চলতি সপ্তাহে ৩ কোম্পানির এজিএম

স্টকমার্কেটবিডি ডেস্ক :

চলতি সপ্তাহে (৯ থেকে ১৪ জানুয়ারি) শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত তিন কোম্পানির বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হবে।

কোম্পানিগুলো হলো, ঢাকা ইলেকট্রিক সাপ্লাই কোম্পানি (ডেসকো), এস আলম কোল্ড রোল্ড স্টিল ও কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজ।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ঢাকা ইলেকট্রিক সাপ্লাই কোম্পানি: বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে তালিকাভুক্ত এ কোম্পানিটির বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) শনিবার (৯ জানুয়ারি) সকাল ১০টায় ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে অনুষ্ঠিত হবে। কোম্পানিটি ২০২০ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এজিএমে এ লভ্যাংশ অনুমোদন দেবেন বিনিয়োগকারীরা।

এস আলম কোল্ড রোল্ড স্টিল: প্রকৌশল খাতে তালিকাভুক্ত এ কোম্পানিটির বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) শনিবার (৯ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টায় ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে অনুষ্ঠিত হবে। কোম্পানিটি ২০২০ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এজিএমে এ লভ্যাংশ অনুমোদন দেবেন বিনিয়োগকারীরা।

কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজ: প্রকৌশল খাতে তালিকাভুক্ত এ কোম্পানিটির বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) আজ সকাল ৯টায় ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে অনুষ্ঠিত হবে। কোম্পানিটি ২০২০ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য ২.৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এজিএমে এ লভ্যাংশ অনুমোদন দেবেন বিনিয়োগকারীরা।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/বি

চাল-পেঁয়াজের দাম কমলেও বেড়েছে ভোজ্যতেলের

স্টকমার্কেটবিডি প্রতিবেদক :

গত এক সপ্তাহে চালে সাড়ে ৪ শতাংশ এবং পেঁয়াজে সাড়ে ১২ শতাংশ পর্যন্ত দাম কমেছে। বিপরীতে আরেক দফা বেড়েছে ভোজ্যতেল বা সয়াবিনের দাম। সেই সঙ্গে বেড়েছে দেশি আদা, এলাচ ও চিনির দাম।

সরকারি প্রতিষ্ঠান ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) প্রতিবেদনে এমন তথ্য উঠে এসেছে।

রাজধানীর শাহজাহানপুর, মালিবাগ বাজার, কারওয়ান বাজার, বাদামতলী বাজার, সূত্রাপুর বাজার, শ্যামবাজার, কচুক্ষেত বাজার, মৌলভীবাজার, মহাখালী বাজার, উত্তরা আজমপুর বাজার, রহমতগঞ্জ বাজার, রামপুরা এবং মিরপুর-১ নম্বর বাজারের পণ্যের দামের তথ্য নিয়ে গত শুক্রবার (৮ জানুয়ারি) এ প্রতিবেদন তৈরি করেছে টিসিবি।

প্রতিষ্ঠানটির তথ্য অনুযায়ী, গত এক সপ্তাহে নাজির ও মিনিকেট বা চিকন চালের দাম ৪ দশমিক ৭৬ শতাংশ কমে কেজিতে ৫৬ থেকে ৬৪ টাকায় নেমে এসেছে, যা আগে ছিল ৬০ থেকে ৬৬ টাকা। আর মাঝারি মানের পাইজাম ও লতা চালের দাম ৪ দশমিক ৪২ শতাংশ কমে কেজিতে ৫০ থেকে ৫৮ টাকা হয়েছে, যা আগে ছিল ৫৩ থেকে ৬০ টাকা।

এদিকে, চালের পাশাপাশি গত এক সপ্তাহে কমেছে মসুর ডাল, আলু, পেঁয়াজ, রসুন, আদা ও জিরার দাম। এর মধ্যে সব থেকে বেশি কমেছে আলুর দাম। মানভেদে আলুর কেজি ২৫ থেকে ৩৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে বলে জানিয়েছে টিসিবি। আগে আলুর কেজি ছিল ৪০ থেকে ৪৫ টাকা।

অন্যদিকে, গত এক সপ্তাহে দেশি পেঁয়াজের দাম কমেছে ১২ দশমিক ৫০ শতাংশ। এতে প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৪০ টাকায়, যা আগে ছিল ৩৫ থেকে ৪৫ টাকা। আর আমদানি করা পেঁয়াজের দাম ৮ দশমিক ৩৩ শতাংশ কমে কেজি বিক্রি হচ্ছে ২৫ থেকে ৩০ টাকায়, যা আগে ছিল ২৫ থেকে ৩৫ টাকা।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ

‘বেসরকারি খাতকে লাল ফিতার দৌরাত্ম্য দেখাবেন না’

স্টকমার্কেটবিডি প্রতিবেদক :

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এমপি বলেছেন, “দেশকে উন্নত করতে হলে সরকারি ব্যবস্থাপনার পাশাপাশি বেসরকারি শিল্প খাতকেও এগিয়ে নিতে হবে। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপে বহু শিল্প স্থাপনের সুযোগ দিয়েছেন। কোভিডকালে পোশাক শিল্পসহ অন্যান্য শিল্পে প্রণোদনা দেয়া হয়েছে। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতে তৃণমূল পর্যায়ের খামারিরা যাতে বিপন্ন অবস্থায় না পড়ে, তারা যাতে ঘুরে দাঁড়াতে পারে সেজন্য তাদের প্রণোদনা, নগদ সহায়তা দেয়াসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ আমরা নিয়েছি।” সরকারি কর্মকর্তাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, বেসরকারি খাতে কোন সহযোগিতা লাগলে তাদেরকে লাল ফিতার দৌরাত্ম্য দেখাবেন না।

শনিবার (০৯ জানুয়ারি) রংপুরের বদরগঞ্জে বেসরকারি এগ্রো বেইজড প্রতিষ্ঠান ইয়ন গ্রুপের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত হাইটেক ডেইরি ফার্ম এবং ‘বাকারা’ পাস্তুরিত দুধ ও দুগ্ধজাত পণ্য উৎপাদনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানা গেছে।

ইয়ন গ্রুপের চেয়ারম্যান ও সিইও মোমিন উদ দৌলার সভাপতিত্বে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব রওনক মাহমুদ এবং প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডাঃ আবদুল জব্বার শিকদার অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে মৎস্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কাজী শামস আফরোজ, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব শাহ্ মোঃ ইমদাদুল হক, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের পরিচালক শেখ আজিজুর রহমান, রংপুর জেলা প্রশাসনের উপপরিচালক (স্থানীয় সরকার) সৈয়দ ফরহাদ হোসেন, রংপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মধুসূদন রায়, বদরগঞ্জ উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মোঃ মেহেদী হাসান এবং রংপুর বিভাগের মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ দপ্তরের কর্মকর্তাগণ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

এসময় মন্ত্রী আরো বলেন, “খাবারের একটা বড় অংশের যোগান দেয় মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সাথে সংশ্লিষ্ট মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাত। এ খাতে ইয়ন গ্রুপের উদ্যোগকে আমরা স্বাগত জানাই এবং এক্ষেত্রে সকল প্রকার সহায়তা তাদের দেয়া হবে। করোনাকালে বিদেশ থেকে মৎস্য ও প্রাণী খাদ্য আনার ক্ষেত্রে সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছিলো। মন্ত্রণালয় থেকে উদ্যোগ নিয়ে খাদ্য সমস্যার সমাধান করা হয়েছে। একইভাবে রপ্তানি ও আমদানির ক্ষেত্রে যতটুকু সুযোগ-সুবিধা প্রয়োজন ছিল, আমরা দিয়েছি।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতের সাথে সম্পৃক্তদের চরম বিপর্যস্ত অবস্থায় পড়তে হয়নি। এমনকি এ খাতের শিল্পোদ্যোক্তাদের জন্য উৎসে কর বাদ দেয়া হয়েছে। এটা এ খাতকে এগিয়ে নেওয়ার ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উৎকৃষ্ট দৃষ্টান্ত।”

বাংলাদেশ এগিয়ে চলেছে উল্লেখ করে মন্ত্রী আরো যোগ করেন, “বাংলাদেশ একসময় ছিল অন্ধকারের মধ্যে। উন্নয়নের জায়গায় অন্ধকার, নিয়মের জায়গায় দুর্নীতিসহ নানাভাবে দেশ বিপন্ন অবস্থায় ছিল। বিপর্যস্ত বাংলাদেশকে উন্নত-সমৃদ্ধ করার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে যাচ্ছেন। একজন শেখ হাসিনা থাকলে সে জাতি নিরন্তর গতিতে এগিয়ে যাবেই। কোনো প্রতিকুলতা বা কণ্টকাকীর্ণ অবস্থা তার পথ রুদ্ধ করতে পারে না।”

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী আরো বলেন, “মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতে যারা ইয়ন গ্রুপের মতো উদ্যোগ নিয়ে কাজ করবেন তাদের জন্য সরকারের পক্ষ থেকে সকল সহযোগিতা থাকবে। শেখ হাসিনার উন্নয়নের বাংলাদেশে সরকারি-বেসরকারি খাতকে সম্মিলিতভাবে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। সরকারি কর্মকর্তাদের বলবো, বেসরকারি খাতে কোন সহযোগিতা লাগলে তাদেরকে লাল ফিতার দৌরাত্ম্য দেখাবেন না। যেকোন মূল্যে তাদের সহায়তা করতে হবে, যাতে তারা এই খাতকে পরিত্যক্ত করে চলে না যান। তাদের পাশে দাঁড়াতে হবে।বেসরকারি খাতের পাশে দাঁড়ানোর মানে হলো বাংলাদেশের উন্নয়নের পাশে দাঁড়ানো। শেখ হাসিনার অভীষ্ট লক্ষ্যের পাশে দাঁড়ানো। সেটা আমাদের সকলের দায়িত্ব।”

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ

২০২০ সালে কর্মক্ষেত্রে ৭২৯ শ্রমিকের প্রাণ গেছে

স্টকমার্কেটবিডি প্রতিবেদক :

বিদায়ী বছরে কর্মক্ষেত্রে বিভিন্ন দুর্ঘটনায় ৭২৯ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। মৃতদের ৭২৩ জন পুরুষ এবং ৬ জন নারী শ্রমিক। সবচেয়ে বেশি ৩৪৮ জন শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে পরিবহন খাতে। আর মৃত্যুর দিক থেকে নির্মাণ খাত দ্বিতীয় ও কৃষি খাতের অবস্থান তৃতীয়।

আজ শনিবার (৯ জানুয়ারি) সকালে রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবে জরিপের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব লেবার স্টাডিজ (বিলস)।

‘বাংলাদেশের শ্রম ও কর্মক্ষেত্র পরিস্থিতি বিষয়ে সংবাদপত্র ভিত্তিক বিলস জরিপ-২০২০’ শীর্ষক জরিপটির ফল প্রতিবেদন হিসেবে প্রকাশ করা হয়েছে বিভিন্ন জাতীয় সংবাদপত্রে প্রকাশিত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০২০ সালে সবচেয়ে বেশি ৩৪৮ জন শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে পরিবহন বিভাগে। নির্মাণ বিভাগে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৮৪ জন শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। তৃতীয় সর্বোচ্চ ৬৭ জনের মৃত্যু হয়েছে কৃষি বিভাগে। এছাড়া দিনমজুর ৪৯ জন, বিদ্যুৎ খাতের ৩৫ জন, মৎস্য খাতের ২৭ জন, স্টিল মিলের ১৫ জন, নৌপরিবহন খাতের ১৫ জন, অভিবাসী শ্রমিক ১৫ জন ও ১৪ জন মেকানিকের মৃত্যু হয়েছে এই সময়ে। অন্যান্য বিভাগে গতবছর মারা গেছেন আরো (ইট ভাটা, হকার, চাতাল, জাহাজ ভাঙা) আরো ৬০ জন শ্রমিক।

এছাড়া, ২০২০ সালে কর্মক্ষেত্রে দুর্ঘটনায় ৪৩৩ জন শ্রমিক আহত হন। এর মধ্যে ৩৮৭ জন পুরুষ, ৪৬ জন নারী শ্রমিক। আহতদের মধ্যে সর্বোচ্চ ৬৮ জন ছিলেন মৎস্য খাতে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ নির্মাণ খাতে ৪৯ জন শ্রমিক আহত হন। এছাড়া বিদ্যুৎ খাতে ৪৮, পরিবহন খাতে ৪৭, জুতা কারখানায় ২০ জন, নৌপরিবহন খাতে ১৬ জন, তৈরি পোশাক শিল্পে ৩৭, জাহাজ ভাঙা শিল্পে ২৯, দিনমজুর ১৬, উৎপাদন শিল্পে ১৯ ও কৃষিতে ১০ জন শ্রমিক আহত হন। এর আগে ২০১৯ সালে কর্মক্ষেত্রে দুর্ঘটনায় ৬৯৫ জন শ্রমিক আহত হয়েছিল।

এর আগে ২০১৯ সালে কর্মক্ষেত্রে দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছিল ১২০০ শ্রমিকের। এর মধ্যে পুরুষ ছিলেন ১ হাজার ১৯৩ জন, নারী সাতজন। খাত অনুযায়ী ওই বছরেও সবচেয়ে বেশি নিহতের ঘটনা ঘটে পরিবহন খাতে ৫১৬ জন। দ্বিতীয় ও তৃতীয় সর্বোচ্চ মৃত্যুও ছিল ২০২০ সালের মতোই নির্মাণ খাতে (১৩৪ জন) ও কৃষি খাতে (১১৬ জন)।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিলসের ভাইস চেয়ারম্যান সংসদ সদস্য শিরিন আখতার, আনোয়ার হোসাইন, আমিরুল হক আমিন, উপদেষ্টা নইমুল আহসান জুয়েল প্রমুখ।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ

স্যামসাং আনপ্যাকড ইভেন্ট-ওয়েলকাম টু দ্য এভরিডে এপিক

স্টকমার্কেটবিডি প্রতিবেদক :

আগামী ১৪ জানুয়ারি গ্যালাক্সি সিরিজের নতুন ফোনের উন্মোচন অনুষ্ঠান করার ঘোষণা দিয়েছে স্যামসাং। গত কয়েক সপ্তাহ ধরে ইন্টারনেটে গুজব রটেছে যে স্যামসাং এর এস-সিরিজের নতুন লাইনআপ নিয়ে আসছে। সাধারণত স্যামসাং তাদের ‘এস’-সিরিজের ফোনগুলো ফেব্রুয়ারি থেকে এপ্রিলের মধ্যে উন্মোচন করলেও ধারণা করা হচ্ছে এবার এক মাস আগেই উন্মোচন করতে পারে ব্র্যান্ডটি।

ইন্টারনেটে কয়েকটি ছোট টিজার মুক্তি পেয়েছে, যেখানে দেখা গেছে ধোঁয়াশাচ্ছন্ন কালো আয়তাকার আকৃতির কিছু একটা স্বচ্ছ একটি কিউবের ভেতরে ভাসছে। অন্যদিকে আরেকটি টিজারে দেখা গেছে একজন ব্যক্তি একটি স্বচ্ছ বাক্সে সার্ফিং করছেন, তারপর আরো বিস্তারিতভাবে দেখানোর জন্যে একটি নির্দিষ্ট জায়গায় জুম করা হয়। এ অনুষ্ঠানের ট্যাগলাইন -‘ওয়েলকাম টু দ্য এভরিডে এপিক’, এবং আপাতদৃষ্টিতে, এই ডিভাইসগুলো দৈনন্দিন জীবনে এক অসাধারণ অভিজ্ঞতার সঞ্চার করবে।

গত বছর প্রতিষ্ঠানটি স্যামসাং গ্যালাক্সি এস২০, এস২০+, এস২০ আল্ট্রা এবং এস২০এফই ৫জি (ফ্যান এডিশন) বাজারে আনে। বছরের শেষ দিকে ‘ডিসপ্লেমেট’ থেকে গ্যালাক্সি এস২০ আল্ট্রা ‘বেস্ট স্মার্টফোন ডিসপ্লে’র খেতাব অর্জন করে। উদ্ভাবন এবং অনন্য ফিচারে স্যামসাং গ্যালাক্সি এস২০ সিরিজের ফোনগুলো বিশ্বব্যাপী সকলের মুগ্ধতা লাভ করে।

এ কারণে, আনপ্যাকড ইভেন্টে স্যামসাং সবার জন্যে কী নিয়ে আসছে তা জানতে উদগ্রীব হয়ে আছে প্রযুক্তিপ্রেমীরা। আগামী ১৪ জানুয়ারি বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায় অনুষ্ঠানটি সরাসরি দেখার জন্য স্যামসাং ডট কমে চোখ রাখতে হবে। এছাড়াও, স্যামসাং -এর ফেসবুক পেজ ও ইউটিউব চ্যানেলে অনুষ্ঠানটি দেখা যাবে।

চাইলে স্যামসাং গ্লোবাল ফেসবুক পেজে এআর-এ অনুষ্ঠানটি দেখার জন্যে কাউন্টডাউনের ট্র্যাক রাখারও সুবিধা আছে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ

এশিয়ার দেশগুলোতে তেলের দাম বাড়াল সৌদি আরব

স্টকমার্কেটবিডি ডেস্ক :

বিশ্বের শীর্ষ অপরিশোধিত জ্বালানি তেল রফতানিকারক দেশ সৌদি আরব। দেশটির এবার এশিয়ার দেশগুলোর জন্য অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের অফিশিয়াল সেলিং প্রাইস (ওএসপি) বাড়িয়েছে। এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে এই বাড়ানো দামে তেল কিনতে হবে এশিয়ার দেশগুলোকে।

এ ছাড়া মার্কিন আমদানিকারকদেরও বাড়তি দামে কিনতে হবে সৌদি জ্বালানি তেল। তবে ছাড় পাবেন ইউরোপীয় আমদানিকারকরা।

দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ত জ্বালানি প্রতিষ্ঠান সৌদি আরামকোর এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারির জন্য চীন, ভারত, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়াসহ এশিয়া মহাদেশের আমদানিকারক দেশগুলোর জন্য আরব লাইট ক্রুডের ওএসপি আগের মাসের তুলনায় ব্যারেলপ্রতি ৭০ সেন্ট বাড়ানো হয়েছে।

একই সময়ে যুক্তরাষ্ট্রের আমদানিকারকদের জন্য আরব লাইট ক্রুডের ওএসপি ব্যারেলপ্রতি ৭৫ সেন্ট বাড়িয়েছে সৌদি আরামকো, যা আগের মাসের তুলনায় ব্যারেলে ২০ সেন্ট বেশি।

তবে উত্তর-পশ্চিম ইউরোপের আমদানিকারকরা ব্যারেলে ১ ডলার ৯০ সেন্ট ছাড় পাবেন।

সূত্র: রয়টার্স ও অয়েলপ্রাইসডটকম

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ

বিটকয়েনের দাম ৪১ হাজার ডলার ছাড়াল

স্টকমার্কেটবিডি ডেস্ক :

বিটকয়েনের দাম গত ছয়দিনে ৯ হাজার ডলার বেড়েছে। এই ক্রিপ্টোকারেন্সিটির দাম ৪১ হাজার ডলার ছাড়িয়েছে। শুক্রবার এর দাম ছিল ৪১ হাজার ৯৬২ ডলার। ২০২০ সালের ২৫ ডিসেম্বর এর দাম ছিল ২৫ হাজার ডলার। চলতি বছরের ২ জানুয়ারি বেড়ে হয় ৩২ হাজার ডলার।

বিটকয়েনের দাম গত শনিবার প্রথম ৩০ হাজার ডলার ছাড়িয়েছিল।

গত মার্চে বিটকয়েনের দাম ছিল ৫ হাজার ডলার। অনলাইন পেমেন্ট জায়ান্ট পেপাল যখন ঘোষণা দেয় তাদের অ্যাকাউন্ট ব্যবহারকারীরা ক্রিপ্টোকারেন্সি ব্যবহার করতে পারবেন, তখন থেকে দাম বাড়তে থাকে বিটকয়েনের।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ

সপ্তাহজুড়ে লেনদেনের শীর্ষে বেক্সিমকো

স্টকমার্কেটবিডি প্রতিবেদক :

সপ্তাহের ব্যাবধানে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনের শীর্ষস্থান দখল করেছে বেক্সিমকো লিমিটেড। সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির ৮১২ কোটি ৭৯ লাখ ৩৩ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

ডিএসইর সপ্তাহিক বাজার পর্যালোচনা করে এ তথ্য জানা গেছে।

সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটি ১২ কোটি ৬৪ লাখ ৫১ হাজার টি শেয়ার হাতবদল করেছে।

তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে বেক্সিমকো ফার্মাসিটিক্যালস লিমিটেড। কোম্পানিটির ৩ কোটি ৯১ লাখ ৪৫ হাজার ৮৯১টি শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যার বাজার মূল্য ৭৭১ কোটি ৩৪ লাখ টাকা।

আইএফআইসি ব্যাংক তালিকার তৃতীয় স্থানে রয়েছে। কোম্পানিটির ৩০ কোটি ৬১ লাখ ৩০ হাজার ৩৪০টি শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যার বাজার মূল্য ৫০৩ কোটি ৩০ লাখ টাকা।

লেনদেনের তালিকায় থাকা অন্য কোম্পানিগুলো হচ্ছে- লংকাবাংলা ফিন্যান্স, রবি আজিয়াটা, লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ, স্কয়ার ফার্মাসিটিক্যালস, পাওয়ার গ্রীড কোম্পানি অব বাংলাদেশ লিমিটেড।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম

ডিএসইতে পিই রেশিও বেড়েছে ০.৯৩ পয়েন্ট

স্টকমার্কেটবিডি প্রতিবেদক :

বিগত সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সার্বিক মূল্য আয় অনুপাত (পিই রেশিও) ০.৯৩ পয়েন্ট বেড়েছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, গত সপ্তাহের শুরুতে ডিএসইর পিই ছিল ১৬.৫৩ পয়েন্টে। যা সপ্তাহ শেষে ১৭.৪৬ পয়েন্টে অবস্থান করছে। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে পিই রেশিও ০.৯৩ পয়েন্ট বা ৫.৬৩ শতাংশ বেড়েছে।

সপ্তাহ শেষে ব্যাংক খাতের পিই রেশিও অবস্থান করছে ৮.৬০ পয়েন্টে। এছাড়া তথ্যপ্রযুক্তি খাতের ২২.৬৮ পয়েন্টে, বস্ত্র খাতের ১৭.৫৪ পয়েন্টে, ওষুধ ও রসায়ন খাতের ১৭.২২ পয়েন্টে, প্রকৌশল খাতের ১৯.২১ পয়েন্টে, বীমা খাতের ১৯.১৩ পয়েন্টে, বিবিধ খাতের ৪৯.৪৫ পয়েন্টে, খাদ্য খাতের ১৯.৭৪ পয়েন্টে, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের ১০.৪৮ শতাংশ, চামড়া খাতের ঋণাত্বক ১৩.৫৪ পয়েন্টে, সিমেন্ট খাতের ২৯.২৮ পয়েন্টে, আর্থিক খাতের ৬১.৫৮ পয়েন্টে, ভ্রমণ ও অবকাশ খাতের ১৫৯.৪২ পয়েন্টে, পেপার খাতের ৬১.০১ পয়েন্টে, টেলিযোগাযোগ খাতের ১৪.০৫ পয়েন্টে, সেবা ও আবাসন খাতের ১৬.৮৯ পয়েন্টে, সিরামিক খাতের ১৩১.০১ পয়েন্টে এবং পাট খাতের পিই ঋণাত্বক ৪৫.৪৭ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম

৫ দিনে ডিএসইতে মূলধন বেড়েছে ২২ হাজার কোটি টাকা

স্টকমার্কেটবিডি প্রতিবেদক :

সর্বশেষ সপ্তাহে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) বাজার মূলধন আগের সপ্তাহের চেয়ে ২২ হাজার কোটি টাকা বেড়েছে। এসময় গত সপ্তাহের তুলনায় সূচক ও লেনদেনও বেড়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, বিদায়ী সপ্তাহে মোট ৫ কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) মোট লেনদেন হয়েছে ৯৯৫১ কোটি ১১ লাখ টাকার। যা আগের সপ্তাহের ৪ দিনে হয়েছিল ৮০৩৪ কোটি ৬২ লাখ টাকার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে লেনদেন ৭১.৪৭ শতাংশ বেড়েছে।

ডিএসইতে সর্বশেষ সপ্তাহে গড় লেনদেন ১৯৯০ কোটি ২৩ লাখ টাকার হয়েছে। যা আগের সপ্তাহ থেকে ৭১.৪৭ শতাংশ বেড়েছে। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ১১৬০ কোটি ৬৯ লাখ টাকার উপরে।

বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২১৯.৭০ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৫ হাজার ৬২১ পয়েন্টে। আর ডিএসই-৩০ সূচক ৮৪.১১ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২০৪৮ পয়েন্টে। আর শরিয়াহ সূচক ২৩.৮২ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২৬৫ পয়েন্টে।

ডিএসইতে গত সপ্তাহে ৩৬৮টি প্রতিষ্ঠান লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ২১৫টির, কমেছে ১১৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৬টির শেয়ার ও ইউনিটের দর। আর ৩টি শেয়ারের কোনো লেনদেন হয়নি।

গত সপ্তাহের প্রথম দিন ডিএসইতে বাজার মূলধন ছিল ৪ লাখ ৪৮ হাজার ২৩০ কোটি টাকা। আর সপ্তাহের শেষ দিনে এই মূলধন দাঁড়িয়েছে ৪ লাখ ৭০ হাজার ২৭০ কোটি টাকা। এই হিসাবে গত সপ্তাহে ডিএসইতে বাজার মূলধন ২২,০৪০ কোটি টাকা বা ৪.৯২ শতাংশ বেড়েছে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম