়ারপ্রতি দর বেড়েছে ৯০ টাকা ৫০ পয়সা, দরবৃদ্ধির হার প্রায় ৮০ শতাংশ!

অথচ পাশাপাশি একই ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের মালিকানাধীন বিএসআরএম স্টিল লিমিটেডের শেয়ার গত এক মাসে বেড়েছে মাত্র ৯ টাকা ৯০ পয়সা। এ ক্ষেত্রে দরবৃদ্ধির হার ১১.৭১ শতাংশ। মঙ্গলবার এই শেয়ারটি ৮৯ টাকা ৫০ পয়সায় স্থিতিশীল অবস্থায় দিনের লেনদেন শেষ করেছে।

পড়তি বাজারেও বিএসআরএম লিমিটেডের শেয়ারের এই ঊর্ধ্বগতি ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের নজরেও পড়েছে। এ কারণে গত ২৮ ফেব্রুয়ারি দর বাড়ার কারণ জানতে নোটিশ দিয়েছে বিএসআরএম লিমিটেডকে। যথারীতি সংবেদনশীল কোনো তথ্য নেই বলে জানানো হয়েছে কোম্পানি থেকে।

কিন্তু এর পরও আজ মঙ্হলবার এই কোম্পানির শেয়ারপ্রতি দর আগের দিনের চেয়ে ৭০ পয়সা বৃদ্ধি পেয়েছে। অথচ এদিন ডিএসইতে সাধারণ সূচক কমেছে ২৭ পয়েন্ট। সোমবার এই কম্পানির শেয়ারপ্রতি দর আগের দিনের চেয়ে ৯ টাকা ১০ পয়সা বৃদ্ধি পেয়েছে। –

গত বছরের ২৭ এপ্রিল লেনদেন শুরু করে তালিকাভুক্ত চট্টগ্রামকেন্দ্রিক এই কোম্পানিটি। অন্তর্ভুক্তির প্রথম বছরে ১০ শতাংশ শেয়ার লভ্যাংশ দেয়। সমাপ্ত ২০১৫ সালের আর্থিক প্রতিবেদনের ওপর গত ১০ ফেব্রুয়ারি ১০ শতাংশ শেয়ার এবং ৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেয় বিএসআরএম লিমিটেড। এ কারণে ১১ ফেব্রুয়ারি কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেনে কোনো লিমিট ছিল না। ফলে এক দিনেই এই কোম্পানির শেয়ার ৩০ টাকা বৃদ্ধি পায়। আগামী ৩ মার্চ রেকর্ড ডেটের কারণে গতকাল সোমবার থেকেই স্পট মার্কেটে গেছে কোম্পানির শেয়ার।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএ/এলকে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *