শাহজিবাজার ও ডরিন পাওয়ার প্রকল্প উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

pmস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত শাহজিবাজার পাওয়ার কোম্পানি ও ডরিন পাওয়ার জেনারেশন ও ডিস্ট্রিবিউশন লিমিটেডের প্রকল্পগুলো উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার দুপুরে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে নতুন ট্রান্সমিশন ও বিতরণ লাইনের পাশাপাশি আটটি বিদ্যুৎ কেন্দ্র উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এসময় শেখ হাসিনা বলেছেন, ঘরে ঘরে আলো জ্বালার লক্ষ্য বাস্তবায়নের জন্যই তাঁর সরকার কাজ করে যাচ্ছে। ঘরে ঘরে আলো জ্বালবো- সেটাই আমাদের লক্ষ্য। বাংলাদেশের একটি ঘরও আর অন্ধকারে থাকবে না।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশকে উন্নত-সমৃদ্ধ করে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা হিসেবে আমরা গড়ে তুলবো। প্রধানমন্ত্রী এ সময় বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী হবার জন্য সবাইকে পরামর্শ দেন।

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. কামাল আব্দুল নাসের চৌধুরী অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন। অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-এলাহী চৌধুরী, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদসহ মন্ত্রী পরিষদ সদস্যবৃন্দ, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টাবৃন্দ, সংসদ সদস্যবৃন্দ এবং উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মকর্তাগণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

সদ্য নির্মিত আটটি বিদ্যুৎ কেন্দ্র হলো- শাহজিবাজার ৩৩০ মেগওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্র, খুলনার ২২৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্র, আশুগঞ্জ ৪৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্র, ডরিন পাওয়ার জেনারেশন ও ডিস্ট্রিবিউশন লিমিটেডের প্রকল্প মানিকগঞ্জের ৫৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্র ও নবাবগঞ্জের ৫৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্র, জামালপুরের ৯৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্র, বরিশালের ১১০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্র এবং মদনগঞ্জ ৫৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী সরাসরি মতবিনিময় করেন- গোপালগঞ্জের কোটালিপাড়া, মেহেরপুরের মুজিবনগর, টাঙ্গাইলের ভুয়াপুর, নীলফামারীর সৈয়দপুর, জামালপুরের সরকারি আশেক মাহমুদ কলেজ প্রান্ত, বান্দরবনের থানচি উপজেলাবাসী, গাজীপুরের কালিয়াকৈরবাসীর সঙ্গে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘২১ বছর পর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পরই সাধারণ মানুষের জীবনমান উন্নয়নের জন্য আমরা চেষ্টা করেছি, যার সুফলটা এখন দেশের মানুষ পাচ্ছেন। অতীতে বিদ্যুৎ নিয়ে হাহাকার অবস্থা ছিল। আমরা বিদ্যুৎ প্রকল্পের বহুমুখিকরণ এবং বেসরকারি খাতে বিদ্যুৎ উৎপাদনের উদ্যোগ নেই। বিএনপি নেত্রী বিদ্যুৎ দিতে না পারলেও দিয়েছিল খাম্বা। কারণ তার ছেলে খাম্বা ইন্ডাস্ট্রি করেছিল। তারা বিদ্যুৎ উৎপাদন তো বাড়ায়নি বরং কমিয়ে দিয়েছে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সততা ও দক্ষতার সাহায্যে উৎপাদন বৃদ্ধি করে বর্তমানে আমরা ১৫ হাজার ৩৫১ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন সম্ভব করেছি। শতকরা ৮০ ভাগ মানুষের ঘরে আমরা বিদ্যুৎ পৌঁছে দিতে সক্ষম হয়েছি। আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করলে দেশের মান যে উন্নত করা যায় তা আমরা প্রমাণ করেছি।

সূত্র : বাসস

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমএ

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ২টি সহ মূলধন ঘাটতিতে ৭ ব্যাংক

bbস্টকমার্কেট ডেস্ক :

সরকারি-বেসরকারি খাতের সাত ব্যাংকের নিজের মূলধন তো হারিয়েছেই, উপরন্তু সাড়ে ১৬ হাজার কোটি টাকার ঘাটতিতে পড়েছে। ব্যবসার পরিবর্তে এসব ব্যাংক এখন মূলধন জোগান নিয়েই চিন্তিত। এসব ব্যাংকের মধ্যে শেয়ারবাজারের তালিকাভুক্ত ২ ব্যা্ংক রয়েছে।

শেয়ারবাজারের তালিকাভুক্ত রূপালী ব্যাংক ও আইসিবি ইসলামিক ব্যাংক ছাড়াও বাকি হলো সোনালী, রূপালী, বেসিক, কৃষি ব্যাংক, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন, বাংলাদেশ কমার্স।

এ ছাড়া সরকারি-বেসরকারি ছয় ব্যাংক ঋণের মান অনুযায়ী প্রয়োজনীয় সঞ্চিতি সংরক্ষণ করতে ব্যর্থ হয়েছে। মুনাফার অংশ থেকে ব্যাংকগুলোকে সঞ্চিতি সংরক্ষণ করতে হয়। ব্যাংকগুলো হলো সোনালী, রূপালী, বেসিক, বাংলাদেশ কমার্স, ন্যাশনাল ও প্রিমিয়ার।

সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা মির্জ্জা এ বি আজিজুল ইসলাম বলেন, ব্যাংকগুলোর খারাপ ঋণের কারণে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এ জন্য অভ্যন্তরীণ ব্যবস্থাপনা ঠিক করতে হবে। কাদের ঋণ দেওয়া হচ্ছে, এসব সঠিকভাবে দেখতে হবে। যারা ঋণ পরিশোধ করছে না, তাদের বিরুদ্ধে যথাসময়ে আইনি পদক্ষেপ নিতে হবে।

আজিজুল ইসলাম বলেন, যেসব ঋণ নিয়ে মামলা রয়েছে, তা নিষ্পত্তির জন্য জোর পদক্ষেপ নিতে হবে। প্রয়োজনে বাংলাদেশ ব্যাংক, অ্যাটর্নি জেনারেল ও প্রধান বিচারপতি নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে মামলাগুলো দ্রুত নিষ্পত্তির ব্যবস্থা করতে পারেন।

জানা গেছে, ২০১৬ সাল থেকে ব্যাসেল-৩ নীতিমালা অনুযায়ী ব্যাংকগুলোকে ১০ শতাংশ ন্যূনতম মূলধনের পাশাপাশি দশমিক ৬২ শতাংশ হারে অতিরিক্ত মূলধন সংরক্ষণ (ক্যাপিটাল কনজারভেশন বাফার) করতে হয়। গত বছর শেষে ন্যূনতম মূলধন সংরক্ষণ করতে ব্যর্থ হয়েছে সাত ব্যাংক। এ ছাড়া ব্যাংক খাতে মূলধন সংরক্ষণের হার দাঁড়িয়েছে ১০ দশমিক ৮০ শতাংশ।

তথ্যমতে, ২০১৬ সাল শেষে সোনালী ব্যাংকের ঘাটতি দাঁড়িয়েছে ৩ হাজার ৪৭৪ কোটি টাকা। এ ছাড়া বেসিক ব্যাংকে ঘাটতি হয়েছে ২ হাজার ৬৮৪ কোটি টাকা ও রূপালী ব্যাংকের ৭১৪ কোটি টাকা। এ ছাড়া বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংকের ঘাটতি হয়েছে ৩৪৫ কোটি টাকা, আইসিবি ইসলামিক ব্যাংকের ১ হাজার ৪৫১ কোটি টাকা। বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের ঘাটতি দাঁড়িয়েছে ৭ হাজার ৮৩ কোটি টাকা ও রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের ঘাটতি ৭৪২ কোটি টাকা। সব মিলিয়ে সাত ব্যাংকের ঘাটতি দাঁড়িয়েছে ১৬ হাজার ৪৯৩ কোটি টাকা।

এ ছাড়া দশমিক ৬২ শতাংশ হারে অতিরিক্ত মূলধন সংরক্ষণ (ক্যাপিটাল কনজারভেশন বাফার) সংরক্ষণ করতে পারেনি ১১ ব্যাংক। ব্যাংকগুলো হলো সোনালী, রূপালী, জনতা, অগ্রণী, বেসিক, কৃষি, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন, বাংলাদেশ কমার্স, আইসিবি ইসলামিক, ফারমার্স ও এবি ব্যাংক।

এদিকে অনিয়মের মাধ্যমে দেওয়া ঋণ আদায় করতে না পেরে ছয় ব্যাংক ঋণের বিপরীতে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা সঞ্চিতি রাখতে ব্যর্থ হয়েছে। উপরন্তু ২০১৬ সাল শেষে ছয় ব্যাংকের নিরাপত্তা সঞ্চিতি ঘাটতি দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ৫৩৯ কোটি টাকা। এ সময়ে বেসিক ব্যাংকের ঘাটতি হয়েছে ৪ হাজার ৬৩ কোটি টাকা, রূপালী ব্যাংকের ঘাটতি ২৪১ কোটি টাকা, সোনালী ব্যাংকের ঘাটতি ১ হাজার ৭৭৬ কোটি টাকা। এ ছাড়া বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংকের ঘাটতি ২৮৮ কোটি টাকা, ন্যাশনাল ব্যাংকের ১২৩ কোটি টাকা ও প্রিমিয়ার ব্যাংকের ৪৮ কোটি টাকা।

বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা বলছেন, যাচাই-বাছাই না করে দেওয়া ঋণ খেলাপি হয়ে পড়ছে। নিয়মবহির্ভূতভাবে দেওয়া ঋণও আদায় করা যাচ্ছে না। ফলে এসব ঋণের বিপরীতে সঞ্চিতি সংরক্ষণ করতে হচ্ছে ব্যাংকগুলোকে। মুনাফা না হওয়ায় অনেকে সঞ্চিতিও রাখতে পারেনি। এতেই টান পড়ছে মূলধনে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/জেডকে/বি

চলতি মাসেই দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবল ল্যান্ডিং স্টেশনের উদ্বোধন : তারানা

tananaস্টকমার্কেট ডেস্ক :

ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন, বাংলাদেশের দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবল ল্যান্ডিং স্টেশনে দ্রুতগতির ইন্টারনেট সেবা যুক্ত হতে চলেছে। চলতি মাসের যে কোনও সময়ে প্রধানমন্ত্রী এর অনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন।

আজ বুধবার(১ মার্চ) পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় সাবমেরিন ক্যাবল ল্যান্ডিং স্টেশন পরিদর্শনে এসে তিনি কথাগুলো বলেন।

তারানা বলেন, দ্রুতগতির ওই ইন্টারনেট সেবা যুক্ত হলে অভ্যন্তরীণ চাহিদা মিটিয়ে উদ্বৃত্ত ব্যান্ডউইথ রফতানির মাধ্যমে বিপুল রাজস্ব আয় করতে পারবে দেশ। আর এ বিষয়ে বিপণনের কাজ করছে সরকার।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, সরকারি প্রতিষ্ঠান যদি লাভজনক হয় তবে সরকার ও জনগণ তার সুফল পায়। সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোও কর্মদক্ষতা দিয়ে সঠিক সময়ে কাজ করতে পারে। মূল সঞ্চালন লাইন ঢাকা পর্যন্ত সফলতার সাথে শতভাগ বিস্তৃত হয়েছে।

উল্লেখ্য, পটুয়াখালীর কুয়াকাটা সংলগ্ন মাইটভাঙ্গা গ্রামে ২০১৩ সালে ১০ একর জমির ওপর ৬৬০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয় ১৫’শ জিবিপিএস সক্ষমতার বাংলাদেশের দ্বিতীয় সাবমেরিন কেবল ল্যান্ডিং স্টেশন। সাবমেরিন ক্যাবল ওয়ানের তুলনায় প্রায় আট গুণ বেশি ক্ষমতাসম্পন্ন নতুন এ সাবমেরিন ক্যাবল।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/জেডকে/বি

ব্লক মার্কেটে অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজের বেশি লেনদেন

block-mস্টকমার্কেট ডেস্ক :

বুধবার ব্লক মার্কেটে সবচেয়ে বেশি শেয়ার লেনদেন করেছে অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ। এই কোম্পানি ৩ লাখ শেয়ার লেনদেন করেছে। যার আর্থিক মূল্য ৯ কোটি ২৪ লাখ টাকা। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এদিন মোট ৯ কোম্পানি ও ২ মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার বা ইউনিট লেনদেন হয়েছে। কোম্পানি ও ফান্ড মিলে মোট ১১ লাখ ৮৪ হাজার ২১০টি শেয়ার বা ইউনিট লেনদেন করেছে। যার আর্থিক মূল্য ১১ কোটি ৮২ লাখ টাকা।

এখানে লেনদেন করা অন্য কোম্পানিগুলো হচ্ছে- এনসিসি ব্যাংক মিউচ্যুয়াল ফান্ড, বীচ হ্যাচারি, বিডি ওয়েল্ডিং, বার্জার পেইন্টস, সিভিও পেট্রো কেমিক্যাল, গোল্ডেন সন, আইসিবি সেকেন্ড এনআরবি মিউচ্যুয়াল ফান্ড, আইএফআইসি ব্যাংক ও সাইফ পাওয়ারটেক।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/জেডকে/বি

সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজের হেড অফিস পরিবর্তন

suridস্টকমার্কেট ডেস্ক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত প্রকৌশল খাতের কোম্পানি সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজ কোম্পানি লিমিটেডের হেড অফিস পরিবর্তন করা হয়েছে। বুধবার ডিএসই সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়।

সূত্রটি জানায়, কোম্পানিটির প্রধান অফিস রাজধানীর গ্রীন রোডে ৩৭ নম্বর ভবনে স্থানান্তর করা হয়েছে। ১ মার্চ থেকে সকল বিনিয়োগকারী ও ট্রেক হোল্ডারদের নতুন অফিসে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/জেডকে/বি

মিথুন নিটিং পরিচালকদের ৪র্থ দফায় শেয়ার বিক্রি

mithunনিজস্ব প্রতিবেদক :

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত বস্ত্র খাতের কোম্পানি মিথুন নিটিং লিমিটেডের তিনজন স্পন্সর চতূর্থ দফায় শেয়ার বিক্রি করছেন। হাতে থাকা শেয়ারের বড় অংশ ছেড়ে দিচ্ছেন তারা। এবার তারা ৩ লাখ করে শেয়ার বিক্রি করবেন। ডিএসই’র ওয়েবসাইটে এ তথ্য জানা গেছে।

ডিএসই সূত্রে জানা যায়, মো: আতিকুল হক, মো: মাহবুবুল হক ও মো: রফিকুল হক নামে কোম্পানিটির তিনজন স্পন্সর আজ বুধবার মোট ৬ লাখ শেয়ার বিক্রির ঘোষণা দিয়েছেন। আগামী ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে উল্লেখিত পরিমাণ শেয়ার বিক্রয় করা হয়েছে বলে কোম্পানিটির পক্ষ থেকে জানানো হয়।

এর আগে ১২ ফেব্রুয়ারি এই তিনজন স্পন্সর মোট ৬ লাখ শেয়ার বিক্রির ঘোষণা দেন। এর আগে ১৮ জানুয়ারি প্রত্যেকে ১ লাখ করে শেয়ার বিক্রির ঘোষণা দেয় কোম্পানিটির এই তিন পরিচালক। যার বিক্রি সম্পন্ন হয়েছে।

গত ৯ জানুয়ারি প্রথম শেয়ার বিক্রি শুরু করে এ পরিচালকরা। সে সময় ডিএসইর অনুমোদন সাপেক্ষে প্রত্যেক পরিচালক ৬০ হাজার করে শেয়ার বিক্রি করেন।

সর্বশেষ হিসাব অনুযায়ী, মো: আতিকুল হক, মো: মাহবুবুল হকের হাতে মোট ১৯ লাখ ৮ হাজার ৮৫১ টি করে শেয়ার রয়েছে। আর মো: রফিকুল হকের হাতে ১৯ লাখ ৯ হাজার ৭৪২ টি শেয়ার রয়েছে।

২০১৬ সালের ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত কোম্পানিটির ৪১ শতাংশ শেয়ার পরিচালক/স্পন্সর, ১২ শতাংশ প্রতিষ্ঠান ও ৪৭ শতাংশ শেয়ার পাবলিকের হাতে রয়েছে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এমআর

বিএসআরএম লিমিটেড ও স্টিলস নগদ লভ্যাংশ পাঠালো

bsrmস্টকমার্কেট ডেস্ক :

বাংলাদেশ ইলেকট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার নেটওয়ার্কের (বিইএফটিএন) মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের ব্যাংক হিসাবে সর্বশেষ হিসাব বছরের নগদ লভ্যাংশ পাঠিয়েছে বিএসআরএম স্টিলস ও বিএসআরএম লিমিটেড। বুধবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

নিয়ম অনুযায়ী, যাদের লভ্যাংশ বিইএফটিএনের মাধ্যমে এখনো পৌঁছায়নি, তাদের কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে পাঠানো হবে।

সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য বিএসআরএম স্টিলস শেয়ারহোল্ডারদের ৩০ শতাংশ নগদ ও বিএসআরএম লিমিটেড শেয়ারহোল্ডারদের শেষ ৬ মাসের জন্য ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এইচ

ডিএসইতে লেনদেনে সেরা বেক্সিমকো লিমিটেড

beximcoনিজস্ব প্রতিবেদক :

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকো লিমিটেড। এদিন কোম্পানির মোট ৪২ কোটি ৮৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

আজ বুধবার কোম্পানিটির শেয়ার ৪৯১৭ বার হাতবদল হয়। এসময় মোট ১ কোটি ২০ লাখ ৮৮ হাজার ৩৩৫টি শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

লেনদেনের শীর্ষ তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে এ্যাকটিভ ফাইন লিমিটেড। কোম্পানিটির ৬৬ লাখ ২৮ হাজার ৭২৯টি শেয়ার হাতবদল হয়। যার বাজার দর ৩৪ কোটি ৬৪ লাখ টাকা।

তালিকার তৃতীয় স্থানে থাকা লংকাবাংলা ফাইন্যান্স লিমিটেড ২৪১৫ বারে ৩২ কোটি ২১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন করেছে।

এই তালিকায় থাকা অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে ফার কেমিক্যাল ৩২ কোটি ৬৩ লাখ, সিএমসি কামাল ২৫ কোটি ৮২ লাখ, ইসলামী ব্যাংক ২৪ কোটি ৭৫ লাখ, প্যাসিফিক ডেনিমস ২২ কোটি ৭৯ লাখ, বারাকা পাওয়ার ২০ কোটি ৮৫ লাখ, কেয়া কসমোটিকস ১৯ কোটি ৭০ লাখ ও ইফাদ অটোসের ১৭ কোটি ২০ লাখ টাকার লেনদেন হয়।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম

  1. বেক্সিমকো লিমিটেড
  2. এ্যাকটিভ ফাইন
  3. লংকাবাংলা ফাইন্যান্স
  4. ফার কেমিক্যাল
  5. সিএমসি কামাল
  6. ইসলামী ব্যাংক
  7. প্যাসিফিক ডেনিমস
  8. বারাকা পাওয়ার
  9. কেয়া কসমোটিকস
  10. ইফাদ অটোস।

ডিএসই ও সিএসইতে কমেছে লেনদেন ও সূচক

DSE_CSE-smbdনিজস্ব প্রতিবেদক :

দেশের বড় শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সব ধরণের মূল্য সূচকের পতন হয়েছে। এদিন লেনদেনের পরিমাণও আগের দিনের চেয়ে কমেছে। এদিন চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) লেনদেন সাথে সূচক কমেছে। ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা যায়, বুধবার ডিএসইতে ৯৬১ কোটি ৯৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সেখানে ১১৫২ কোটি ৪৪ লাখ টাকার লেনদেন হয়। আজ দিন শেষে দিনের লেনদেন আগের দিনের চেয়ে কমেছে।

এদিন ডিএসইতে ডিএসইএক্স সূচক আগের দিনের চেয়ে ১৫.৪৮ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৫৫৯৭ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ০.১৫ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৩০৫ পয়েন্টে। ডিএসই-৩০ সূচক ৪.৫৬ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ২০২১ পয়েন্টে।

এদিন দিনভর লেনদেন হওয়া মোট ৩২৮টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৯৬টির, কমেছে ১৭৭টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৫টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার দর।

এদিন ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষ কোম্পানির মধ্যে রয়েছে – বেক্সিমকো লিমিটেড, এ্যাকটিভ ফাইন, লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, ফার কেমিক্যাল, সিএমসি কামাল, ইসলামী ব্যাংক, প্যাসিফিক ডেনিমস, বারাকা পাওয়ার, কেয়া কসমোটিকস ও ইফাদ অটোস।

এদিকে বুধবার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ৫৪ কোটি ১৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সেখানে ৯৩ কোটি ২৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

এদিন সিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে ছিল বেক্সিমকো লিমিটেড ও প্যাসিফিক ডেনিমস।

এদিন সিএসই সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৪১ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৭ হাজার ৩৩৪ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৫৪টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৭৮টির, কমেছে ১৪৩টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৩টির।

স্টকমার্কেটবিডি.কম/এম